This Article is From Jan 29, 2020

Delhi Elections: "ভুল বোঝাবুঝি" মিটে গিয়েছে, নির্বাচনে বিজেপিকে সমর্থন করবে অকালি দল

প্রায় একসপ্তাহের 'ভুল বোঝাবুঝি' মিটিয়ে ফের কাছাকছি এল বিজেপি (BJP) আর অকালি দল। দিল্লির নির্বাচনে এনডিএ শরিক হিসেবে ওই দল বিজেপিকে সমর্থন করবে। অকালি দল সূত্রে এমনটাই খবর।

Delhi Elections:

সুখবীর সিং বাদল বলেছেন, তাঁর দলের সঙ্গে বিজেপির সমঝোতা রাজনৈতিক বোঝাপড়ার ঊর্ধ্বে।

হাইলাইটস

  • "ভুল বোঝাবুঝি মিটে গিয়েছে", অকালি দল দিল্লিতে বিজেপিকে সমর্থন করবে
  • এদিন সাংবাদিক বৈঠক করে বলেছেন জেপি নাড্ডা আর সুখবীর সিং বাদল
  • সিএএ'তে অকালি দলের সমর্থন রয়েছে, এদিন জানিয়েছেন বাদল
নয়াদিল্লি:

প্রায় একসপ্তাহের 'ভুল বোঝাবুঝি' মিটিয়ে ফের কাছাকছি এল বিজেপি (BJP) আর অকালি দল। দিল্লির নির্বাচনে (Delhi polls) এনডিএ শরিক হিসেবে ওই দল (Akali Dal) বিজেপিকে সমর্থন করবে। অকালি দল সূত্রে এমনটাই খবর। বুধবার শিরোমণি অকালি দলের প্রধান সুখবীর সিং বাদল বলেছেন, আমার দলের সঙ্গে বিজেপির সমঝোতা শুধু রাজনৈতিক নয়। রাজনৈতিক সমঝোতার ঊর্ধ্বে আমাদের ভাবনা এক। দেশ ও পঞ্জাবের উন্নয়নে আমাদের নীতি এক। আমরা শান্তির পক্ষে। আমাদের মধ্যে কিছু ভুল বোঝাবুঝি ছিল, সেটা মিটে গেছে।" এদিন সুখবীর সিং বাদল এবং বিজেপি সভাপতি জেপি  নাড্ডা একটা সাংবাদিক বৈঠকও করেন। সেই বৈঠকে বিজেপির সভাপতি বলেন, "বিজেপি আর অকালি দলের জোট খুব পুরনো এবং মজবুত।  দিল্লির নির্বাচনে বিজেপিকে সমর্থন করার জন্য অকালি দলকে আমি ধন্যবাদ জানাচ্ছি।"  

‘ধন্যবাদ নীতীশ কুমার। শুভাকাঙ্ক্ষা রইল'': বহিষ্কৃত হয়ে প্রশান্ত কিশোর

২০ জানুয়ারি অকালি দল ইঙ্গিত দিয়েছিল, তারা বিজেপির সঙ্গে জোট গড়ে দিল্লি নির্বাচন লড়বে না। আসন সমঝোতা ঘিরে তৈরি হয়েছিল মতবিরোধ। এমনকি, সিএএ'র বর্তমান খসড়ায় তাদের আপত্তি আছে। বড় শরিক বিজেপির কাছে অনুযোগ করেছিল তারা। দলীয় সূত্রে খবর, শিরোমণি অকালি দলের নীতি স্পষ্ট।

"স্বতঃস্ফূর্ত নয়": কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিক্ষোভে রাজনৈতিক ষড়যন্ত্রের গন্ধ পাচ্ছেন রাজ্যপাল

মুসলিম উদ্বাস্তুদের সিএএ'র আওতার বাইরে রাখা চলবে না। যদিও এদিন খানিকটা উলটো মত শোনা গিয়েছে বাদলের কণ্ঠে। তিনি বুধবার বলেছেন, "আমরা বিজেপির সঙ্গে জোট কখনও ভাঙিনি। আমরা একা লড়বো কিনা, সেই পথ বিবেচনা করছিলাম। সিএএ-তে আমাদের সমর্থন আছে। এমনকি আমার দলের প্রতিনিধিরা রাজনাথ সিং ও অমিত শাহের কাছে গিয়েছিলেন। পাকিস্তান আর আফগানিস্তানের সংখ্যালঘু শিখদের নাগরিকত্ব দিতে তারা দরবার করে এসেছেন। ওরাও ধর্মীয় অসহিষ্ণুতার কারণে ভিটে-মাটি ছাড়া।"

আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি দিল্লিতে বিধানসভা নির্বাচন। ভোট গণনা আগামী ১১ ফেব্রুয়ারি। দিল্লির একটা অংশে শিখ ভোটারদের আধিক্য। সেই ভোট অকালি দলের মাধ্যমে নিজেদের বাক্সে পুরতে মরিয়া গেরুয়া শিবির। তাই এই সমঝোতা বলে দাবি বিশ্লেষকদের।

 (সংবাদ সংস্থা থেকে সংগৃহীত)