This Article is From Jun 16, 2020

ভারতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৩.৪৩ লক্ষ ছাড়াল, তবে সুস্থতার হার ৫২%

COVID- 19: একদিনের মধ্যে আরও ৩৮০ জনের মৃত্যু হওয়ায় দেশে কোভিড-১৯ এর কারণে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৯,৯০০ তে, ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্ত ১০,৬৬৭ জন

ভারতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৩.৪৩ লক্ষ ছাড়াল, তবে সুস্থতার হার ৫২%

Coronavirus in India: দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা লাগাতার বেড়ে চলেছে

হাইলাইটস

  • করোনা ভাইরাসের ক্রমবর্ধমান পরিস্থিতিতে উদ্বেগে মোদি সরকার
  • মঙ্গল ও বুধবার এবিষয়ে মুখ্য়মন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী
  • তবে আশার কথা, দেশে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে ওই রোগ থেকে সুস্থ হওয়ার সংখ্যাও
নয়া দিল্লি: রোখা যাচ্ছে না ভয়ঙ্কর করোনা ভাইরাসকে, ভারতে সব মিলিয়ে ওই রোগে (Coronavirus) আক্রান্তের সংখ্যা ৩,৪৩,০৯১ জন। গত ২৪ ঘণ্টাতেই নতুন করে করোনার (COVID- 19) কবলে পড়েছেন ১০,৬৬৭ জন। একদিনের মধ্যে আরও ৩৮০ জনের মৃত্যু হওয়ায় দেশে কোভিড-১৯ এর কারণে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৯,৯০০ তে। এদিকে আজ (মঙ্গলবার) এবং আগামিকাল (বুধবার) প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে করোনা পরিস্থিতি (Coronavirus in India) নিয়ে ফের বৈঠকে বসবেন। কেননা দেখা গেছে যে, লকডাউনের বিধিনিষেধ শিথিল করার পরেই লাফিয়ে লাফিয়ে দেশে সংক্রমণ বেড়েছে। সেই কারণেই উদ্বিগ্ন প্রধানমন্ত্রী বেলা ৩টেয় পঞ্জাব, কেরল, অসম এবং অন্যান্য উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্যগুলি সহ মোট ২১ টি রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলির মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্স করবেন। পাশাপাশি আগামিকাল (বুধবার), তিনি করোনার আক্রমণে বেহাল মহারাষ্ট্র, তামিলনাড়ু, দিল্লি এবং গুজরাট সহ মোট ১৫ টি রাজ্যের পরিস্থিতি নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে মত বিনিময় করবেন। কোভিড-১৯ সংকটে বিভিন্ন মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে এই নিয়ে ষষ্ঠ ও সপ্তমবার বৈঠক করতে চলেছেন প্রধানমন্ত্রী।

দেখে নিন এই বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ ১০ টি তথ্য:

  1. ভারতে করোনা রোগীর সংখ্যা লাগাতার বেড়ে চলেছে। তবে ওই রোগ থেকে পুনরুদ্ধারের হার বাড়ায় আশার আলো দেখছেন অনেকেই। ওই মারণ রোগের সঙ্গে লড়াই করে বর্তমানে সুস্থ জীবনে ফিরে গেছেন ৫২.৪৬ শতাংশ রোগী। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক জানিয়েছে, এখনও পর্যন্ত দেশে মোট ১,৮০,০১৩ জন মানুষ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েও চিকিৎসা সহায়তায় সুস্থ হয়েছেন। 

  2. মহারাষ্ট্রে সোমবার কোভিড-১৯ এ নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন আরও ২,৭৮৬ জন এবং মারা গেছেন ১৭৮ জন। এর ফলে ওই রাজ্যে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১,১০,৭৪৪ এ এসে পৌঁছেছে। মহারাষ্ট্রে বর্তমানে ৫০,৫৫৪ জন সক্রিয় করোনা রোগী এবং এ পর্যন্ত সেখানে সুস্থ হয়েছেন মোট ৫৬,০৪৯৯ জন। রাজ্যে করোনাতে মৃত্যুর হার এখন ৩.৭০ শতাংশ যেখানে রোগ থেকে পুনরুদ্ধারের হার বেড়ে ৫০ শতাংশে গিয়ে পৌঁছেছে, যা অনেকটাই স্বস্তির খবর। উদ্ধব ঠাকরের রাজত্বে করোনা ভাইরাস এখনও পর্যন্ত প্রাণ কেড়েছে ৪,১২৮ জনের, যেখানে শুধুমাত্র মুম্বইয়েই ২,২৫০ জন মারা গেছে। ওই শহরে এখনও পর্যন্ত ৫৯,২৯৩ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন এবং ৩০,১২৫ জন রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছেন।

