ধ্বংসের দিন-ই পৃথিবীর আলো দেখল ‘ঝড়ের সন্তান’!

Baby Fani: ভুবনেশ্বরের  রেল হাসপাতলে বছর তিরিশের এক মহিলা ওই সন্তানের জন্ম দেন।

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS
ধ্বংসের দিন-ই পৃথিবীর আলো দেখল ‘ঝড়ের সন্তান’!

এর আগেও ঘূর্ণিঝড়ের সময় জন্ম নেওয়া শিশুদের নাম ঝড়ের নামেই দেওয়া হয়েছে।


ভুবনেশ্বর: 

হাইলাইটস

  1. বছর তিরিশের এক মহিলা ওই সন্তানের জন্ম দেন
  2. কন্যা সন্তানের নাম ঝড়ের নাম ই দেওয়া হয়েছ
  3. হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে মা এবং সন্তান দুজনই সুস্থ আছেন

জন্ম হয়েছে একটি কন্যাসন্তানের। ভুবনেশ্বরের  রেল হাসপাতলে বছর তিরিশের এক মহিলা ওই সন্তানের জন্ম দেন। সংবাদ সংস্থা এএনআই জানিয়েছে ওই কন্যা সন্তানের নাম ঝড়ের নাম ই দেওয়া হয়েছে।  তিনি স্থানীয় রেলের ওয়ার্কসপে এ কাজ করেন। সন্তানের জন্ম দেওয়ার পর কোনও জটিলতা সৃষ্টি হয়নি। মা এবং সন্তান দুজনই সুস্থ আছেন। এর আগেও ঘূর্ণিঝড়ের সময় জন্ম নেওয়া শিশুদের নাম ঝড়ের নামেই দেওয়া হয়েছে। গত বছর পুজোর সময় এই ওড়িশাতেই আছড়ে পড়ে ঘূর্ণিঝড় তিতলি।  সে সময় অনেকে অভিভাবকই নিজেদের মেয়ের নাম রেখেছিলেন তিতলি। ২০১৬ সালে বিহারে ভয়াবহ বন্যা হয়। সে সময়ও দেখা গিয়েছে অনেক পরিবারই নিজেদের মেয়ের নাম রেখেছিল গঙ্গা।

"হাওয়ায় উড়ছে সবকিছু", 'ফণী' নিয়ে টুইট করলেন সম্বিত পাত্র

8rmsh98

 ওড়িশার উপকূলে শুক্রবার সকালে আছড়ে পড়ে ঘূর্ণিঝড় ফণী।

দুপুরে আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, এখন ঘূর্ণিঝড়ের অবস্থান দিঘা থেকে ২২৭ কিলোমিটার এবং কলকাতা থেকে ৩৭০ কিলোমিটার দূরে। আর তাই আবহাওয়া দযফতরের কর্তারা মনে  করছেন রাজ্যে ঢুকে পড়বে এই ভয়াবহ ঘূর্ণিঝড়। এখন সেটির শক্তি কমেছে কিছুটা। ঘূর্ণিঝড়টি এখন সিভিয়র সাইক্লোনে পরিণত হয়েছে। রাজ্যে প্রবেশ করার পর মেদিনীপুর হয়ে সেটি ধীরে ধীরে বাংলাদেশের দিকে এগোতে থাকবে বলে মনে করা হচ্ছে। বিকেলের  দিকে প্রবেশ করলেও ফণীর দাপট বেশি রাতের দিকে পড়তে চলেছে। রাতের দিকে বা কাল ভোরের দিকে তা আরও বাড়তে পারে।   

ইতিমধ্যেই রাজ্য প্রশাসনের তরফে সমস্ত রকম ব্যবস্থা নিয়ে রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি নিজে সমস্ত নির্বাচনী জনসভা বাতিল করেছেন। তৃণমূলও রাজনৈতিক কর্মসূচি বন্ধ রেখেছে। মমতা বলেন, ‘ আমি গোটা পরিস্থিতির উপর নজর রাখছি। আমাদের দলের সমস্ত রাজনৈতিক কর্মসূচি বাতিল  করে দেওয়া হয়েছে। আগামী ৪৮ ঘণ্টা কোনও রাজনৈতিক  কর্মসূচি আমরা পালন করব না। কলকাতার মহানাগরিক ফিরহাদ হাকিমকেও  বলেছি  অন্য কাজ না করে এই সময় বিপর্যয় মোকাবিলা দপ্তরের সঙ্গে  সমন্বয় রাখতে। সবাইকে বলব সতর্ক থাকুন। অযথা গুজব ছড়াবেন না। আমাদের প্রশাসন সমস্ত রকম পরিস্থিতির জন্য তৈরি আছে।'
                                                                    

 



পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................