This Article is From Jul 17, 2020

ভারতে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যু, ১০ লক্ষ পেরিয়ে গেল সংক্রমিতের সংখ্যা

Coronavirus: কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের পরিসংখ্যান বলছে, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ৩৪,৯৫৬ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছে এবং মৃত্যু হয়েছে ৬৮৭ জনের

ভারতে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যু, ১০ লক্ষ পেরিয়ে গেল সংক্রমিতের সংখ্যা

Coronavirus cases in India: দেশে প্রতিদিনই যেন করোনা সংক্রমণের নতুন রেকর্ড তৈরি হচ্ছে, পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃত্যুও

হাইলাইটস

  • গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনা সংক্রমিত ৩৪,৯৫৬ জন
  • একদিনের মধ্যে ৬৮৭ জনের প্রাণ কাড়লো করোনা ভাইরাস
  • কোভিড- ১৯ এর কারণে দেশের মধ্যে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত রাজ্য হল মহারাষ্ট্র
নয়া দিল্লি:

যত দিন যাচ্ছে ততই যেন নিজের শক্তি বাড়াচ্ছে করোনা ভাইরাস। প্রতিদিনই নতুন করে ওই রোগে (Coronavirus) আক্রান্ত এবং মৃতের পরিসংখ্যান যেন নতুন রেকর্ড গড়ছে। দেখতে দেখতে ভারতে (Coronavirus cases in India) ১০ লক্ষ ছাড়িয়ে গেল করোনা সংক্রমিতের সংখ্যা। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের পরিসংখ্যান বলছে, শুক্রবার সকাল পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ৩৪,৯৫৬ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছে। পাশাপাশি একদিনের মধ্যে ৬৮৭ জন মানুষের প্রাণ কেড়েছে এই মারণ ভাইরাস। দিনের পর দিন যেন সংক্রমণ বাড়ছে। প্রতিদিনই নতুন রেকর্ড গড়ছে কোভিড- ১৯ (Covid- 19)। সরকারি তথ্যে দেখা যাচ্ছে, সারা দেশে করোনা ভাইরাস মহামারী রূপে দেখা দেওয়ার পর থেকে মোট ২৫,৬০২ জন মানুষের করোনায় ভুগে মৃত্যু হয়েছে।  

কোভিড যুদ্ধে মৃত সরকারি কর্মীদের পরিবারের একজনকে চাকরি, ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর

তবে চিকিৎসা সহায়তায় এখনও পর্যন্ত দেশে ৬.৩৫ লক্ষ মানুষ বা ৬৩.৩৪ শতাংশ করোনা রোগী সুস্থ হয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে গেছেন।

করোনাকে রুখতে পূর্ণ সময়ের জন্যে স্বাস্থ্যমন্ত্রী নিয়োগ করুন মুখ্যমন্ত্রী, চান বিরোধীরা

যেভাবে দৈনিক রেকর্ড হারে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে তা দেখে দেশের বেশ কিছু অতি সংক্রমণপ্রবণ এলাকায় ফের কড়া লকডাউন জারি করা হয়েছে। স্বাস্থ্য আধিকারিকদের আশা, একমাত্র এইভাবেও করোনার প্রকোপ কিছুটা নিয়ন্ত্রণে থাকবে।

দেশের যে রাজ্যগুলোতে সবচেয়ে বেশি মানুষ করোনা ভাইরাসের কবলে পড়েছেন তাদের মধ্যে শীর্ষে রয়েছে মহারাষ্ট্র। ওই রাজ্যের পরেই রয়েছে তামিলনাড়ু, দিল্লি, কর্নাটক, গুজরাট, উত্তরপ্রদেশ এবং তেলেঙ্গানা।

দেশের অন্যান্য রাজ্যগুলোর মতো পাল্লা দিয়ে সংক্রমণ ছড়াচ্ছে পশ্চিমবঙ্গেও। বিরোধীরা অভিযোগ তুলেছেন, করোনা পরিস্থিতি সামলাতে ব্যর্থ হয়েছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার। এই অবস্থায় রাজ্যের স্বাস্থ্য পরিষেবা যথাযথ রাখতে রাজ্যে পূর্ণসময়ের জন্যে এক স্বাস্থ্যমন্ত্রী নিয়োগ করারও দাবি তুলেছেন বিরোধীরা।

এদিকে, চলতি মাসের শুরুর দিকেই ভারতীয় ওষুধপ্রস্তুতকারী দ্বিতীয় সংস্থা হিসাবে জাইডাস ক্যাডিলা মানব শরীরে করোনা ভ্যাকসিন পরীক্ষামূলক ব্যবহারের অনুমতি দিয়েছে ড্রাগস কন্ট্রোলার জেনারেল অফ ইন্ডিয়া। জানা গেছে, দুই পর্যায়ে মোট ১,০৪৮ জনকে ওই টিকা দেওয়া হবে। ভারতে, এই টিকার পরীক্ষামূলক ব্যবহার দুভাবে হবে একটা এনক্লুশন পদ্ধতিতে আরেকটি এক্সক্লুশন পদ্ধতিতে। প্রথম পর্বে, ওষুধ প্রস্তুতকারী সংস্থাটি ১৮ থেকে ৫৫ বছর বয়সী স্বাস্থ্যকর পুরুষ এবং মহিলাদের শরীরে ওই টিকা দেবে। আর দ্বিতীয় ধাপে, ১২ বছর বা তার বেশি বয়সের ছেলেমেয়েদের শরীরে দেওয়া হবে ওই টিকা।