This Article is From May 14, 2020

কেন্দ্রের করোনা প্যাকেজকে “শূন্য” বললেন মুখ্যমন্ত্রী

রাজ্যের অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্র বলেন, দেশের জিডিপির ১০ শতাংশের বিজ্ঞাপন দেওয়া হয়েছিল, অথচ এটি জিডিপির মাত্র ২ শতাংশ

কেন্দ্রের করোনা প্যাকেজকে “শূন্য” বললেন মুখ্যমন্ত্রী

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আর্থিক প্যাকেজ একটি ধাপ্পাবাজি।

কলকাতা:

করোনা ভাইরাসের (Coronavirus) জন্য বুধবার কেন্দ্রের ঘোষণা করা আর্থিক প্যাকেজের (Economic Package) বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee), পুরো প্যাকেজটিকে “বড় শূন্য” বলেও মন্তব্য করলেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগ, করোনা ভাইরাস সঙ্কটকালে “মানুষকে ভুল বোঝাচ্ছে” কেন্দ্রীয় সরকার এবং রাজ্যকে “আর্থিকভাবে অবরুদ্ধ” করতে চাইছে তারা। রাজ্যের অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্রও কেন্দ্রের বিরুদ্ধে মানুষকে ভুল বোঝানোর অভিযোগ করে বলেন, দেশের জিডিপির ১০ শতাংশের বিজ্ঞাপন দেওয়া হয়েছিল, অথচ এটি জিডিপির মাত্র ২ শতাংশ। সাংবাদিক সম্মেলনে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “কেন্দ্রের করোনা প্যাকেজ একটি বড় শূন্য ছাড়া আর কিছুই নয়। মানুষকে বোকা বানাতে এটা একটা আইওয়াশ। অসংগঠিত ক্ষেত্রের জন্য কিছু নেই, সরকারি খরচ এবং কর্মসংস্থান তৈরির জন্যও কিছু নেই”।

আয়কর রিটার্ন জমা করার শেষ তারিখ পিছিয়ে হল ৩০ নভেম্বর

তিনি বলেন, “গতকাল, প্রধানমন্ত্রী যখন ২০ লক্ষ কোটি টাকার প্যাকেজ ঘোষণা করেন, তখন আমার আশাবাদী ছিলাম, ভেবেছিলাম রাজ্যের স্বার্থ দেখা হবে, বাজেট ম্যানেজমেন্ট এবং রাজস্বের দায়িত্ব (FRBM) বাড়ানো হবে। তবে আজ, অর্থমন্ত্রী যখন ঘোষণা করলেন, তখন দেখা গেল, গতকাল যা বলা হয়েছিল, সবই ধাপ্পাবাজি”।

কৃষকদের ঋণ কেন মকুব করা হচ্ছে না, সে নিয়েও প্রশ্ন তোলেন মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূলনেত্রী, এবং দাবি করেন, আর্থিক প্যাকেজ নিয়ে “ভুল বোঝানো এবং বোকা বানানো” হচ্ছে।

মুখ্যমন্ত্রীর দাবি, মানুষের আশা ছিল, মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রীর ভাষণে রাজ্যের ক্ষুদ্র, মাঝারি এবং উদ্যোগপতি, কর্মসংস্থান, অসংগঠিত ক্ষেত্র, সরকারি খরচ, অতিরিক্ত, এবং স্বাস্থ্য পরিকাঠামোর খাতে কিছু থাকবে।

যাইহোক, কেন্দ্রীয় সরকার রাজ্যকে কিছুই দেয়নি বলে অভিযোগ করে, মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “আমাদের একটা পয়সাও দেওয়া হয়নি। কোনও আয় নেই, শুধু আমরা জ্বলছি”।

‘‘দরিদ্র, পরিযায়ীদের জন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করছি আমরা'': নির্মলা সীতারামনের সেরা উদ্ধৃতিগুলি

মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগ, কেন্দ্রীয় সরকার সাধারণত ক্ষুদ্র ও ছোটো শিল্পের জন্য ১৪ লক্ষ কোটি টাকা বরাদ্দ করে, তবে এখন বিশেষ প্যাকেজের আওতায় তারা সেটাকে ৩ লক্ষ কোটি টাকায় নিয়ে এসেছে।

প্রধানমন্ত্রী মোদির আত্মনির্ভর ভারত গঠনের আহ্বানের জবাবে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “গত ৬ বছরে তারা কেন আত্মনির্ভরতার লক্ষ্যে কাজ করেনি? এতদিন ধরে তারা কী করেছে”?

রাজ্যের অর্থমন্ত্রী বলেন, গতবারের রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া এবং কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রকের বরাদ্দ করা ১০ লক্ষ কোটি টাকাকে ২০ লক্ষ কোটি টাকার প্যাকেজে ঢোকানো হয়েছে।,

(PTI এর তথ্য সংযোজিত হয়েছে)