খারিজ হতে চলেছে সংসদীয় কমিটির ভার্চুয়াল বৈঠকের দাবি

সূ্ত্র মারফৎ আরও জানা গিয়েছে, বিমান ও রেল পরিষেবা ধাপে ধাপে চালু করা সংসদীয় কমিটির সদস্যদের তরফে সেক্ষেত্রে কোনও বাধা নেই

খারিজ হতে চলেছে সংসদীয় কমিটির ভার্চুয়াল বৈঠকের দাবি

প্রযুক্তিগত ঝুঁকির কারণে খারিজ হতে চলেছে বৈঠকের প্রস্তাব

নয়াদিল্লি:

বিরোধীদের তোলা সংসদীয় কমিটির ভার্চুয়াল বৈঠকের (Virtual Meeting of Parliamentary Committees) দাবি খারাজি করতে চলেছে বিরোধীরা, যে প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে ভিডিও কনফারেন্সে বৈঠকটি হবে, সেইরকম প্লাটফর্ম না থাকার যুক্তিতে এই বৈঠকের দাবি খারিজ হতে পারে। সূত্র মারফৎ জানা গিয়েছে, অসুরক্ষিত কোনও প্লাটফর্ম থেকে এই ধরণের সম্পর্শকাতর তথ্য যাতে ফাঁস হোক, তা চাইছে না সরকার, এবং বলা হয়েছে, সংসদীয় বিষয়ক আলোচনা গোপন রাখা জরুরি। সূ্ত্র মারফৎ আৎও জানা গিয়েছে, বিমান ও রেল পরিষেবা ধাপে ধাপে চালু করা সংসদীয় কমিটির সদস্যদের তরফে সেক্ষেত্রে কোনও বাধা নেই।

১ জুন সংসদীয় বৈঠক হতে পারে বলে সূত্র মারফৎ জানা গিয়েছে। করোনা ভাইরাস লকডাউনের কারণে মুলতুবি রাখা হয় সংসদের দুই কক্ষের সভার কাজ।

শুক্রবার কংগ্রেস সভানেত্রী সনিয়া গান্ধির নেতৃত্বে বৈঠক করে ২২টি বিরোধী দল। একত্রিতভাবে, করোনা ভাইরাস সঙ্কটের মোকাবিলা করে বৈঠক উপস্থিত বিরোধী দলগুলি, পাশাপাশি সংসদের কাজকর্ম এবং অন্যান্য বিষয় সত্ত্বর চালু করারও দাবি তোলা হয়।

বৈঠকের উদ্বোধন করে, সনিয়া গান্ধি বলেন, “সমস্ত ক্ষমতা শুধুমাত্র প্রধানমন্ত্রীর দফতরেই রয়েছে”।

কংগ্রেস সভানেত্রী ফোনে কথা বলেন বিরোধী দলের বহু সাংসদ এবং সংসদীয় কমিটির চেয়ারপার্সনদের সঙ্গে, সেখানেই, সরকারের কাজকর্মে যাতে ব্যাঘাত না ঘটে, তারজন্য লকডাউনের সময়ে, ভার্চুয়াল বৈঠকের দাবি তোলা হয়।

এই দাবি তোলার পক্ষে ছিলেন কংগ্রেস নেতা জয়রাম রমেশ, শশী থারুর এবং অধীরর়্জন চৌধুরীর পাশাপাশি বিজেডি নেতা ভার্থারি মাথবও।

এদিনই করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার আবহেও যাতে সংসদের কাজ শুরু করা যায়, সে নিয়ে আলোচনা করতে চলেছেন লোকসভার অধ্যক্ষ ওম বিড়লা এবং রাজ্যসভার চেয়ারম্যান বেঙ্কাইয়া নাইডু।

বিষয়টি নিয়ে এই নিয়ে তিনবার বৈঠক হতে চলেছে তাঁদের।

আগের মাসে, ভিডিও কনফারেন্স বা কোনও উপায়ে সংসদীয় বৈঠক করা নিয়ে দুই কক্ষের সেক্রেটারি জেনারেলের সঙ্গে কথা বলেন ওম বিড়লা এবং বেঙ্কাইয়া নাইডু।