ভারত আমেরিকাকে হাইড্রোক্সিক্লোরোক্যুইন না দিলে 'যথাযোগ্য উত্তর' দেওয়ার হুমকি ট্রাম্পের!

ট্রাম্প ইঙ্গিত দিয়েছেন যদি ভারত হাইড্রোক্সিক্লোরোক্যুইনের রফতানির উপর নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে এই ওষুধের সরবরাহের ব্যবস্থা না তবে এর যথাযোগ্য উত্তর দিতে পারে আমেরিকা।

ভারত আমেরিকাকে হাইড্রোক্সিক্লোরোক্যুইন না দিলে 'যথাযোগ্য উত্তর' দেওয়ার হুমকি ট্রাম্পের!

Donald Trump করোনাভাইরাসের মোকাবিলায় ভারতে ব্যবহৃত ম্যালেরিয়ার প্রতিষেধক চেয়েছেন ভারতের কাছে

ওয়াশিংটন:

চিন, ইতালির পর এবার আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের নাম উঠে আসছে করোনাভাইরাসে (Coronavirus) সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলির তালিকায়। হুহু করে সে দেশে বাড়ছে Covid-19 আক্রান্তের সংখ্যা। এখনও পর্যন্ত তিন লক্ষাধিক মানুষের দেহে এই ভাইরাসের উপস্থিতি মিলেছে আমেরিকায়। এরই মধ্যে, আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ভারতবর্ষে করোনার চিকিৎসায় ব্যবহৃত ম্যালেরিয়ার প্রতিষেধক হাইড্রোক্সিক্লোরোক্যুইনের (Hydroxychloroquine) রফতানির উপরে থাকা বিধিনিষেধ সরিয়ে নেওয়ার অনুরোধ জানিয়েছে। তবে অনুরোধে মিশে রয়েছে হুমকিও! ট্রাম্প ইঙ্গিত দিয়েছেন যদি ভারত হাইড্রোক্সিক্লোরোক্যুইনের রফতানির উপর নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে এই ওষুধের সরবরাহের ব্যবস্থা না তবে এর যথাযোগ্য উত্তর দিতে পারে আমেরিকা।

ট্রাম্প সোমবার করোনাভাইরাস টাস্কফোর্স ব্রিফিংয়ের সময় হোয়াইট হাউসে বলেন যে, “ভারত আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে খুব ভাল ব্যবহারই করছে এবং আমি এমন কোনও কারণ দেখতে পাচ্ছি না যে আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রে ওষুধের রফতানির উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করবে। আমি রবিবার সকালে প্রধানমন্ত্রী মোদির সঙ্গে কথা বলেছি এবং আমি বলেছি যে আপনি যদি হাইড্রোক্সিক্লোরোক্যুইন সরবরাহের ব্যবস্থা করেছেন তবে আমরা এই পদক্ষেপকে সম্মান করব। আর যদি সরবরাহের অনুমতি না দেন, তাহলেও ঠিক আছে! কিন্তু হ্যাঁ, আমাদের থেকেও এরপর এমনই ব্যবহার পাবেন তা জেনে রাখবেন।”

এর আগেও আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্র করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসার জন্য ভারত থেকে এই ওষুধটি রফতানির অনুরোধ জানিয়েছে। আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প শনিবার জানান যে ভারতবর্ষের প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে ভারতে এই রোগের চিকিৎসায় ব্যবহৃত হাইড্রোক্সিক্লোরোক্যুইন যাতে আমেরিকাতেও পাঠানো হয় তার আবেদন করেছেন তিনি। আমেরিকার প্রেসিডেন্ট আরও জানান যে ফোনেই মোদিকে তিনি জানিয়েছেন আমেরিকার অবস্থা শোচনীয়, এমতাবস্থায় ভারতবর্ষ থেকে এই ওষুধের জোগান খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এমনকি ট্রাম্প নিজেও এই ওষুধ খাবেন বলে জানিয়েছেন।

করোনাভাইরাস মহামারী থেকে কীভাবে বাঁচা যায় তা নিয়ে নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে আমেরিকার রাষ্ট্রপতি ডোনাল্ড ট্রাম্পের শনিবার বিশদ আলোচনা হয়েছে। দুই নেতাই কোভিড-১৯-এর সঙ্গে লড়াইয়ে ভারত-মার্কিন অংশীদারিত্বের সম্পূর্ণ শক্তি ব্যবহারের শপথ নিয়েছেন। উল্লেখ্য যে, ভারতবর্ষ করোনা পরিস্থিতি মাথায় রেখেই এই ওষুধের রফতানির উপর নিষেধাজ্ঞা লাগু করেছে।

Listen to the latest songs, only on JioSaavn.com