This Article is From Dec 12, 2019

নাগরিকত্ব বিলের বিরুদ্ধে বিক্ষোভে অগ্নিগর্ভ অসম, গুয়াহাটিতে সেনা টহলদারি

Citizenship Amendment Bill: নাগরিকত্ব বিলের ফলে বিঘ্নিত হবে অসম চুক্তি, তাই প্রতিবাদে পথে নেমেছেন হাজার হাজার বিক্ষোভকারী, রাজ্য জুড়ে উত্তেজনা

নাগরিকত্ব বিলের বিরুদ্ধে বিক্ষোভে অগ্নিগর্ভ অসম, গুয়াহাটিতে সেনা টহলদারি

Citizenship (Amendment) Bill Protest: বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে অসম

হাইলাইটস

  • নাগরিকত্ব বিলের প্রতিবাদে বিক্ষোভে অগ্নিগর্ভ অসম
  • গুয়াহাটিতে অনির্দিষ্টকালের জন্য কারফিউ জারি করা হয়েছে
  • রাজ্যের দশটি জেলায় মোবাইল ইন্টারনেট পরিষেবা স্থগিত
গুয়াহাটি:

বিক্ষোভের আগুনে জ্বলছে অসম, নাগরিকত্ব বিলের প্রতিবাদে রাজ্য (Assam) জুড়ে প্রতিবাদ বিক্ষোভে সামিল হয়েছেন হাজার হাজার মানুষ। বুধবারও অগ্নিগর্ভ হয়ে ওঠে সেখানকার পরিস্থিতি। বিলের প্রতিবাদে করা আন্দোলন যেন মুহূর্তে সহিংস রূপ পায়, বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ বাঁধে। পরিস্থিতি যা দাঁড়িয়েছে তাতে মনে হচ্ছে যেন বারুদের গোলার উপর অবস্থান করছে ওই রাজ্য। ইতিমধ্যেই অসমের চারটি অঞ্চলে মোতায়েন করা হয়েছে সেনাবাহিনী, এলাকা জুড়ে টহল দিচ্ছে তাঁরা (Army)। এদিকে উত্তর-পূর্বের এই বিক্ষোভের মধ্যেই বুধবার রাজ্যসভাতেও পাস হয়ে যায় নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল। সংসদের উচ্চকক্ষে ওই বিলের (Citizenship Amendment Bill) পক্ষে ভোট পড়ে ১২৫ টি, এবং বিরুদ্ধে ভোট পড়ে ৯৯টি, ফলে পাস হয়ে যায় সেটি। এর আগে সোমবার লোকসভাতেও ভোটাভুটিতে পাস হয় নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলটি।

ভারতীয় সেনাবাহিনীর জনসংযোগ আধিকারিক লেফটেন্যান্ট কর্নেল পি খোঙ্গসাই সংবাদসংস্থা পিটিআইকে জানিয়েছেন যে গুয়াহাটি শহরে দুই কলাম সেনা মোতায়েন করা হয়েছে এবং তাঁরা এলাকায় টহল দিচ্ছে। পিটিআই আরও জানিয়েছে, তিনসুকিয়া, ডিব্রুগড় ও জোড়হাট জেলাতেও মোতায়েন করা হয়েছে সেনা।

অসমের বৃহত্তম শহর ও বিক্ষোভের কেন্দ্রস্থল গুয়াহাটিতে অনির্দিষ্টকালের জন্য কারফিউ জারি করা হয়েছে এবং রাজ্যের দশটি জেলায় মোবাইল ইন্টারনেট পরিষেবা স্থগিত করা হয়েছে। অসমের মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনোওয়াল এবং কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রামেশ্বর তেলির বাসভবনকে লক্ষ্য করে বিক্ষোভকারীরা পাথর ছোঁড়ে, এরপরেই আঁটোসাঁটো করা হয় ডিব্রুগড়ের নিরাপত্তা ব্যবস্থা। লক্ষ্মীনগর এলাকায় মুখ্যমন্ত্রীর বাড়িতে পাথর ছোঁড়ার পাশাপাশি বিক্ষোভকারীরা দুলিয়াজনে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর বাড়িতেও ভাঙচুর চালায়।

"আপনাদের অধিকার কেউ কেড়ে নিতে পারবে না", নাগরিকত্ব বিল বিষয়ে অসমকে আশ্বাস প্রধানমন্ত্রীর

বৃহস্পতিবার সকালেও অসমের মানুষজন গুয়াহাটিতে কারফিউকে অমান্য করে পথে প্রতিবাদ করতে বেরিয়ে পড়েন।

বিতর্কিত নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের বিরুদ্ধে কয়েক হাজার মানুষ অসমের রাজপথে নেমে আসেন। তাঁদের দাবি অসমের ছাত্ররা ছয় বছর ধরে সহিংস আন্দোলন করার পরে যে অসম চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়, নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের প্রভাবে সেই চুক্তি বিঘ্নিত হবে।

তীব্র প্রতিবাদ বিক্ষোভের কারণে অসম থেকে যাত্রা শুরু করা অনেক ট্রেনকেই বাতিল করে দিতে হয়েছে বা সময়সূচি বদলাতে হয়েছে অথবা যাত্রাপথ পরিবর্তিত করা হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনোয়ালের নিজের শহর চিবুয়ার একটি রেলস্টেশনে গভীর রাতে আগুন ধরিয়ে দেয় কিছু বিক্ষোভকারী। তিনসুকিয়া জেলার পানিটোলা রেলওয়ে স্টেশনও আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়েছে, জানিয়েছেন উত্তর-পূর্ব সীমান্ত রেলওয়ের মুখপাত্র।

এবার সুপ্রিম কোর্টে নাগরিকত্ব বিল, চ্যালেঞ্জ করে শীর্ষ আদালতে মুসলিম সংস্থা

এদিকে অসমের আঁচ পড়েছে প্রতিবেশী রাজ্য ত্রিপুরাতেও। সেখানেও নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের প্রতিবাদে যেভাবে বিক্ষোভ আছড়ে পড়ে তা সামাল দিতে আধা সামরিক বাহিনী তথা অসম রাইফেলসের সেনাকে কাজে লাগানো হয়েছে। সেনাবাহিনীর দুটি কলাম মোতায়েন করা হয়েছে ত্রিপুরাতেও।

মঙ্গলবার দুপুর ২ টা থেকে ত্রিপুরায় ইন্টারনেট পরিষেবা আগামী ৪৮ ঘণ্টার জন্য স্থগিত রাখা হয়েছে। এদিকে, বিরোধী দল কংগ্রেস আজ (বৃহস্পতিবার) ত্রিপুরায় বনধের ডাক দিয়েছে।

দেখুন এই ভিডিও: