সামাজিক দূরত্ব বজায়ের বিধিকে লবডঙ্কা দেখিয়ে বিয়ে সারলেন দেবেগৌড়ার নাতি

Coronavirus Lockdown: করোনা পরিস্থিতিতে গোটা দেশে লকডাউন চলছে, কিন্তু সেই বিধিনিষেধ উপেক্ষা করেই নিজের ছেলের বিয়ে দিলেন এইচ ডি কুমারাস্বামী

সামাজিক দূরত্ব বজায়ের বিধিকে লবডঙ্কা দেখিয়ে বিয়ে সারলেন দেবেগৌড়ার নাতি

Coronavirus India Lockdown: গত বছরই রাজনীতি পা দিয়েই নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন কুমারাস্বামীর ছেলে নিখিল

হাইলাইটস

  • লকডাউনের নিয়ম উপেক্ষা করেই বিয়ে করলেন দেবেগৌড়ার নাতি
  • কর্নাটকের প্রবীণ কংগ্রেস নেতা এম কৃষ্ণাপ্পার নাতনি রেবতীকে বিয়ে করেন তিনি
  • এই বিয়ে নিয়ে রাজনৈতিক বিতর্ক তুঙ্গে
বেঙ্গালুরু:

দেশে জারি হওয়া লকডাউন (Coronavirus Lockdown) পরিস্থিতির মধ্যে বহু মানুষকে বাধ্য হয়ে সমস্ত সামাজিক অনুষ্ঠান পিছিয়ে দিতে হচ্ছে, অনেকেরই এই সময়ে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হওয়ার কথা থাকলেও আপাতত অনির্দিষ্টকালের জন্যে সেই শুভ অনুষ্ঠান পিছিয়ে দিতে বাধ্য হয়েছেন। কিন্তু সাধারণে যে বিধিনিষেধ মেনে চলেন তা মানতে কি বাধ্য নাকি রাঘব বোয়ালরা। তাই করোনা সংক্রমণ এড়াতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখুন, কেন্দ্রের এই বার্তাকে লবডঙ্কা দেখিয়ে জাঁকজমক করে বিয়ে সারলেন কর্নাটকের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর ছেলে (HD Kumaraswamy's Son Wedding)। আজ্ঞে হ্যাঁ, এই লকডাউনের মধ্যেই দেশের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী এইচডি দেবেগৌড়ার (HD Deve Gowda) নাতি নিখিল কুমারাস্বামী বেঙ্গালুরু থেকে প্রায় ২৮ কিলোমিটার দূরের একটি ফার্মহাউসে বিয়ে করলেন কর্নাটকের প্রবীণ কংগ্রেস নেতা এম কৃষ্ণাপ্পার নাতনি রেবতীকে। আর সেই ছবি প্রকাশ্যে আসার পর তা দেখে থ গোটা ভারত।

লকডাউনের মধ্যেই ২০ এপ্রিলের পর আরও কোন কোন বিষয়ে মিলবে ছাড় জেনে নিন

যদিও এই ঘটনা নিয়ে বিতর্ক ও চুলচেরা বিশ্লেষণ শুরুর আগেই শুক্রবার সাফাই গেয়ে রেখেছেন দুই রাজনৈতিক পরিবারের সদস্যরাই। ওই বিয়ের অনুষ্ঠানে কোনও অতিথি সমাগম ছিল না বলেই দাবি করেছেন বরের বাবা অর্থাৎ কর্নাটকের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী এইচডি কুমারস্বামী। শুধুমাত্র দুই পরিবারের কিছু আত্মীয়স্বজন হাজির ছিলেন কুমারাস্বামীর রামনগরের ফার্মহাউসে, এমনটাই দাবি তাঁদের। কিন্তু আপনারাই বলুন, সেটাও কি থাকার কথা? সমাজের একজন দায়িত্বশীল নাগরিক হিসেবে কীভাবে এই করোনা পরিস্থিতিতে নিজের ছেলের বিয়ের আয়োজন করলেন কুমারাস্বামী তা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে রাজনৈতিক মহলে।

2177ccg8

ফটোতে দেখা যাচ্ছে কেউই সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখেননি

তবে লকডাউনের সব নিয়ম মেনেই নাকি বিয়ের অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয় বলে দাবি করেছেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী কুমারাস্বামী। তিনি জানান, বিয়ের অনুষ্ঠানে সব আমন্ত্রিতদেরই মাস্ক পরে আসতে বলা হয়েছিল। এমনকী অনুষ্ঠান বাড়িতেই চিকিৎসক-সহ একটি মেডিক্যাল টিম রাখা হয়েছিল। স্বাস্থ্য পরীক্ষার পরেই আমন্ত্রিতদের ঢুকতে দেওয়া হয় বিয়ের অনুষ্ঠানে। যদিও যে ছবিগুলো প্রকাশ্যে এসেছে তাতে তেমন কোনও সতর্কতা অবলম্বন করতেই দেখা যায়নি।

মে মাসেই ভারতে করোনার তাণ্ডব নৃত্য! তেমনই আশঙ্কা বিশেষজ্ঞদের

"মাত্র ৬০ থেকে ৭০ জন এসেছিলেন আমার ছেলের বিয়েতে", বলেন কর্নাটকের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী।

ca3fjcb

কর্নাটকের প্রবীণ কংগ্রেস নেতা এম কৃষ্ণাপ্পার নাতনি রেবতীকে বিয়ে করেন দেবেগৌড়ার নাতি

এদিকে এই বিয়ের অনুষ্ঠানের আয়োজন দেখে ক্ষুব্ধ কর্নাটক সরকার। কর্নাটকের উপ-মুখ্যমন্ত্রী অশ্বত নারায়ণ বলেছেন, "কুমারস্বামী প্রকাশ্যে বিবৃতি দিয়েছেন যে তিনি সব নির্দেশিকাই অনুসরণ করেছেন। তিনি জনগণের প্রতিনিধি। তাঁর তো অন্তত এই নির্দেশিকাগুলি মেনে চলা উচিত। যেহেতু তিনি দীর্ঘদিন ধরে দায়িত্বশীল পদে ছিলেন ... তিনি কর্নাটকের মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন, তিনি রামনগরের বিধায়কও, তাই গাইডলাইন অনুসরণ করাই উচিত তাঁর। এ বিষয়ে কোনও অজুহাতেই আমল দেওয়া হবে না"।

কর্নাটকে এখনও পর্যন্ত মোট করোনা আক্রান্ত ৩১৫ জন, এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ১৩ জনের।