“নির্বলা, নির্মলা নন”: অর্থনীতি নিয়ে অর্থমন্ত্রীকে তোপ অধীররঞ্জন চৌধুরীর

জুলাই-সেপ্টেম্বর ত্রৈমাসিকে ভারতের জিডিপি বৃদ্ধির হার ৪.৫ শতাংশ দেখিয়েছে সরকারি রেকর্ড, তার একদিন পরেই এই তোপ অধীররঞ্জন চৌধুরীর

এর আগে প্রস্তাবিত নাগরিকত্ত্ব সংশোধনী বিলের সমালোচনা করেছিলেন অধীররঞ্জন চৌধুরী

নয়াদিল্লি:

দেশের আর্থিক অধোগতির জন্য দায়ী কেন্দ্রীয় সরকারের দূরদৃষ্টি সম্পন্ন চিন্তাভাবনা, সোমবার লোকসভায় এমনটাই বললেন কংগ্রেস সাংসদ অধীরঞ্জন চৌধুরী (Adhir Ranjan Chowdhury), পাশাপাশি তিনি বিস্ময় প্রকাশ করলেন, নির্মলা সীতারামনকে (Nirmala Sitharaman) কেন নির্বলা (Nirbala) সীতারামন বলা হবে না। হিন্দি ভাষায় “নির্বলা” শব্দের অর্থ ক্ষমতাহীন, কংগ্রেস সাংসদ বোঝাতে চেয়েছেন, নিজের মন্ত্রকের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার  ব্যাপারে ক্ষমতাহীন অর্থমন্ত্রী। কংগ্রেসের লোকসভার নেতা অধীররঞ্জন চৌধুরীকে উদ্ধৃত করে সংবাদসংস্থা এএনআই জানিয়েছে, “আপনার জন্য আমাদের অগাধ শ্রদ্ধা রয়েছে, তবে মাঝেমধ্যে আমরা অবাক হয়ে যাই, অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামনকে নির্বলা সীতারামন বলা কি যথাযথ হবে না, এটা ভেবে। তিনি অর্থমন্ত্রকের প্রধান, অথচ আমরা জানিনা, অর্থনীতি নিয়ে আপনি আপনার নিজের মতামত প্রকাশ করতে পারেন, কিনা”।

মার্চের মধ্যেই বিক্রি করে দেওয়া হবে এয়ার ইন্ডিয়া ও ভারত পেট্রোলিয়াম: নির্মলা সীতারামন

গতমাসে প্রকাশিত সরকারি তথ্যে দেখা গিয়ছে, গড় অভ্যন্তরীণ উৎপাদন বা জিডিপি বৃদ্ধির হার গত জুলাই-সেপ্টেম্বর ত্রৈমাসিকে নেমে হয়েছে ৪.৫ শতাংশ, গত ছবছরে যা সর্বনিম্ন, যাতে উৎপাদনে ঘাটতি এবং বিনিয়োগ কমে যাওয়ার ইঙ্গিত মেলে। বিজেপি নেতৃত্বাধীন কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে “বিভাজনের রাজনীতি”-র অভিযোগ তুলেছে বিরোধী দল কংগ্রেস।

লোকসভার ভাষণে, বহরমপুরের সাংসদ আরও দাবি করেন, বিজেপি নেতৃত্বাধীন সরকারের বিশ্বাসযোগ্যতা নিয়ে সন্দেহ থাকায়, দেশে বিনিয়োগ করতে অনিচ্ছুক শিল্পপতিরা। উন্নয়নের পথে দেশকে ফিরিয়ে আনতে, সরকারকে, দ্রুত ব্যক্তিগত পরোক্ষ কর কমানোর আর্জি জানান তিনি।

"ওঁর চিকিৎসার প্রয়োজন": অধীর রঞ্জন চৌধুরীর মন্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় বিজেপি

এর আগে, প্রস্তাবিত নাগরিকত্ব বিলের সমালোচনা করতে গিয়ে সরাসরি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের প্রসঙ্গ তুলে ধরেন অধীররঞ্জন চৌধুরী। এএনআইকে তিনি বলেন, “আমি বলতে পারি, নরেন্দ্র মোদি এবং অমিত শাহ নিজেরাই অনুপ্রবেশকারী। তাঁদের বাড়ি গুজরাটে, অথচ তাঁরা দিল্লিতে রয়েছেন”।

 এর পাল্টা, কংগ্রেস নেত্রী সনিয়া গান্ধিকে ইটালিয়ান বলে মন্তব্য করে, বিজেপি নেতা সম্বিত পাত্র কংগ্রেস সাংসদ অধীররঞ্জন চৌধুরীর নিঃশর্ত ক্ষমা চাওয়ার দাবি তোলেন।

( ANI এর তথ্য সংযোজিত হয়েছে)

More News