This Article is From Jul 07, 2020

রাজ্যের প্রথম প্লাজমা ব্যাঙ্কের উদ্বোধন করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

Plasma Bank: "রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতর কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ইমিউনোহেমাটোলজি বিভাগে একটি প্লাজমা ব্যাঙ্ক তৈরি করেছে", বলেন মুখ্যমন্ত্রী

রাজ্যের প্রথম প্লাজমা ব্যাঙ্কের উদ্বোধন করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

Mamata Banerjee: বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে সংক্রামক রোগের চিকিৎসার সহায়তায় উৎকর্ষ কেন্দ্র গড়বে রাজ্য সরকার

হাইলাইটস

  • কলকাতার মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে তৈরি করা হয়েছে প্লাজমা ব্যাঙ্ক
  • সোমবার নবান্ন থেকে এই ব্যাঙ্কের উদ্বোধন করলেন মুখ্যমন্ত্রী
  • দেশের মধ্যে দ্বিতীয় প্লাজমা ব্যাঙ্ক এটি
কলকাতা:

করোনা ভাইরাসে (Coronavirus) আক্রান্ত রোগীদের সহায়তায় কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে উদ্বোধন হল রাজ্যের (West Bengal) প্রথম প্লাজমা ব্যাঙ্ক। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সোমবার নবান্ন সভাঘর থেকে এই ব্যাঙ্কের (Plasma Bank) উদ্বোধন করলেন। মুখ্যমন্ত্রী (Mamata Banerjee) জানিয়েছেন, এখনও পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত হয়েও পরে সুস্থ হয়ে ওঠা রোগীদের মধ্যে ১২ জন অন্য করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসার জন্য নিজেদের প্লাজমা এই ব্যাঙ্কে অনুদান দিয়েছে। "রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতর কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের ইমিউনোহেমাটোলজি বিভাগে (Kolkata Medical College and Hospital's Immunohematology) একটি প্লাজমা ব্যাঙ্ক তৈরি করেছে", সচিবালয়ে আয়োজিত একটি সাংবাদিক সম্মেলনে একথা জানান মমতা। এই প্লাজমা ব্যাঙ্কটি রাজ্যের মধ্যে প্রথম এবং দেশের মধ্যে দ্বিতীয়। সম্প্রতি দিল্লির লিভার অ্যান্ড বিলিয়ারি সায়েন্সেস ইনস্টিটিউট (আইএলবিএস) -এও একটি প্লাজমা ব্যাঙ্ক প্রতিষ্ঠা করা হয়।

পয়ষট্টি হলেই পোস্টাল ব্যালট! বিধি বিলোপের আর্জি তৃণমূল কংগ্রেসের

এরই মধ্যে দেশের কিছু হাসপাতালে কোভিড -১৯ রোগীদের প্লাজমা থেরাপি দেওয়া শুরু হয়েছে। প্লাজমা থেরাপি হল যেসব মানুষ করোনা আক্রান্ত হওয়ার পরে সুস্থ হয়ে উঠেছেন তাঁদের রক্তে যে অ্যান্টিবডি তৈরী হয়, তা দিয়েই অন্য করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসা।

মাস্ক পরুন! বায়ু মাধ্যমে ছড়াচ্ছে করোনা, হু-কে সাবধান করল দুই শতাধিক গবেষক

প্লাজমা সংগ্রহের জন্য কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালই রাজ্যের নোডাল কেন্দ্র হবে। রাজ্যে যে ১২ জন ব্যক্তি প্লাজমা দান করেছেন তাদের মধ্যে আছেন করোনা থেকে সুস্থ হয়ে ওঠা চিকিৎসক, পুলিশ এবং ছাত্র।

পাশাপাশি বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে সংক্রামক রোগের চিকিৎসার সহায়তায় উৎকর্ষ কেন্দ্র গড়বে রাজ্য সরকার এমন ঘোষণাও করেন মুখ্যমন্ত্রী।

সারা দেশের মতো এরাজ্যেও পাল্লা দিয়ে বাড়ছে কোভিড- ১৯ আক্রান্তের সংখ্যা। গত ২৪ ঘণ্টায় বাংলায় করোনা আক্রান্ত হয়েছে ৮৬১ জন। এখনও পর্যন্ত রাজ্যে মোট আক্রান্ত ২২,৯৮৭ জন। তবে সক্রিয় করোনা রোগীর সংখ্যা ৬,৭৯৩ জন। সোমবার নতুন করে যে ২২জন মারা গেছেন তাঁরা সকলেই কোমর্বিডিটির কারণে মারা গেছেন বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য দফতর। সব মিলিয়ে এপর্যন্ত রাজ্যে মোট ৭৭৯ জন করোনা রোগী মারা গেছে। সোমবার সম্পূর্ণ সুস্থ বলে ঘোষণা করা হয়েছে ৫২৪ জনকে। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে মোট ১০, ৯১৯ জনের করোনা পরীক্ষা করা হয়েছে।