  3. এদিকে সংক্রমণের বিচারে এখন মহারাষ্ট্রের পরেই রয়েছে তামিলনাড়ু। পরিস্থিতি বিবেচনা করে তামিলনাড়ু সরকার ১৯ জুন থেকে ৩০ জুনের মধ্যে চেন্নাই, তিরুভল্লুর, কাঞ্চিপুরম এবং চেঙ্গালপট্টু জেলার কিছু অংশে ফের লকডাউন জারি করেছে। তবে বাকি জায়গায় বিধিনিষেধ অনেকটাই শিথিল। খুলে গেছে  দুধ, শাকসবজি,ফল সহ মুদির দোকানও। খুলে দেওয়া হয়েছে নিত্য প্রয়োজনীয় অন্যান্য পরিষেবাগুলিও। সকাল ৬ টা থেকে বিকেল ৪টে পর্যন্ত পেট্রোল পাম্প খোলার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। রেস্তোঁরাগুলিও খোলা থাকবে সকাল ৬ টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত।

  4. কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ সোমবার দিল্লির সমস্ত রাজনৈতিক দলের নেতাদের সঙ্গে নভেল করোনা ভাইরাসের পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করেন। বৈঠকের পর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এবং দিল্লির লেফটেন্যান্ট গভর্নর অনিল বৈজাল আশ্বাস দেন যে উত্তরপ্রদেশ এবং হরিয়ানার যে যে অংশগুলোর সঙ্গে  দিল্লির সীমান্ত  জুড়ে রয়েছে সেই সব এলাকার প্রত্যেক বাসিন্দার করোনা ভাইরাসের পরীক্ষা হবে।

  5. কর্নাটকের মুখ্যমন্ত্রী বিএস ইয়েদুরাপ্পা সোমবার ঘোষণা করেন যে, চেন্নাই এবং দিল্লি থেকে আসা ব্যক্তিদের ৩ দিনের প্রাতিষ্ঠানিক এবং ১১ দিনের হোম কোয়ারান্টাইনে থাকা বাধ্যতামূলক। "দেশে যেখানে মৃত্যুর হার ২.৮% সেখানে এরাজ্যে সেটি ১.২%। জাতীয় স্তরে করোনা থেকে পুনরুদ্ধারের হার গড়ে ৫১% হলেও এরাজ্যে তা ৫৬.৫%", বলেন কর্নাটকের মুখ্যমন্ত্রী।

  6. এদিকে তেলেঙ্গানা সরকার বেসরকারি ল্যাব এবং হাসপাতালগুলিকে কোভিড-১৯ এর পরীক্ষা ও চিকিৎসা করার অনুমতি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তবে বেসরকারি ল্যাব এবং হাসপাতালগুলি করোনা মোকাবিলায় কী কী পদক্ষেপ করতে পারে সে সম্পর্কেও সরকার নির্দেশিকা তৈরি করেছে।

  7. প্রতিবেশী রাজ্য অন্ধ্রপ্রদেশেও ৩০৪ জন নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন এবং দু'জনের মৃত্যু হয়েছে। কুর্নুলে গত ২৪ ঘণ্টার মধ্যে আরও ৬৩ জন করোনা পজিটিভ ধরা পড়ায় সেখানে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১,০০০ ছাড়িয়ে গেছে, গোটা দেশের মধ্যে সবচেয়ে বেশি করোনা আক্রান্ত ওই জেলায়। অন্ধ্রে মোট ৮৬ জন মারা গেছে এবং ৬,৪৫৬ জন করোনায় ভুগছেন।

  8. এদিকে অসমে গোষ্ঠী সংক্রমণ ছড়াচ্ছে কিনা তা জানার জন্যে গুয়াহাটিতে গণ করোনা টেস্ট করা হবে। পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে আংশিক লকডাউনের পক্ষেই মত দেবেন অসমের মুখ্যমন্ত্রী, এমনটাও শোনা যাচ্ছে।

  9. জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয় সোমবার যে তথ্য প্রকাশ করেছে তাতে দেখা গেছে, বিশ্বের মধ্যে করোনার কারণে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে এই নিয়ে একটানা দ্বিতীয় দিন ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ৪০০ জনেরও কম মানুষের মৃত্যু হয়েছে যা আশার আলো দেখাচ্ছে।

  10. গত বছরের ডিসেম্বরে চিন থেকে করোনা ভাইরাস বিশ্বের অন্যান্য দেশে ছড়িয়ে পড়ে। সব মিলিয়ে মোট ৪.৩৬ লক্ষ মানুষ মারা গেছেন ওই রোগে। পৃথিবীর ৮০.২৯ লক্ষের বেশি মানুষ এই ভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন।



.