বউবাজারে মেট্রোর সুড়ঙ্গ-আতঙ্ক! মন্ত্রীসহ ৪০০ মানুষ ঘরছাড়া

Kolkata Metro work: ১৬.৬ কিমি দূরত্বের মেট্রোর সুড়ঙ্গ নির্মাণের ফলে বউবাজার এলাকায় ৫০টিরও বেশি বাড়িতে ফাটল দেখা গিয়েছে। আতঙ্কের ছায়া এলাকায়।

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS
বউবাজারে মেট্রোর সুড়ঙ্গ-আতঙ্ক! মন্ত্রীসহ ৪০০ মানুষ ঘরছাড়া

ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর সুড়ঙ্গ নির্মাণের ফলে বউবাজার এলাকায় ৫০টিরও বেশি বাড়িতে ফাটল দেখা গিয়েছে।


মেট্রো (Kolkata Metro) কর্তৃপক্ষের নোটিস পেয়ে বাড়ি ছাড়তে হয়েছে রাজ্যের মন্ত্রী তাপস রায়কে (Tapas Roy)। তাপসবাবুসহ ৪০০-রও বেশি মানুষকে নিজেদের বাড়ি ও দোকান ছেড়ে চলে যেতে বলা হয়েছে। ১৬.৬ কিমি দূরত্বের ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর (Easr West Metro) সুড়ঙ্গ নির্মাণের ফলে বউবাজার এলাকায় ৫০টিরও বেশি বাড়িতে ফাটল দেখা গিয়েছে। ভেঙেও পড়েছে একাধিক বাড়ি। আতঙ্কের ছায়া এলাকায়। গত ৩১ আগস্ট একটি সুড়ঙ্গ খোঁড়ার সময় জল বেরিয়ে আসতে থাকে। এর ফলে দ্রুত এলাকার মাটি ক্ষয়ে যেতে থাকে। শহরের হৃৎপিণ্ড বলে পরিচিত এলপ্ল্যানেড ও ডালহৌসির খুব কাছেই বিপন্ন জনজীবন। ৩১ আগস্ট যেখানে ১০টি বাড়িতে ফাটল দেখা গিয়েছিল, পরের দিনই তা ২০-তে পৌঁছয়। বৃহস্পতিবার পর্যন্ত ফাটলের সংখ্যা ৫২-তে পৌঁছে গিয়েছে। অন্তত দু'টি বাড়ি ধ্বসে যাওয়ার খবর মিলেছে। তৎক্ষণাৎ বাড়ি ছাড়ার নির্দেশ দেওয়া হয় দুর্গা পিটুরি লেন, বাবু রাম সিল লেন ও গৌর দে লেনের বাসিন্দাদের। এলাকার বাসিন্দাদের বাড়ি থেকে বের করে এনে হোটেল ও গেস্ট হাউসে তোলা হয়েছে।

কলকাতা মেট্রো রেলওয়ে কর্পোরেশন লিমিটেডের তরফ থেকে যাঁদের বাড়ি ছাড়তে বলা হয়েছে তাঁদের মধ্যে রয়েছে পরিক‌ল্পনা ও পরিসংখ্যান মন্ত্রী তাপস রায়ও। তাপসবাবু বিবি গাঙ্গুলি স্ট্রিটে বাস করছেন বহু বছর ধরে। তিনি গোটা ব্যাপারটিকে ‘দুর্ভাগ্যজনক' বলে জানিয়েছেন।

মেট্রোর সুড়ঙ্গের কাজের জন্য ঘরছাড়া শতাধিক মানুষ

কলকাতা মেট্রোর তরফ থেকে প্রতিটি ঘরছাড়া পরিবারকে ৫ লক্ষ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কথা ঘোষণা করা হয়েছে।

আগামী ১ ডিসেম্বর ২৫ বছরের অনিন্দিতা দে-র বিয়ে হওয়ার কথা ছিল। সোমবার আচমকাই যাবতীয় দামি ও জরুরি জিনিসপত্র নিয়ে দশ মিনিটের মধ্যে তাঁদের বাড়ি ছেড়ে বেরিয়ে যেতে বলা হয়। কিন্তু কিছু করার আগেই বাড়িটি ভেঙে পড়ে। এখন তাঁরা একটি হোটেলে বন্দি। আপাতত ক্ষতিপূরণের ৫ লক্ষ টাকা ও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপরে ভরসা রেখে বসে রয়েছেন তাঁরা।

তবে কলকাতা মেট্রো জানিয়েছে, তারা ফাটল ধরা বাড়ি মেরামত করে দেবে বা সেখানকার বাসিন্দাদের ফ্ল্যাটে থাকার ভাড়া দেবে যদি দীর্ঘ সময় হোটেলে থাকতে হয়।

আপাতত সুড়ঙ্গ খোঁড়ার কাজ বন্ধ। আদালতের তরফে আবার সবুজ সঙ্কেত না পাওয়া পর্যন্ত সেটা বন্ধই থাকবে। কর্তৃপক্ষের আশঙ্কা, কাজ হয়তো অন্তত এক বছরের জন্য বন্ধ থাকবে। সেক্ষেত্রে খরচের দিক দিয়েও অনেক ক্ষয়ক্ষতির সম্ভাবনা রয়েছে। আগামী শুনানি ১৬ সেপ্টেম্বর।

নগরোন্নয়ন মন্ত্রী ববি হাকিম রেলমন্ত্রী পীযূষ গোয়ালকে বিষয়টিতে হস্তক্ষেপ করার জন্য বলেছেন। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ক্ষতিগ্রস্ত বাসিন্দাদের সঙ্গে মিলে পুলিশ কমিশনার ও অন্যান্য প্রশাসনিক কর্তাব্যক্তিদের সঙ্গে একটি কোর গ্রুপ ধরে বিষয়টিতে নজর দিতে চাইছেন।

১৬.৬ কিলোমিটার এই ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো হাওড়া থেকে সেক্টর  ফাইভ পর্যন্ত চলবে।তারমধ্যে ১০.৮ কিলোমিটার পথ হবে মাটির নীচে, এবং ৫২০ মিটার হবে জলের নীচে।



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)


পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................