সামাজিক দূরত্ব বোঝাতে রাস্তায় প্রশিক্ষণ দিলেন মুখ্যমন্ত্রী, ভিডিও শেয়ার করলেন ডেরেক ও’ব্রায়েন

রাজ্যে এখনও পর্যন্ত করোনা ভাইরাসের সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে একজনের। দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৬০০। অন্তত ১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে।

মুখ্যমন্ত্রীকে দেখা গিয়েছে মুখে রুমাল বেঁধে রাস্তায় নেমে পড়ে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার আর্জি জানাতে। 

কলকাতা:

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে (Mamata Banerjee) বৃহস্পতিবার দেখা গেল এক ফল বিক্রেতার দোকানের সামনে চক দিয়ে দাগ কেটে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার ব্যাপারে সকলকে বোঝাতে। কোভিড-১৯ সংক্রমণ রুখতে গেলে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার বিষয়টি যে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ তা জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও'ব্রায়েন একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন অনলাইনে। সেখানে মুখ্যমন্ত্রীকে দেখা গিয়েছে মুখে রুমাল বেঁধে রাস্তায় নেমে পড়ে চক দিয়ে বৃত্ত এঁকে এক ফল বিক্রেতার দোকানের সামনে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার আর্জি জানাতে। ভিডিওটির শিরোনামে ডেরেক জানিয়েছেন, ‘‘কিচ্ছু বলার নেই।'' প্রসঙ্গত, করোনার সংক্রমণের সম্ভাবনা সত্ত্বেও কেন সংসদের অধিবেশন বন্ধ করা হচ্ছে ‌না তা নিয়ে প্রতিবাদ করেছিলেন তিনি।

ক্রেতা-বিক্রেতার মধ্যে দূরত্ব একমিটার! বাজার পরিদর্শনে গিয়ে এঁকে বোঝালেন মুখ্যমন্ত্রী

রাজ্যে এখনও পর্যন্ত করোনা ভাইরাসের সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে একজনের। দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৬০০। অন্তত ১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে।

করোনার মোকাবিলায় সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার প্রয়োজনীয়তার কথা বারবার বলেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল, রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার জন্য চক দিয়ে যে বৃত্ত আঁকার কথা বলেছেন, তা বুধবার থেকেই দেশের নানা মুদিখানা ও অন্যান্য দোকানে দেখা গিয়েছে।

t1gqfgmo

২১ দিনের লকডাউনের সবে দ্বিতীয় দিন চলছে। কোনও কোনও রাজ্যে লকডাউনের পাশাপাশি কার্ফুও জারি করা হয়েছে।

কেন্দ্র ও রাজ্য সরকার বারবার জান‌িয়েছে, খাদ্য, জল, ওষুধের মতো অত্যাবশ্যক সামগ্রীর কোনও অভাব হবে না। সকলকে খুব প্রয়োজন ছাড়া রাস্তায় বেরোতে নিষেধ করা হয়েছে।

ভিন রাজ্যে আটক বাংলার কর্মীদের সাহায্যের দাবি জানিয়ে চিঠি মুখ্যমন্ত্রীর

বুধবারই সরকারি কর্মীদের হুঁশিয়ারি দেয় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, সবজি বিক্রেতা কিংবা কোনও হোম ডেলিভারি কর্মীকে যেন হেনস্থা না করা হয়।

নোভেল করোনা ভাইরাসের আতঙ্কে দেশজুড়ে চলছে সম্পূর্ণ লকডাউন। এই পরিস্থিতিতে রাজ্যের বহু কর্মী আটকে রয়েছেন অন্য রাজ্যে। তাঁদের প্রয়োজনীয় সহায়তা প্রদান করার অনুরোধ জানিয়ে দেশের ১৮টি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি লিখেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

(তথ্যসূত্র: পিটিআই)