This Article is From Aug 02, 2019

কাশ্মীর ছাড়তে বলা হয়েছে পুণ্যার্থীদের, হুমকি নিয়ে দুশ্চিন্তা

যত দ্রুত সম্ভব অমরনাথের পূর্ণার্থীদের কাশ্মীর ছাড়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। বাড়ানো হয়েছে উপত্যকার নিরাপত্তা (security)।

কাশ্মীর ছাড়তে বলা হয়েছে পুণ্যার্থীদের, হুমকি নিয়ে দুশ্চিন্তা

বৃহস্পতিবার কাশ্মীরে ২৫,০০০ এরও বেশী সেনা পাঠায় কেন্দ্র (ফাইল ছবি)

শ্রীনগর:

পাকিস্তানের মদতপুষ্ট জঙ্গি বাহিনী ও পাক সেনা অমরনাথ যাত্রায়(Amarnath Yatra) হামলা চালাতে পারে। যাত্রাপথে তল্লাশি চালিয়ে মিলেছে একটি ল্যান্ডমাইন। যাতে পাকিস্তান(pakistan) অর্ডিন্যান্স ফ্যাক্টরির ছাপ রয়েছে। এছাড়াও টেলিস্কপিক ভিউ-এর ব্যবস্থাসম্পন্ন একটি এম-২৪ আমেরিকান স্নাইপার রাইফেলও উদ্ধার হয়েছে। এরপরই পূর্ণার্থীদের (Amarnath Yatra) নিরপত্তা নিয়ে আপস করতে রাজি নয় সরকার ও নিরাপত্তাবাহিনী। যত দ্রুত সম্ভব অমরনাথের পূর্ণার্থীদের কাশ্মীর ছাড়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। বাড়ানো হয়েছে উপত্যকার নিরাপত্তা (security)। এদিকে রাজ্যে অশান্তির পরিবেশ বজায় রাখতেই কেন্দ্র এই কৌশল অবলম্বন করেছে বলে দাবি জম্মু-কাশ্মীরের দুই রাজনৈতিক দল পিডিপি(PDP) ও এনসি-র(NC)। 

কাশ্মীরের সাংবিধানিক সুরক্ষাকবচ ছিনিয়ে নিতেই কেন্দ্রের এই নৈরাজ্য সৃষ্টির চেষ্টা বলে দাবি করেছেন পিডিপি নেত্রী মেহেবুবা মুফতি। এনসি নেতা ও রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর প্রশ্ন ‘অমরনাথ যাত্রায় হামলার আশঙ্কা থাকলে কেন নিরাপত্তার নামে গুলমার্গের সহ হোটেল খালি করে দেওয়া হচ্ছে ?'

কাশ্মীরের সাংবিধানিক সুরক্ষাকবচ ছিনিয়ে নিতেই কেন্দ্রের এই নৈরাজ্য সৃষ্টির চেষ্টা বলে দাবি করেছেন পিডিপি নেত্রী মেহেবুবা মুফতি (Mehbooba Mufti) । গোটা বিষয়টিকেই ট্যউটারে ‘নারকীয়' বলে ব্যাখ্যা করেন তিনি। এনসি নেতা ও রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লার (Omar Abdullah) প্রশ্ন ‘অমরনাথ যাত্রায় হামলার আশঙ্কা থাকলে কেন নিরাপত্তার নামে গুলমার্গের সহ হোটেল খালি করে দেওয়া হচ্ছে ?' 

সরকারি নির্দেশের পরই গোটা জম্মু-কাশ্মীর (Jammu and Kashmir)জুড়ে আতঙ্কের পরিবেশ তৈরি হয়েছে। সন্ত্রাসবাদী হামলা হলে মারকীয় পরিস্থিতির সৃষ্টি হবে। তাদের অতীত অভিজ্ঞাতা বলছে এর ফলে কয়েক সপ্তাহ প্রায় দোকানপাট বন্ধ থাকবে। মিলবে না খাবার থেকে প্রয়োজনীয় সামগ্রী। যার জেরে এদিনের নির্দেশের পরই শ্রীনগরের রাস্তায় রাস্তায় প্রয়োজনীয় সামগ্রী আগাম মজুত করতে ভিড় জমিয়েছেন মানুষ। খাবারের সঙ্গে কিনে রাখছেন জ্বালানি। লম্বা লাইন এটিএমে। 

গোয়েন্দা বাহিনীর নিশ্চিত খবর ছিল পাকিস্তানের (Pakistan) মদতপুষ্ট জঙ্গিরা অমরনাথ (Amarnath) যাত্রাকে লক্ষ্য করে হামলা করতে চাইছে। শুক্রবার এই কথা জানাল ভারতীয় সেনা (Indian Army)। চিনার কর্পস কমান্ডার লেফটেন্যান্ট কেজিএস ধিঁলো বলেন, ‘‘গত তিন-চার দিন ধরেই গোয়েন্দা বাহিনীর পাকা খবর ছিল পাকিস্তানের মদতপুষ্ট জঙ্গি বাহিনী ও পাক সেনা অমরনাথ যাত্রায় হামলা করতে পরিকল্পনা করছে। এই খবরের ভিত্তিতে চিরুনি তল্লাশি চালানো হয়েছিল ওই পথে। আমরা তল্লাশি চালিয়ে বিপুল সাফল্য পেয়েছি।''

গত কয়েক দিন ধরেই এই রাজ্যে আধা সামরিক সেনা বাড়ানো হয়েছে বিপুল সংখ্যায়। এর থেকেই অনুমান করা হচ্ছিল কোনও জঙ্গি হানার আশঙ্কা রয়েছে কিনা। ১০০ কোম্পানি বা ১০,০০০ কেন্দ্রীয় বাহিনীকে (central troops)এক সপ্তাহ আগেই এই রাজ্যে আনা হয়। তাদের বিভিন্ন অঞ্চলে পোস্টিং করা হয়। বৃহস্পতিবার জানা যায়, আরও ২৫,০০০ সেনা মোতায়েন(central troops) এক করতে চলেছে সরকার। স্বাধীনতা দিবসের সুরক্ষার কতা মাথায় রেকেই এই পদক্ষেপ বলে মনে করা গচ্ছিল। কেন্দ্র অবশ্য সেনা মোতায়েনকে নিরবিচ্ছিন্ন একটি প্রক্রিয়া বলে দাবি করে। সাম্প্রতিক কালে চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে পুলওয়ামা হামলার (Pulwama terror attack ) সময় এত আধা সামরিক বাহিনী কাশ্মীরে মোতায়েন করা হয়েছিল।