"কঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে দেশ": নাগরিকত্ব আইন প্রসঙ্গে বললেন প্রধান বিচারপতি

Citizenship Act: সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনকে "সাংবিধানিক" ঘোষণা করার আবেদনে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হন এক ব্যক্তি

হাইলাইটস

  • নাগরিকত্ব আইনকে সাংবিধানিক ঘোষণার দাবি
  • সাংবিধানিক ঘোষণার দাবিতে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ এক আইনজীবী
  • পরিস্থিতি শান্ত না হলে এই বিষয়ে কোনও শুনানি নয়, সাফ জানালো সুপ্রিম কোর্ট
নয়া দিল্লি:

বর্তমানে কঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে চলেছে দেশ, এই সময়ে যে কোনও "প্রচেষ্টা শান্তির জন্য হওয়া উচিত", এমনটাই মনে করেন সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি (Chief Justice of India) এসএ বোবদে। সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনকে (Citizenship Act) "সাংবিধানিক" ঘোষণা করার আবেদনে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হন এক ব্যক্তি। সেই আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতেই দেশের শীর্ষ আদালতের প্রধান বিচারপতি বলেন, "এই পরিস্থিতিতে এ জাতীয় আবেদনগুলি কোনও উপকারে আসে না।" সুপ্রিম কোর্ট আরও বলেছে যে দেশ জুড়ে বর্তমানে এই আইনের বিরোধিতায় যে সহিংসতা চলছে তা বন্ধ হওয়ার পরেই সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন (CAA) এর বৈধতাকে চ্যালেঞ্জ করে করা কোনও আবেদনের শুনানি শুরু করবে, তার আগে নয়। নাগরিকত্ব আইনের বৈধতা নিয়ে করা মামলার আবেদনকারী তথা আইনজীবী বিনীত ধনদা বলেন, সুপ্রিম কোর্টকে অবশ্যই সিএএকে "সাংবিধানিক" ঘোষণা করতে হবে এবং "যে সব সমাজকর্মী, পড়ুয়া এবং সংবাদমাধ্যমগুলি মিথ্যা গুজব ছড়াচ্ছে" তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে।

"আমরা এই পরিস্থিতিতে কীভাবে ঘোষণা করতে পারি যে সংসদে পাস করা আইনটি সাংবিধানিক? সবসময়েই সাংবিধানিকতা একটা অনুমেয় বিষয়। আপনি নিজে একজন আইনের ছাত্র, অতএব আপনার তো এই বিষয়টি জানা উচিত", আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে প্রতিক্রিয়া দেন দেশের প্রধান বিচারপতি।

CAA নিয়ে বক্তব্য রাখতে আসা বিজেপি সাংসদকে ৬ ঘণ্টা আটকে রাখল বিশ্বভারতীর পড়ুয়ারা

"আদালতের কাজ হল একটি আইনের বৈধতা যাচাই করা এবং সেটি সাংবিধানিক কিনা তা ঘোষণা করা নয়," বলেন সুপ্রিম কোর্টের তিন বিচারপতির বেঞ্চের অন্তর্ভুক্ত অন্য দুই বিচারপতি বি আর গাওয়াই এবং সূর্যকান্ত।

"দেশ এখন সঙ্কটের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। এখন শান্তি বজায় রাখার জন্য চেষ্টা করা উচিত। আর এই ধরণের আবেদনগুলি সে বিষয়ে মোটেই সাহায্য করবে না", কঠিন স্বরে বলেন প্রধান বিচারপতি বোবদে।

"দেশে এখনও এ নিয়ে হিংসার পরিস্থিতি বজায় রয়েছে", বলেন সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতিরা।

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনটি সংবিধানের চেতনাবিরোধী নয় এবং আইনটি কোনওভাবেই ভারতের কোনও নাগরিকের বিরুদ্ধে যাবে না, এই বিষয়টি যাতে কেন্দ্র স্পষ্ট করে জানায় সে বিষয়ে আদালতকে নির্দেশ দেওয়ার কথাও বলেন আবেদনকারী।

“ফোন নম্বর পেয়েছেন? ডায়াল করুন”, নাগরিকত্ব আইন অভিযান নিয়ে বললেন অমিত শাহ

নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে সারা দেশে বিক্ষোভ চলছে। বিশেষত কলেজ ক্যাম্পাসে এই আইনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে। ভারতে এই প্রথমবার নাগরিকত্ব আইনে ধর্মকে নাগরিক হওয়ার মাপকাঠি করা হয়েছে। সরকারের দাবি, এই আইনের ফলে, ২০১৫ এর আগে, ধর্মীয় নিপীড়নের শিকার হয়ে ভারতে চলে আসা তিন মুসলিম অধ্যুষিত দেশের সংখ্যালঘুদের নাগরিকত্ব দেওয়ার পথ সহজ হবে । কিন্তু সমালোচকদের দাবি, এই আইনটি মুসলিমদের বিরুদ্ধে বিভাজনমূলক এবং তা সংবিধানের ধর্মনিরপেক্ষতাকে লঙ্ঘন করে।

Listen to the latest songs, only on JioSaavn.com