"অকর্মণ্য নাকি প্রশ্রয়দাতা?" দিল্লি হিংসায় পুলিশের ভূমিকায় সরব অমর্ত্য সেন

"অকর্মণ্য অথবা প্রশ্রয়দাতা!" দিল্লি হিংসার প্রেক্ষিতে পুলিশের ভূমিকার সমালোচনায় এভাবে সরব হলেন অমর্ত্য সেন।

বীরভূমের বোলপুরে আয়জিত এক অনুষ্ঠানে অমর্ত্য সেন। (ফাইল)

হাইলাইটস

  • দিল্লি পুলিশ অকর্মণ্য না প্রশ্রয়দাতা! তদন্ত করে দেখা হোক
  • দিল্লি হিংসা নিয়ে বোলপুরে সরব হলেন অমর্ত্য সেন
  • বিচারপতি মুরলিধরের বদলি নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ
বোলপুর (কলকাতা):

"হয় অকর্মণ্য অথবা প্রশ্রয়দাতা!" দিল্লি হিংসার (Delhi Violence) প্রেক্ষিতে পুলিশের ভূমিকার সমালোচনায় এভাবেই সরব হলেন অমর্ত্য সেন। শনিবার বোলপুরে (Bolpur) আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে নোবেলজয়ী এই অর্থনীতিবিদ (Amartya Sen) বলেন, "ভারত ধর্মনিরেপেক্ষ রাষ্ট্র। ধর্মের ভিত্তিতে মানুষের মধ্যে বিভেদ তৈরি করতে পারবে না।" সাংবাদিকদের তিনি বলেছেন, তদন্ত করে দেখা হোক পুলিশ (Delhi Poilce) অকর্মণ্য নাকি প্রশয়দাতা হিসেবে কাজ করেছে। তাঁর মতে, "কেন্দ্র শাসিত দিল্লিতে যা হয়েছে তা শুনে আমি উদ্বিগ্ন। সংখ্যালঘুরা অত্যাচারিত। পুলিশ যদি নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ হয়, তাহলে সেটা গভীর উদ্বেগের বিষয়। এসব শুনে ভারতীয় নাগরিক হিসেবে আমি কোনও সাহায্য করতে পারব না, কিন্তু যথেষ্ট উদ্বিগ্ন," আশঙ্কাপ্রকাশ করে সাংবাদিকদের সামনে  এ কথা বলেন অমর্ত্য সেন।

নিউজিল্যান্ড বনাম ভারত দ্বিতীয় টেস্টের দ্বিতীয় দিনের লাইভ স্কোর

তবে গোটা বিষয়ে না জেনে উপসংহার টানতে চান না তিনি। নিজের এই অবস্থানও স্পষ্ট করেছেন অমর্ত্য সেন। দিল্লি হাইকোর্টের বিচারপতি এস মুরলিধরের বদলি প্রসঙ্গে অমর্ত্য সেন বলেছেন, "আমি ব্যক্তিগত ভাবে ওকে চিনি। তাই এই বদলি নিয়ে প্রশ্ন উঠবেই। তবে আমি কোনও মন্তব্য করতে পারব না।" এদিকে, ভারত-বিরোধী অবস্থানের অভিযোগে বিশ্বভারতীর এক বাংলাদেশি পড়ুয়াকে দেশ ছাড়তে বলা হয়েছে। সেই সিদ্ধান্তের পিছনে কোনও যুক্তি খুঁজে পাননি অমর্ত্য সেন। শনিবার তিনি বলেন, "সংবাদপত্রের খবর ছাড়া আমার কাছে কোনও হাতে-গরম রিপোর্ট নেই। তাও ওই পড়ুয়াকে দেশ ছাড়তে বলার পিছনে কোনও অকাট্য যুক্তি খুঁজে পাচ্ছি না।" 

‘‘ধন্যবাদ, দ্রুত বিচার চাই'': দেশদ্রোহিতা মামলা নিয়ে NDTV-কে কা‌নহাইয়া কুমার

Newsbeep

বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ে চলা সরকার-বিরোধী আন্দোলনের সক্রিয় সদস্য ছিলেন আফসারা আনিকা মীম। সেই বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতকস্তরের পড়ুয়া এই ছাত্রী। তাঁর এহেন অবস্থানের জন্য দেশ ছাড়ার নির্দেশ দিয়েছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক।এর আগে সিএএ নিয়ে কেন্দ্রের সরকারকে দুষেছিলেন অমর্ত্য সেন। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সরকারের নেওয়া একাধিক সিদ্ধান্তের বড় সমালোচক অমর্ত্য সেন। যার পাল্টা হিসেবে বিজেপি শিবির থেকেও উড়ে আসে আক্রমণ। 



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)