Nirbhaya Case: ফাঁসি রদে ১ সপ্তাহের মধ্যেই শেষ করতে হবে সমস্ত আইনি চেষ্টা, বলল দিল্লি আদালত

দিনের পর দিন নির্ভয়া কাণ্ডের ৪ আসামি ফাঁসি পিছিয়ে দেওয়ার জন্যে নানারকম ফিকির খুঁজছে, তার বিরুদ্ধেই কেন্দ্রের আবেদনে ওই রায় দিল Delhi High Court

Nirbhaya case: মুকেশ সিং, বিনয় কুমার, অক্ষয় সিং এবং পবন গুপ্তার ফাঁসি অনির্দিষ্টকালের জন্যে স্থগিত রাখা হয়

হাইলাইটস

  • নির্ভয়ার কাণ্ডের ৪ আসামির হাতে আর এক সপ্তাহ সময়
  • ৭ দিনের মধ্যে ফাঁসি রদে সমস্ত আইনি চেষ্টার আবেদন শেষ করতে হবে তাঁদের
  • দিল্লি আদালতের এই সময়সীমা বেঁধে দেওয়ার রায়ে স্বস্তি পেলেন নির্ভয়ার মা
নয়া দিল্লি:

যে কোনও ভাবে আইনের ফাঁক গলে বাঁচার চেষ্টা করছে নির্ভয়া কাণ্ডের (Nirbhaya Case) ৪ অপরাধী। একের পর এক আইনি আবেদন করে তাঁরা এই নিয়ে দুবার তাদের ফাঁসির সাজার দিন পিছিয়ে দিতে সফল হয়েছে। কিন্তু এভাবে আর কতদিন? প্রশ্ন নির্ভয়ার বাবা-মায়ের, প্রশ্ন দেশের অসংখ্য মানুষের, যাঁরা দিল্লি গণধর্ষণের ঘটনা প্রকাশ্যে আসার পর আসামিদের নির্মমতায় শিউরে উঠেছিলেন। ঠিক এই সময় দিল্লি আদালত (Delhi High Court) জানাল, নির্ভয়া কাণ্ডে মৃত্যুদণ্ডাদেশ প্রাপ্ত ৪ আসামি তাঁদের ফাঁসি রদের চেষ্টা করতে আর ১ সপ্তাহ সময় পাবে, তার মধ্যেই তাদের (Nirbhaya Convicts) সমস্ত আইনি প্রচেষ্টা শেষ করতে হবে। এরপরেই ওই অপরাধীদের ফাঁসি কার্যকর করা সংক্রান্ত মামলার শুনানি শুরু করবে আদালত। যেভাবে দিনের পর দিন নির্ভয়া কাণ্ডের ৪ আসামি ফাঁসি পিছিয়ে দেওয়ার জন্যে নানারকম ফিকির খুঁজছে তার বিরুদ্ধেই কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে করা আবেদনে ওই রায় দিল আদালত।

তবে কেন্দ্রের করা আরেকটি আবেদন খারিজ করে দিয়ে দিল্লি আদালত জানিয়েছে, আলাদা আলাদা ভাবে নয়, একই সঙ্গে ফাঁসি কার্যকর করা উচিত ওই ৪ আসামির। আদালত বলেছে, "দিল্লি কারাগারের বিধি অনুসারে যদি কোনও আসামির ক্ষমা প্রার্থনার আবেদনের বিষয়ে জবাব আসা বাকি থাকে, তবে অন্য দোষীদের ফাঁসি কার্যকর করা সম্ভব নয়।" আদালত আরও বলে, "যেহেতু সুপ্রিম কোর্ট ওই ৪ জনের সম্বন্ধে একই রায় দিয়ে মৃত্যুদণ্ডাদেশ দিয়েছে তাই সমস্ত দোষীদের মৃত্যুদণ্ড একইসঙ্গে কার্যকর হওয়া উচিত,পৃথকভাবে নয়"।

Nirbhaya case: বিনয় শর্মার প্রাণভিক্ষার আবেদন খারিজ করলেন রাষ্ট্রপতি

এর আগে দিল্লি গণধর্ষণকাণ্ডের এক আসামির করা আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে মুকেশ সিং, বিনয় কুমার, অক্ষয় সিং এবং পবন গুপ্তার ফাঁসি অনির্দিষ্টকালের জন্যে স্থগিত রাখে ট্রায়াল কোর্ট।

বুধবার দিল্লি হাইকোর্ট আসামিদের সামনে আইনি প্রচেষ্টার জন্যে একটি নির্দিষ্ট সময়সীমা বেঁধে দেওয়ায় কিছুটা হলেও আশার আলো দেখছেন নির্ভয়ার মা। "আমি এটা জেনে স্বস্তি পাচ্ছি যে শেষ পর্যন্ত হাইকোর্ট আইনি আবেদন করার জন্য অপরাধীদের সামনে একটি নির্দিষ্ট সময়সীমা নির্ধারণ করেছে। দোষীরা ইচ্ছাকৃতভাবেই দেরি করছিল. এই রায়ের ফলে এবার এক সপ্তাহের মধ্যেই তাদের সব চেষ্টা করতে হবে", সাংবাদিকদের সামনে উপস্থিত হয়ে বলেন আশা দেবী।

Nirbhaya Case: রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষার আর্জি জানাল অক্ষয় ঠাকুর

২০১২ সালে দিল্লিতে ২৩ বছরের প্যারামেডিক্যালের ছাত্রীকে গণধর্ষণ করে খুনের ঘটনায় ১ ফেব্রুয়ারি ফাঁসি কার্যকর হওয়ার কথা ছিল বিনয় শর্মা, পবন গুপ্তা, মুকেশ সিং, এবং অক্ষয় সিংয়ের। তবে তাদের মধ্যে বিনয় শর্মা রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষার আর্জি জানানোয় ফাঁসি কার্যকর করা যায়নি। সেই আবেদন খারিজ হয়ে যাওয়ায় প্রাণভিক্ষার আর্জি জানায় আরেক সাজাপ্রাপ্ত অক্ষয় সিং। সেই সময় দিল্লির পাতিয়ালা আদালত জানায়, পরবর্তী নির্দেশ না আসা পর্যন্ত তাদের ফাঁসি কার্যকর করা যাবে না। প্রাণভিক্ষার আর্জি খারিজ হয়ে যাওয়ার ১৪ দিনের আগে সাজাপ্রাপ্তের ফাঁসি কার্যকর করা যায় না। এর আগে গত ২২ জানুয়ারি ওই ৪ আসামির ফাঁসির দিন ধার্য হলেও সেই সময়েও তা স্থগিত করে দিতে হয় মামলার অন্যতম আসামি মুকেশ সিংয়ের প্রাণভিক্ষার আবেদনের কারণে।

২০১২ এর ১৬ ডিসেম্বর, দিল্লিতে প্যারামেডিক্যালের এক ছাত্রীকে গণধর্ষণ এবং অকথ্য অত্যাচার করা হয় চলন্ত বাসে, পরে তাঁকে সেখান থেকে ছুঁড়ে রাস্তায় ফেলে দেওয়া হয়, সেই সময় তিনি নগ্ন এবং রক্তাক্ত ছিলেন। ২৯ ডিসেম্বর নির্ভয়ার মৃত্যুর পর দেশজুড়ে প্রতিবাদের ঢেউ আছড়ে পড়ে।

Listen to the latest songs, only on JioSaavn.com