ভারতের সংবিধানের খসড়া তৈরি যার হাতে, তিনি একজন 'ব্রাহ্মণ': গুজরাটের স্পিকার

স্পিকার জানান যে অর্থনীতিবিদ অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়সহ নয় জন ভারতীয় নোবেল বিজয়ীর মধ্যে আটজনই ছিলেন ব্রাহ্মণ।

ভারতের সংবিধানের খসড়া তৈরি যার হাতে, তিনি একজন 'ব্রাহ্মণ': গুজরাটের স্পিকার

Rajendra Trivedi বলেন ব্রাহ্মণরা সর্বদা পিছনে থাকেন এবং অন্যদের হয়ে প্রচার করেন

আহমেদাবাদ:

ভারতের সংবিধানের খসড়া তৈরির পিছনে যিনি রয়েছেন তিনি একজন ব্রাহ্মণ! গুজরাট বিধানসভার স্পিকার রাজেন্দ্র ত্রিবেদী (Gujarat Assembly Speaker Rajendra Trivedi) শুক্রবার দাবি করেছেন, ডঃ বি আর আম্বেদকার (Dr BR Ambedkar) বিএন রাউকে (BN Rau) এই খসড়া নির্মাণের কৃতিত্ব দিয়েছেন, আর বিএন রাউ একজন ব্রাহ্মণ। গুজরাটের আহমেদাবাদে ‘মেগা ব্রাহ্মণ বিজনেস সামিট' (Mega Brahmin Business Summit)-এর দ্বিতীয় সংস্করণের উদ্বোধনকালে স্পিকার জানান যে অর্থনীতিবিদ অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়সহ নয় জন ভারতীয় নোবেল বিজয়ীর মধ্যে আটজনই ছিলেন ব্রাহ্মণ।

“আপনারা কি জানেন যে ৬০ টি দেশের সংবিধান পড়া হয়েছিল এবং তারপরে আমাদের সংবিধানের খসড়া প্রস্তুত করা হয়েছিল? আপনারা কি জানেন যে এই খসড়াটি ডঃ বি আর আম্বেদকারের কাছে কে উপস্থাপন করেছিলেন? সংবিধানের কথা উঠলে আমরা সবাই ডঃ বি আর আম্বেদকরের নাম শ্রদ্ধার সঙ্গে উচ্চারণণ করি। তবে, আম্বেদকার নিজেই জানিয়েছিলেন, খসড়াটি বি এন রাউ তৈরি করেছিলেন- বেনগাল নরসিং রাউ (Benegal Narsing Rau)- একজন ব্রাহ্মণ,” মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রূপানির উপস্থিতিতেই এই কথা বলেন তিনি।

“ইতিহাস আমাদের বলে যে ব্রাহ্মণরা সর্বদা পিছনে থাকেন এবং অন্যদের হয়ে প্রচার করেন। ডাঃ আম্বেদকারকে তাঁর চেয়ে এগিয়ে রেখেছিলেন বিএন রাউই। আমরা ডাঃ আম্বেদকারের জন্য গর্বিত কারণ তিনি ১৯৪৯ সালের ২৫ নভেম্বর গণপরিষদে ভাষণকালে এই কথা স্বীকার করেছিলেন,” বলেন রাজেন্দ্র ত্রিবেদী।

“এবং আমি তাকে উদ্ধৃত করেই বলেছি: 'আমাকে যে কৃতিত্ব দেওয়া হয়েছিল তা সত্যিই আমার নয়, এটি বিএন রাউয়ের,”বলেন স্পিকার। তার কথায় যে আট জন ভারতীয় নোবেল পুরস্কার পেয়েছিলেন তাদের মধ্যে সাতজনই ছিলেন ব্রাহ্মণ।

স্পিকার দিল্লির দমকলকর্মী রাজেশ শুক্লার কথাও বলেন। গত মাসে দিল্লিতে অগ্নিকাণ্ডের সময় ১১ জনকে উদ্ধার করেছিলেন রাজেশ, তিনিও ব্রাহ্মণ।

Listen to the latest songs, only on JioSaavn.com