আন্তঃরাজ্য বাস পরিষেবায় অনুমতি, বন্ধ বিমান, মেট্রো পরিষেবা

Coronavirus lockdown extended: স্থানীয় প্রশাসনকে নিশ্চিত করতে হবে যে, নির্দিষ্ট সময়ে খোলা হবে দোকান ও বাজার, যাতে সামাজিক দূরত্ব বিধি বজায় থাকে

আন্তঃরাজ্য বাস পরিষেবায় অনুমতি, বন্ধ বিমান, মেট্রো পরিষেবা

Coronavirus lockdown:৩১ মে পর্যন্ত বাড়ানো হল লকডাউনের মেয়াদ

নয়াদিল্লি:

রাজ্যগুলির পারষ্পরিক সম্পর্কের মধ্যে দিয়ে আন্তঃরাজ্য বাস ও যাত্রীবাহি গাড়়ি পরিষেবা (Interstate Movement)চলাচল করবে বলে জানাল কেন্দ্রীয় সরকার, এদিনই ৩১ মে পর্যন্ত লকডাউনের (coronavirus lockdown) মেয়াদ বাড়াল কেন্দ্র। ২৫ মার্চ লকডাউন ঘোষণার পর এই নিয়ে তিনবার বাড়ল লকডাউনের মেয়াদ। এছাড়াও জানানো হয়েছে, স্টেডিয়াম ও খেলার জায়গাগুলি চালু করা হবে তবে কোনও দর্শক ঢুকতে পারবেন না। যদিও, কেবলমাত্র স্বাস্থ্য পরিষেবা ও নিরাপত্তা সংক্রান্ত স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের বিনা অনুমতিতে কোনও বিমান পরিষেবা চালু হবে না। কোনও মেট্রো পরিষেবা চালু হচ্ছে না। বন্ধ রাখা হচ্ছে স্কুল ও কলেজগুলি।

একটি বিবৃতিতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক জানিয়েছে, “২৫ মার্চ থেকে লকডাউন জারি রাখা হয়েছে। এর ফলে করোনা ভাইরাসের ব্যাপক ছড়িয়ে পড়া রোখা গিয়েছে। এইজন্য ৩১ মে পর্যন্ত লকডাউনের মেয়াদ বাড়ানো হয়েছে”।

নয়া নির্দেশিকা অনুসারে, স্বাস্থ্যমন্ত্রকের দেওয়া তথ্যের ওপর ভিত্তি করে লাল, কমলা ও সবুজ জোন চিহ্নিত করতে পারবে রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত এলাকাগুলি।

স্থানীয় প্রশাসনকে নিশ্চিত করতে হবে যে, নির্দিষ্ট সময়ে খোলা হবে দোকান ও বাজার, যাতে সামাজিক দূরত্ব বিধি বজায় থাকে। সমস্ত দোকানে ৬ ফুট দূরত্ব বজায় রাখতে হবে ক্রেতাদের মধ্যে এবং একসঙ্গে পাঁচজনের বেশি ক্রেতা থাকবে না বলে জানিয়েছে সরকার।

সরকারের তরফে বলা হয়েছে, “ব্যক্তিগত চলাফেরার ক্ষেত্রে রাতে কার্ফু জারি থাকবে, সমস্ত অত্যবশকীয় নয়, এমন কাজ করতে হবে সন্ধে ৭টা থেকে সকাল ৭টার মধ্যে”। আরও বলা হয়েছে, “পরিস্থিতির ওপর বিচার করে, বিভিন্ন জায়গায় চালফেরার ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করতে পারে রাজ্য বা কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলি,এবং প্রয়োজনে কড়াকড়ি করতে পারে”।

ভারতে করোনা ভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা ৯০,০০০ ছাড়িয়েছে, একদিনে আক্রান্তের সংখ্যা ৪,৯৮৭ জন। এখনও পর্যন্ত মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৯০,৯২৭ জন। করোনা আক্রান্ত হয়ে ভারতে মৃত্যুর সংখ্যা ২,৮২৭ জন বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্যমমন্ত্রক। ২৪ ঘণ্টায় ভারতে করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা ১২৪ জন।