2019'র লোকসভা নির্বাচনেও কংগ্রেস-জেডিএস জোট অক্ষুণ্ণ থাকবে

বেণুগোপাল এনডিটিভিকে জানিয়েছেন, এই দুই দল একে অপরের সঙ্গে হাত মিলিয়েছে, কারণ, তাদের মোট প্রাপ্ত ভোটের সংখ্যা সর্বমোট ভোটের 50 শতাংশের বেশি

জেডিএস এবং কংগ্রেস একটি জোট সমন্বয় এবং পর্যবেক্ষণ কমিটি গঠন করেছে

ব্যাঙ্গালুরু: 2019 ‘এর লোকসভা নির্বাচনেও কংগ্রেস এবং জেডিএস জোটশরিক থাকবে। কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রী জেডিএসের কুমারস্বামীর মন্ত্রিসভা গঠন নিয়ে দুই দলের মধ্যে চুক্তি সই হয়ে যাওয়ার পর কংগ্রেস নেতা কে সি বেণুগোপাল শুক্রবার এই ঘোষণা করেন। গুরুত্বপূর্ণ অর্থ মন্ত্রকের ভার পড়েছে জেডিএসের উপর। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক এবং বেঙ্গালুরু শহর উন্নয়ন মন্ত্রক গিয়েছে কংগ্রেসের কাছে। 

এই দুই জোটশরিক একইসঙ্গে একটি জোট সমন্বয় এবং নিরীক্ষণ কমিটি তৈরি করেছে, যারা মাসে অন্তত একবার জোট নিয়ে আলোচনার জন্য মুখোমুখি বসবে। দুই দল মিলে সরকার সামলানোর সঙ্গে সঙ্গেই তাদের সমস্ত কার্যকলাপ সংশ্লিষ্ট বোর্ডের কাছে জানাতে বাধ্য থাকবে। 

এই সমন্বয় কমিটির প্রধান এই রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী সিদ্দারামাইয়া। জেডিএসের দানিশ আলি হলেন আহ্বায়ক। 
এই দুই জোটশরিক সরকারের ম্যানিফেস্টোর উপর একটি কমন অ্যাজেন্ডা নিয়ে কাজ করবে।

বেণুগোপাল এনডিটিভিকে জানিয়েছেন, এই দুই দল একে অপরের সঙ্গে হাত মিলিয়েছে, কারণ, তাদের মোট প্রাপ্ত ভোটের সংখ্যা সর্বমোট ভোটের 50 শতাংশের বেশি।

বেঙ্গালুরু এবং নিউ দিল্লিতে এই দুই জোটশরিকের নেতাদের রূদ্ধদার বৈঠকের পর ঠিক হয় কার কাছে কোন মন্ত্রীত্ব যাবে। 

যদিও নতুন মন্ত্রীসভা নিয়ে কাজ শুরু করতে একটু সময় লাগবে কুমারস্বামীর। রাজ্যপাল ভাজুভাই ভালা তাঁকে জানিয়েছিন, কয়েকটি ব্যাপারে ব্যস্ত থাকার জন্য বুধবারের আগে শপথগ্রহণ অনুষ্ঠান করাতে পারবেন না তিনি।