This Article is From Feb 09, 2020

ভোটযন্ত্রে কারচুপি হয়েছে, অভিযোগ করে ভিডিও প্রকাশ করল আপ

২০১৭ নির্বাচনের পর থেকেই ইভিএম কারচুপির অভিযোগে সরব আম আদমি পার্টি, সেবার উত্তরপ্রদেশে ব্যাপক জয় পেয়েছিল বিজেপি

Delhi Election 2020: সঞ্জয় সিং এর অভিযোগ, ভোটের পর বেআইনিভাবে ভোটযন্ত্র নিয়ে যাওয়া হয়

নয়াদিল্লি:

দিল্লি বিধানসভা নির্বাচনে ইভিএম বা ভোটযন্ত্রে (Electronic Voting Machines) কারচুপি করার চেষ্টা করা হয়েছে বলে অভিযোগ করল রাজধানীর শাসকদল আম আদমি পার্টি (Aam Aadmi Party), একইসঙ্গে তাদের অভিযোগের সমর্থনে ভিডিও প্রকাশ করল তারা।  শনিবারই এমন দাবি করেছিলেন আপের শীর্ষ নেতা তথা রাজ্যসভার সাংসদ সঞ্জয় সিং (Sanjay Singh), ট্যুইটে দুটি ভিডিও পোস্ট করে অভিযোগ করলেন, অবৈধভাবে ভোটযন্ত্র নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তারমধ্যে একটি ভিডিওতে তিনি লেখেন, “ইভিএমের সঙ্গে কি বাহিনী যায় না? বদরপুর বিধানসভা কেন্দ্রের সরস্বতী বিদ্যা নিকেতন স্কুলে ইভিএমের সঙ্গে ধরা পড়েছেন তাঁরা”।

আরেকটি ট্যুইটের ভিডিওতে দেখা গিয়েছে, রাস্তা দিয়ে ভোটযন্ত্র নিয়ে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে, সেখানে লেখা “নির্বাচন কমিশনকে তদন্ত করে দেখতে হবে, ভোটযন্ত্রগুলি কোথায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। কাছাকাছি কোথাও গণনা কেন্দ্র নেই”।

তবে নির্বাচন কমিশনের আধিকারিকরা জানিয়েছেন, রাজনৈতিক দলের এজেন্টদের সামনেই ভোটের কাজে ব্যবহার করা সমস্ত ভোটযন্ত্র সিল করা হয়েছে এবং ভোটকেন্দ্র থেকে সরাসরি স্ট্রং রুমে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

কমিশনের এক আধিকারিক NDTV কে জানান, “ভোটের কাজে ব্যবহার করা সমস্ত ভোটযন্ত্র দায়িত্ব সহকারে রাখা হয়েছে। গণনা কেন্দ্রগুলিতে পুলিশি নিরাপত্তায় ইভিএমগুলি রাখা হয়েছে এবং বাইরে থাকতে চাইলে তাঁদেরও থাকার অনুমতি দেওয়া হয়েছে”।

এক্জিট পোল ইঙ্গিত দিয়েছে, দিল্লি বিধানসভা নির্বাচনে সহজ পাবে আম আদমি পার্টি।

Delhi Election 2020: বিয়ের আগে ভোটের লাইনে বর, সঙ্গে বরযাত্রীরাও

তবে শনিবার ভোটগ্রহণ শেষ হতেই, ইভিএম নিয়ে সরব আপ। পরে সন্ধ্যায়, দলের তরফে দাবি করা হয়, তাদের কাছে খবর এসেছে যে, “বেআইনিভাবে” ইভিএম নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেছেন আধিকারিকরা।

আপের রাজ্যসভার সাংসদ সঞ্জয় সিং সংবাদসংস্থা এএনআইকে বলেন, “খবর পাওয়া গিয়েছে যে, বেআইনিভাবে বিভিন্ন জায়গা থেকে ইভিএম নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেছেন আধিকারিকরা। ইভিএম সিল করা উচিত এবং সরাসরি সেগুলিকে স্ট্রং রুমে নিয়ে যাওয়া উচিত। কেন ভোটযন্ত্রগুলি আধিকারিকদের হাতে গেল”?

পরে, সন্ধ্যায়, উপমুখ্যমন্ত্রী মনীশ সিসোদিয়া এবং ভোটকৌশলী প্রশান্ত কিশোরের সঙ্গে বৈঠক করেন মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল, ইভিএমগুলির নিরাপত্তা নিয়ে আলোচনা হয় সেই বৈঠকে।

মঙ্গলবার দিল্লি বিধানসভার ফলাফল ঘোষণা।

Delhi Election 2020: আপ কর্মীকে কষিয়ে থাপ্পড় মারতে গেলেন অলকা লাম্বা, আপ-কংগ্রেস খণ্ডযুদ্ধ

২০১৭ নির্বাচনের পর থেকেই ইভিএম কারচুপির অভিযোগে সরব আম আদমি পার্টি, সেবার উত্তরপ্রদেশে ব্যাপক জয় পেয়েছিল বিজেপি। নির্বাচন কমিশনের তরফে সেই অভিযোগ উড়িয়ে দেওয়ার পরেও তা চলতে থাকে, এবং বিরোধীদের ইভিএম হ্যাক করার চ্যালেঞ্জ জানানো হয়। যদিও সেই চ্যালেঞ্জ নেয়নি আপ।

শনিবার দল ৪৮টি আসন পেয়ে জিতবে বলে দাবি করেন বিজেপি নেতা মনোজ তিওয়ারি, পাশাপাশি তিনি বলেন, অন্য দলগুলি যেন ইভিএম কারচুপির অভিযোগ না তোলে। ট্যুইটে তিনি লেখেন, “এই সমস্ত এক্জিট পোল ব্যর্থ হবে। এই ট্যুইট সেভ করে রাখুন। ৪৮টি আসন পেয়ে দিল্লিতে সরকার গড়বে বিজেপি। ইভিএম কে দোষ দেওয়া বা কোনও অজুহাত খুঁজবেন না”।