This Article is From Dec 21, 2019

নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদে "জনগণের কণ্ঠস্বর উপেক্ষা করবেন না", বললেন মুখ্যমন্ত্রী

Citizenship Amendment Act: জাতীয়তাবাদ নিয়ে কথা বলার কোনও অধিকার নেই বিজেপির, বললেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদে

West Bengal: মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, বিজেপি একের পর এক রাজনৈতিক কর্মসূচি চাপিয়ে দিচ্ছে

হাইলাইটস

  • সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন প্রত্যাহারের জন্যে কেন্দ্রের প্রতি বার্তা মমতার
  • "জনগণের কণ্ঠস্বরকে উপেক্ষা করবেন না", বললেন তৃণমূল নেত্রী
  • এনআরসিও প্রত্যাহার করতে হবে, বার্তা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের
কলকাতা:

বিজেপি একের পর এক রাজনৈতিক কর্মসূচি জোর করে চাপিয়ে দিচ্ছে, সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন (Citizenship Amendment Act) নিয়ে গেরুয়া দলকে তীব্র শ্লেষে বিঁধলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বিজেপি মনে করছে ভারতীয়রা শান্তিকামী হওয়ায় কোনও প্রতিবাদ (Citizenship Amendment Act Protest)করবে না, কিন্তু তা হওয়ার নয়, তোপ দাগেন তৃণমূল নেত্রী (Mamata Banerjee)। পাশাপাশি দেশের স্বাধীনতা অর্জনের লড়াইয়ের কথা মনে করিয়ে দিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, জাতীয়তাবাদ নিয়ে কথা বলার কোনও অধিকার নেই বিজেপির। ১৯৪৭ সালে দেশ যখন স্বাধীনতা পেয়েছিল তখন বিজেপি কোথায় ছিল বলে কটাক্ষ প্রশ্নও ছুঁড়ে দেন তিনি।

"যদি আপনারা সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের মতো কালো আইন প্রত্যাহার না করেন, আপনারা যদি গোটা দেশে এনআরসি চালু করা সম্পর্কিত সিদ্ধান্তের বিষয়ে পুনর্বিবেচনা না করেন তবে আপনাদের সরে যেতে হবে। জনগণের কণ্ঠস্বরকে উপেক্ষা করবেন না", কলকাতার পার্ক সার্কাস এলাকায় আয়োজিত একটি সমাবেশে কেন্দ্রীয় সরকারকে রীতিমতো হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন তৃণমূল কংগ্রেস সুপ্রিমো।

"দেশ ও জনগণের প্রতি সম্পূর্ণ বিশ্বাস আছে, নাগরিকত্ব আইন নিয়ে জনমত সমীক্ষা হোক": প্রস্তাব মুখ্যমন্ত্রীর

"বিজেপি একের পর এক রাজনৈতিক কর্মসূচি চাপিয়ে দিচ্ছে যে এই ভেবে যে ভারতীয়রা শান্তিপ্রিয়... আর এই বিষয়টিকে কাজে লাগিয়েই তাঁরা ক্ষমতায় থাকবে, কিন্তু বাস্তব ক্ষেত্রে তা কখনোই হবে না", বলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী আরও বলেন যে, বিজেপির "বিভাজনমূলক রাজনীতি" করার কারণে পুরো দেশ আগুনে পুড়ছে, দিল্লি, উত্তরপ্রদেশ, অসম এবং ত্রিপুরার মতো রাজ্যগুলি অগ্নিগর্ভ হয়ে উঠেছে। "এমন পরিস্থিতির জন্য কে দায়ী?", দিল্লিতে ক্ষমতাসীন বিজেপি সরকারকে লক্ষ্য করে প্রশ্ন ছুঁড়ে দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

বৈচিত্রের মধ্যেই ঐক্যই ভারতের শক্তি, বললেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

এর আগে গত বৃহস্পতিবার তিনি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে লক্ষ্য করে একটি প্রতিবাদ সভা থেকে বলেন, "আসুন আমরা একটি ভোট নিই। আপনারা সংখ্যাগরিষ্ঠ হওয়ায় আপনারা যা ইচ্ছে তাই করতে পারেন না। আপনারা সমাজের সমস্ত স্তরকে সন্ত্রস্ত করে রেখেছেন, সব জায়গায় ভয় ছড়িয়েছেন।"

সংসদে পাস হওয়ার পর রাষ্ট্রপতির অনুমোদন প্রাপ্ত সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনে বলা হয়েছে, পাকিস্তান, আফগানিস্তান ও বাংলাদেশ থেকে ২০১৪ সালের মধ্যে যে সব অমুসলিম মানুষরা ধর্মীয় নিপীড়নের শিকার হয়ে ভারতে আশ্রয় নিয়েছেন তাঁরা এবার ভারতীয় নাগরিকত্বের জন্য আবেদন করতে পারবেন। 

শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদ করার আবেদন জানালেন মুখ্যমন্ত্রী, দেখুন ভিডিও: