পারিবারিক অশান্তির জের, মায়ের গলা কেটে খুন করল মেয়ে-জামাই 

পুলিশ তাঁর ফ্ল্যাটে পৌঁছে দেখে ফ্ল্যাটটি তালাবন্ধ হয়ে পড়ে আছে। এবং সেখানে তাঁর পরিবারের সদস্যদের কোনও খোঁজ পাওয়া যায়নি।

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS
পারিবারিক অশান্তির জের, মায়ের গলা কেটে খুন করল মেয়ে-জামাই 

মহিলার গলাকাটা দেহ উদ্ধার করে স্থানীয় প্রশাসন (প্রতীকী ছবি)


কলকাতা: 

রবিবার কলকাতার (Kolkata) বাসুদবপুর রোডের এক গলিতে মহিলার গলাকাটা দেহ (woman's murder) উদ্ধার করল স্থানীয় প্রশাসন। ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ গ্রেফতার করেছে মৃত শম্পা চক্রবর্তীর মেয়ে-জামাইকে। খবর, জেরার মুখে মৃতার মেয়ে স্বীকার করেছে সে এবং তার স্বামী এই খুনের সঙ্গে জড়িত (Daughter, son-in-law)।

তৃণমূল কাউন্সিলরকে গুলি করে খুন কুলটিতে

প্রাথমিক তদন্তের রিপোর্ট, বছর ৪৭-এর মৃত শম্পা ওই গলিরই একটি অ্যাপার্টমেন্টের বাসিন্দা ছিলেন। পুলিশ তাঁর ফ্ল্যাটে পৌঁছে দেখে, ফ্ল্যাটটি তালাবন্ধ হয়ে পড়ে আছে। এবং সেখানে তাঁর পরিবারের সদস্যদের কোনও খোঁজ মেলেনি।

প্রশাসনের কথায়, "আমরা দরজা ভেঙে কিছু জিনিস উদ্ধার করেছি। সম্ভবত শম্পা দেবীকে খুন করার সময় অপরাধীরা এগুলোকেই অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করেছিল। এছাড়াও, দেহটি বেঁধে রাখার জন্য ব্যবহৃত জিনিসও সম্ভবত ফ্ল্যাট থেকেই নেওয়া হয়েছিল।" খুনের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ইতিমধ্যেই তিনজনকে আটক করা হয়েছে। প্রতিবেশিদের দাবি, শনিবার রাতে পরিবারে মারাত্মক অশান্তি হয়েছিল। রবিবারেই ঘটে এই অঘটন।

ধর্ষণের ফলে গর্ভবতী সপ্তম শ্রেণির ছাত্রী, পলাতক অভিযুক্ত শিক্ষক

প্রত্যক্ষদর্শীর বিবরণ অনুযায়ী, অশান্তি পর শনিবার রাতেই শম্পা দেবীর মেয়ে-জামাইকে ভারী কিছু বয়ে নিয়ে যেতে দেখেছিলেন তিনি। ভালো ভাবে বুঝতে না পারায় ‘ডাকাত' সন্দেহে তিনি অ্যাপার্টমেন্টের গ্যারেজের কাছে তাদের যাতাযাতের একটি ভিডিওও তৈরি করেছিলেন। পুলিশ এই ভিডিওটিকে প্রমাণের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ হিসাবে বিবেচনা করছে।



পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................