This Article is From May 19, 2020

১ জুন থেকে দৈনিক ২০০টি করে নন-এসি ট্রেন চালাবে রেল

একটি ট্যুইটে রেলের তরফে জানানো হয়েছে, “এই শ্রমিক স্পেশাল ট্রেন ছাড়াও, ১ জুন থেকে দৈনিক ২০০টি করে অতিরিক্ত ট্রেন চালানো হবে”

১ জুন থেকে দৈনিক ২০০টি করে নন-এসি ট্রেন চালাবে রেল

আগামি মাসে চালু করা হচ্ছে ২০০টি প্যাসেঞ্জার ট্রেন (Passenger Train Service)

নয়াদিল্লি:

আগামি মাসে চালু করা হচ্ছে ২০০টি প্যাসেঞ্জার ট্রেন (Passenger Train Service) । তারমধ্যে রয়েছে নন-এসি ট্রেন, এতদিন পর্যন্ত এই ধরণের ট্রেন চলাচলের অনুমতি দেওয়া হয়নি। ১২ মে থেকে যে সমস্ত ট্রেনগুলি চলাচল করছে, সেই ১৫টি ট্রেনই শীততাপ নিয়ন্ত্রিত কামরা সম্পন্ন, এবং যাত্রীদের মাস্ক পরা ও সামাজিক দূরত্ব বিধি মেনে চলা বাধ্যতামূলক এই ট্রেনগুলিতে। মঙ্গলবার একটি ট্যুইটে রেলের তরফে জানানো হয়, এই শ্রমিক স্পেশাল ট্রেন ছাড়াও, “১ জুন থেকে প্রতিদিন ২০০টি অতিরিক্ত ট্রেন চালানো হবে, সেগুলি হবে ননএসি দ্বিতীয় শ্রেণীর কোচ সম্পন্ন এবং অনলাইন বুকিং করতে হবে”।

 খুব দ্রুতই এ সম্পর্কে তথ্য জানা যাবে বলেও জানিয়েছে রেল।

গত সপ্তহে এ সম্পর্কে ইঙ্গিত দেওয়া হয়, বলা হয়,  ২২ মে থেকে ওয়েট লিস্ট টিকিট বুক হবে। বলা হয়, এই নির্দেশিকা ১৫টি চালু ট্রেনের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য নয় তবে “নির্দিষ্ট সময়ে যএগুলি চলবে, সেগুলির কথা বলা হয়েছে”।

একদিন আগে তৃতীয়বারের জন্য লকডাউন বাড়িয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার, যদিও বাস এবং অন্যান্য গণপরিবহনে মিলেছে ছাড়। তবে চূড়ান্ত সিদ্ধান্তের ভার দেওয়া হয়েছে রাজ্যের হাতে।

পরিযায়ীদের জন্য বিশেষ ট্রেন চালানো নিয়ে রাজ্যগুলির সঙ্গে দ্বন্দ্বে আরও এক ধাপ এগিয়ে গেল এই পদক্ষেপ। দাবি করা হয়েছে, কিছু রাজ্যে পরিযায়ীদের জন্য বিশেষ ট্রেন ঢুকতে দিচ্ছে না, কেন্দ্র পরিযায়ীদের পৌঁছানোর ব্যাপারে রাজ্যের ভুমিকা আবশ্যিক করার বিধি প্রত্যাহার করে নেয়।

এর ফলে বিহার, কর্নাটকের মতো রাজ্যগুলি সংঘাতে নামে, তাদের দাবি পরিযায়ী শ্রমিকরা রাজ্যে এসে করোনা ভাইরাস ছড়াচ্ছে।

লকডাউনের আগে, প্রতিদিন ১২,০০০ ট্রেন চলত দেশজুড়ে। ১ মে থেকে, ৩৬৬টি স্পেশাল ট্রেন চালানো শুরু করা হয় বিভিন্ন রাজ্যে আটকে পড়া পরিযায়ী শ্রমিকদের জন্য।