মুখোশ পরা ডাকাতদলের তাণ্ডব ভাগলপুরগামী চলন্ত ট্রেনে, অধরা দুষ্কৃতীরা

ট্রেনের এ1 (দ্বিতীয় এসি), বি 2, বি 3 (তৃতীয় এসি) এবং এস9 (স্লিপার) কোচে এই লুঠপাটের ঘটনা চলে। ডাকাতির সময় বাধা দিতে গিয়ে কিছু যাত্রী আহতও হয়েছেন।

মুখোশ পরা ডাকাতদলের তাণ্ডব ভাগলপুরগামী চলন্ত ট্রেনে, অধরা দুষ্কৃতীরা

বিহারে চলন্ত ট্রেনে ১২ থেকে ১৫ জনের ডাকাতদল তাণ্ডব চালায়

पटना:

মুখোশ পরে চলন্ত ট্রেনে তাণ্ডব চালাল প্রায় ১২ জন ডাকাতের একটি দল। বিহারে সাম্প্রতিককালে ট্রেন ডাকাতির এমন বড় ঘটনা নজিরবিহীন। মুখোশ ঢাকা অবস্থায় এবং হাতে বন্দুক নিয়ে বারো পনেরো জনের ওই ডাকাত দল ট্রেনযাত্রীদের লুঠ করে। বিহারের কিউল এবং জামালপুর স্টেশনের মাঝামাঝি স্টেশন ধনৌরিতে (লক্ষ্মীসরায়) চলন্ত ট্রেনে আচমকা উঠে পড়ে ওই ডাকাত দল। তারপর কয়েক ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে ট্রেন সেখানে থামিয়ে যাত্রীদের লুঠ করে ডাকাতেরা। যাত্রীদের থেকে মূল্যবান জিনিসপত্র ও নগদ টাকা ছিনতাই করা হয়। মহিলাদের নিশানা করে ওই মুখোশধারী ডাকাতদল।

শেল গ্যাস উৎপাদনে রাজ্যে বিনিয়োগ হতে পারে ৫০,০০০ কোটি টাকা, বললেন অমিত মিত্র

বুধবার রাতে ধনৌরি স্টেশনের কাছে নয়া দিল্লি থেকে ভাগলপুরগামী ট্রেন নম্বর ১২৩৫০তে রাত প্রায় সাড়ে ন'টা নাগাদ ওই ডাকাতদল চড়াও হয়। দীর্ঘ সময় দাঁড়িয়ে থাকে ট্রেন। সূত্রের খবর ১২ থেকে ১৫ জন দুষ্কৃতী উঠেছিল ওই ট্রেনে। মুখোশধারীরা তিনটি এসি এবং একটি স্লিপার কোচকে লক্ষ্য করে এগিয়ে যায় এবং চারটি কোচে লুঠপাট চালায়।

ট্রেনের এ1 (দ্বিতীয় এসি), বি 2, বি 3 (তৃতীয় এসি) এবং এস9 (স্লিপার) কোচে এই লুঠপাটের ঘটনা চলে। ডাকাতির সময় বাধা দিতে গিয়ে কিছু যাত্রী আহতও হয়েছেন। প্রায় ২00 জনেরও বেশি যাত্রীকে লুঠ করেছে ডাকাতদল। মোবাইল, ল্যাপটপ, গয়না এবং নগদ টাকাই মূলত ছিনতাই করেছে ডাকাতরা। জামালপুরে এই ডাকাতির এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। এখনও পর্যন্ত কাউকেই গ্রেফতার করা যায়নি। ট্রেনের লুঠপাটের ঘটনার পরে জামালপুর থেকে ট্রেন রাত ১১.৪৮ নাগাদ ভাগলপুরের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করে।

Newsbeep

আহমেদাবাদে তৈরি হচ্ছে বিশ্বের বৃহত্তম ক্রিকেট স্টেডিয়াম

ভিডিও: ট্রেন ডাকাতের একটি দলকে দিল্লি পুলিশ গ্রেফতার করেছে