কেরলে করোনা ভাইরাসে জেরে প্রথম মৃত্যু, দুবাই থেকে সংক্রমিত হয়েছিলেন ওই ব্যক্তি

Coronavirus: শুক্রবার দক্ষিণের ওই রাজ্যে নতুন করে আরও ৩৯ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন, প্রচণ্ড গতিতে বাড়ছে সংক্রমণ

কেরলে করোনা ভাইরাসে জেরে প্রথম মৃত্যু, দুবাই থেকে সংক্রমিত হয়েছিলেন ওই ব্যক্তি

COVID-19: বর্তমানে কেরলে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত মোট ১৭৬ জন

হাইলাইটস

  • কেরলে এই প্রথম করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে কোনও ব্যক্তির মৃত্যু হল
  • ৬৯ বছরের ওই ব্যক্তি হাসপাতালেই মারা যান, সম্প্রতি দুবাই গেছিলেন তিনি
  • কেরলে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন মোট ১৭৬ জন
তিরুবনন্তপুরম:

আতঙ্ককে আরও একধাপ বাড়িয়ে কেরলেও মৃত্যু হল এক করোনা (Coronavirus) আক্রান্তের। এতদিন পর্যন্ত সেই রাজ্যে বেশ বড় সংখ্যক মানুষ ওই মারণ ভাইরাসে আক্রান্ত হলেও প্রাণহানি ঘটেনি কারোরই।  কিন্তু এবার দক্ষিণের রাজ্যেও মৃত্যুদূত করোনার থাবা প্রাণ কাড়ল ৬৯ বছরের এক ব্যক্তির। এই প্রথম কেরলে মৃত্যু হল কোনও করোনা আক্রান্তের। ফলে ভয়ের ঠান্ডা স্রোত এখন কেরলবাসীর (Kerala) মেরুদণ্ড দিয়ে নামছে। জানা গেছে, কিছুদিন আগে ওই ব্যক্তি সৌদি আরবের দুবাই (Dubai) থেকে দেশে ফেরেন। তারপরেই তাঁর শরীরে করোনা সংক্রমণের লক্ষণ দেখা দেওয়ায় গত ২২ মার্চ হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাঁকে। এর পাশাপাশি হার্টের সমস্যাও ছিল তাঁর। উচ্চ রক্তচাপেও ভুগছিলেন তিনি। কিছুদিন আগে তাঁর বাইপাস সার্জারিও হয় বলে জানা গেছে। ফলে সব মিলিয়ে জটিল ছিল তাঁর অবস্থা। কেরলের এর্নাকুলামের বাসিন্দা এই রোগী শনিবার সকাল আটটায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। 

২২ মার্চ থেকে এই ক'দিল হাসপাতালের ভেন্টিলেশনেই রাখা হয়েছিল ওই ব্যক্তিকে। সেই অবস্থাতেই আজ (শনিবার) তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটে। শেষ পর্যন্ত চিকিৎসকদের সব চেষ্টাকে ব্যর্থ করে মারা যান তিনি। ওই ব্যক্তির পরিবারের হাতে তাঁর দেহ তুলে দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

করোনা ভাইরাসের নতুন পরীক্ষা পদ্ধতি, এবার আর ২ দিন নয়, ৫ মিনিটেই মিলবে রিপোর্ট

রাজ্যের কৃষিমন্ত্রী ভিএস সুনীলকুমার বলেছেন, "যাঁরা ওই ব্যক্তির সংস্পর্শে এসেছিলেন তাঁদের সকলকে সনাক্ত করা হয়েছে এবং তাঁদের কোয়ারান্টাইন করে রাখা হয়েছে"।

শুক্রবার দক্ষিণের ওই রাজ্যে নতুন করে আরও ৩৯ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন, সেখানে প্রচণ্ড গতিতে বাড়ছে সংক্রমণ। বর্তমানে কেরলে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত মোট ১৭৬ জন। তাঁদের মধ্যে ১৬৪ জনের এখনও চিকিৎসা চলছে এবং ১২ জন ইতিমধ্যে সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন।

ভারতে এই প্রথম অনুবীক্ষণ যন্ত্রে ধরা পড়ল করোনা ভাইরাসের ছবি

এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আরও ১৪৯ জন নতুন COVID-19 আক্রান্তের সন্ধান মিলেছে। ফলে সরকারি পরিসংখ্যান অনুযায়ী দেশে এখন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত মোট ৮৭৩ জন, এর মধ্যে ১৯ জনের মৃত্যু হয়েছে এই মারণ রোগে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছে যে এই ভাইরাসকে দমাতে একটি ভ্যাকসিন তৈরি হচ্ছে। তবে এটি পুরোপুরি প্রস্তুত হয়ে মানব শরীরে ব্যবহারের উপযোগী হতে এখনও কমপক্ষে ১২ থেকে ১৮ মাস পর্যন্ত সময় লাগবে। গোটা বিশ্বকে একসঙ্গে মিলে এই ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে চেষ্টা করতে হবে, এমনটাই পরামর্শ হু-এর।