প্রধানমন্ত্রীর ব্যর্থতার "৩টি বিষয় পড়ানো হবে হার্ভার্ডে", কটাক্ষ রাহুলের

Coronavirus: বিশ্বে করোনা ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকায় এখন রাশিয়াকে টপকে ৩ নম্বরে ভারত, দেশে ৬.৯ লক্ষেরও বেশি মানুষ এই রোগে আক্রান্ত

প্রধানমন্ত্রীর ব্যর্থতার

Coronavirus: এই রোগ মহামারী আকারে দেশে ছড়িয়ে পড়ার সময় থেকে ক্রমাগতই কেন্দ্রীয় সরকারকে আক্রমণ করেছেন রাহুল গান্ধি

হাইলাইটস

  • প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে ফের কটাক্ষ করলেন রাহুল গান্ধি
  • তুলে ধরলেন করোনা ভাইরাস, নোটবাতিলের সিদ্ধান্ত ও জিএসটি নিয়ে ব্যর্থতার কথা
  • করোনা ভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে এর আগেও মোদির বিরুদ্ধে আক্রমণ শানিয়েছেন রাহুল
নয়া দিল্লি:

কোভিড- ১৯ (COVID-19) পরিস্থিতি, নোট বাতিলের সিদ্ধান্ত (Demonetisation) ও জিএসটির প্রয়োগ, এই ৩টি বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ব্যর্থতার অধ্যায় এবার হার্ভার্ড বিজনেস স্কুলের পড়াশুনোর অন্তর্ভুক্ত হবে, তীব্র কটাক্ষ করে সোমবার টুইট করলেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধি। তিনি (Rahul Gandhi) নিজের টুইটের সঙ্গে জুড়ে দেন প্রধানমন্ত্রী মোদির জাতির উদ্দেশে ভাষণের একটি ভিডিও এবং ভারতের করোনা ভাইরাসে (Coronavirus) আক্রান্তের সংখ্যার ক্রমবর্ধমান গ্রাফের একটি ভিডিও। তিনি লেখেন, "ভবিষ্যতে এইচবিএস (হার্ভার্ড বিজনেস স্কুল) -এ ব্যর্থতা কেমন হয় তা শেখাতে অবশ্যই এই ৩টি বিষয়ের উপর পড়ানো হবে: ১. কোভিড -১৯। ২. নোট বাতিলের সিদ্ধান্ত। ৩. জিএসটির প্রয়োগ।

প্রধানমন্ত্রীর যে ভিডিওটি রাহুল গান্ধি তাঁর টুইটের সঙ্গে জুড়ে দেন তাতে নরেন্দ্র মোদিকে বলতে শোনা গেছে, "মহাভারতের যুদ্ধ জিততে ১৮ দিন সময় লেগেছিল আর এই করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধে জিততে ২১ দিন সময় লাগবে"।

করোনার পর এবার বিউবোনিক প্লেগ, চিন থেকে এই রোগের সংক্রমণ ছড়ানোর আশঙ্কা

বিশ্বে করোনা ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকায় এখন রাশিয়াকে টপকে ৩ নম্বরে ভারত, দেশে ৬.৯ লক্ষেরও বেশি মানুষ এই রোগে আক্রান্ত, যেখানে রাশিয়ায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৬.৮ লক্ষ। ভারতের আগে এখন শুধুমাত্র ব্রাজিল এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, এই দুটি দেশই রয়েছে। ব্রাজিলে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১৫ লক্ষেরও বেশি এবং আমেরিকায় ওই রোগের কবলে ২৮ লক্ষেরও বেশি মানুষ।

রাশিয়াকে পিছিয়ে ভারত এগিয়ে, করোনা সংক্রমণের দিক থেকে তৃতীয় স্থানে উঠে এল ভারত

রবিবার একদিনের মধ্যে নতুন করে আরও ২৫,০০০ এরও বেশি মানুষের শরীরে বাসা বাঁধে করোনা ভাইরাস।গত ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ৬১৩ জনের প্রাণ কেড়েছে ওই মারণ রোগ। সব মিলিয়ে এই রোগের জেরে এখনও পর্যন্ত ভারতে মারা গেছেন ১৯ হাজার ২০০ জন মানুষ।