This Article is From Apr 16, 2020

তবলিঘি জামাত নেতা মৌলানা সাদের বিরুদ্ধে আর্থিক তছরুপের অভিযোগ দায়ের

মৌলানা সাদ কান্ধালভির বিরুদ্ধে পুলিশ প্রাথমিকভাবে বড় জমায়েতের অভিযোগ দায়ের করে

তবলিঘি জামাত নেতা মৌলানা সাদের বিরুদ্ধে আর্থিক তছরুপের অভিযোগ দায়ের

এর আগে মৌলানা সাদের বিরুদ্ধে বড় জমায়েতের করার অভিযোগ দায়ের করা হয়

নয়াদিল্লি:

দিল্লির নিজামুদ্দিনে তবলিঘি জামাতের (Tablighi Jamaat) জমায়েতের কারণে ভারতে করোনা ভাইরাসের ছড়িয়ে পড়ার কারণ হিসেবে তুলে ধরা হয়েছে, সংগঠনের প্রধান মৌলানা সাদের (Maulana Saad) বিরুদ্ধে আর্থিক তছরুপের অভিযোগ দায়ের করল এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (Enforcement Directorate) । এর আগে বৃহস্পতিবার তবলিঘি জামাতের প্রধানের বিরুদ্ধে খুনের কারণ নয়, এমন হত্যার অভিযোগ আনে, গতমাসে দিল্লির নিজামুদ্দিনে “মার্কাজে” জমায়েতের কারণ, এই অভিযোগ দায়ের করা হয়। দিল্লি পুলিশের অভিযোগের ভিত্তিতে মৌলানা সাদ ও তাঁর ট্রাস্টের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট। তবলিঘি জামাতের মার্কাজ ইতিমধ্যেই সিল করে দেওয়া হয়েছে, সংগঠনের সদস্য হিসেবে এসেছিলেন ইন্দোনশিয়া, মালয়েশিয়া, এবং বাংলাদেশের সদস্যরা, মার্চে তাঁদের জমায়েতের খবর পাওয়ার পরেই কোয়ারান্টাইন করা হয়।

মৌলানা সাদ কান্ধালভির বিরুদ্ধে পুলিশ প্রাথমিকভাবে বড় জমায়েতের অভিযোগ দায়ের করে।  কোয়ারান্টাইন শেষ হলে সোমবার তাঁর তদন্তে যোগ দেওয়ার কথা ছিল।

এক আধিকারিক জানান, “তবলিঘি জামাতের প্রধানের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করে দিল্লি পুলিশ, এবার তার সঙ্গে ৩০৪ ধারা যোগ করা হল”, এই ধারা যোগ করার ফলে তাঁর ১০ বছরের কারাদণ্ড হতে পারে।

তবলিঘি জামাতের এক মুখপাত্র মুজিব-উর-রহমান, নতুন ধরা যোগ করার সম্পর্কে কিছুই জানেন না বলে মন্তব্য করেছেন।

তবলিঘি জামাত বিশ্বের সুন্নি মুসলিম সংগঠনগুলির মধ্যে অন্যতম, বিশ্বের প্রায় ৮০টিরও বেশি দেশে তাদের অনুগামী রয়েছেন।

কর্তৃপক্ষের তরফে জানান হয়েছে, মাসের শুরুতে, ৩,০০০ করোনা ভাইরাস আক্রান্তের এক তৃতীয়াংশ তবিলঘি জামাতের জমায়েতে হাজির হয়েছিলেন, অথবা তাঁদের সংস্পর্শে এসেছিলেন।

ভারতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১২০০০ ছাড়িয়েছে, বৃহস্পতিবার পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা  ৪০০ জন।