This Article is From Mar 06, 2020

সিএএ প্রতিবাদের নামে হিংসায় অভিযুক্তদের নাম-ঠিকানা দিয়ে হোর্ডিং দিল যোগী সরকার

CAA Protest: লখনউয়ের গুরুত্বপূর্ণ স্থানে টাঙানো হোর্ডিংয়ে যারা প্রতিবাদের নামে হিংসা ছড়িয়েছে, সরকারি সম্পত্তি ভাঙচুর করেছে তাদের ছবি-নাম-ঠিকানা রয়েছে

সিএএ প্রতিবাদের নামে হিংসায় অভিযুক্তদের নাম-ঠিকানা দিয়ে হোর্ডিং দিল যোগী সরকার

Lucknow: উত্তরপ্রদেশের বিভিন্ন জায়গায় সিএএ বিক্ষোভকারীদের নাম-ঠিকানা ছবি সহ পড়ল হোর্ডিং

হাইলাইটস

  • নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদের নামে ভাঙচুর-হিংসা
  • অভিযুক্তদের নাম-ঠিকানা-ছবি সহ এবার হোর্ডিং টাঙাল উত্তরপ্রদেশ সরকার
  • যোগী আদিত্যনাথের কার্যালয় থেকেই হোর্ডিং টাঙানোর আদেশ এসেছে : সূত্র
লখনউ:

এবার সিএএ হিংসার সঙ্গে জড়িতদের নামে লখনউয়ের (Lucknow) বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় হোর্ডিং টাঙালো যোগী সরকার। উত্তরপ্রদেশে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের (CAA) বিরুদ্ধে বিক্ষোভের নামে আসলে যাঁরা হিংসা ছড়িয়েছে, সরকার বা জনগণের সম্পত্তি ভাঙচুর করেছে তাঁদের ছবি সহ নাম-ঠিকানা দিয়ে হোর্ডিংগুলি (Lucknow Hoardings) ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছে। সেই সঙ্গে ওই হোর্ডিংগুলিতে বলা হয়েছে অভিযুক্ত ব্যক্তিদের সরকারি সম্পত্তির ক্ষয়ক্ষতির জন্যে জরিমানা দিতে হবে। গত বছরের ডিসেম্বর মাসে বিতর্কিত নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে লখনউতে প্রতিবাদ-বিক্ষোভ (CAA Protest) হয়, পরে সেই বিক্ষোভই হিংসায় পরিণত হয়। ওই হোর্ডিংয়ে বলা হয়েছে যে, অভিযুক্ত ব্যক্তিরা যদি জরিমানা না দেয় তবে তাঁদের সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করা হবে। তবে এটা এখনও স্পষ্ট নয় যে ইতিমধ্যেই যখন ওই ব্যক্তিদের ব্যক্তিগত পর্যায়ে নোটিস দেওয়া হয়েছে, তাহলে রাজ্য সরকার আবার কেন এ জাতীয় হোর্ডিং লাগালো। 

সিএএ-হিংসা প্রসঙ্গে যোগী আদিত্যনাথের ‘‘মরার ইচ্ছে'' মন্তব্য ঘিরে বিতর্ক

হোর্ডিংয়ে যাঁদের ছবি রয়েছে তাঁদের মধ্যে রয়েছেন কর্মী ও রাজনীতিবিদ সদফ জাফর, আইনজীবী মহম্মদ শোয়েব, নাট্যব্যক্তিত্ব দীপক কবির, প্রাক্তন আইপিএস এসআর দারাপুরীও। উত্তরপ্রদেশ সরকার সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করার ডিক্রি নিয়েই আইনি লড়াই লড়বে বলে জানা গেছে।

r40eqfoo

ওই অভিযুক্তদের প্রথমে গ্রেফতার করা হলেও পরে আদালত তাঁদের জামিন দেয়। জামিন দেওয়ার সময় আদালত যুক্তি দিয়েছে যে অভিযুক্তদের অনেকের বিরুদ্ধেই অভিযোগ প্রমাণ করার মতো যথাযথ সাক্ষ্য সরবরাহ করতে পারেনি পুলিশ। গত ফেব্রুয়ারি মাসেও এলাহাবাদ হাইকোর্ট কানপুরের এক ব্যক্তির সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করার সরকারি আদেশে স্থগিতাদেশ দেয়।

"মুসলিমদের উপর আক্রমণ বন্ধ করুক ভারত, না হলে...", হুমকি ইরানের নেতার

একটি সূত্র জানিয়েছে যে লখনউয়ে এ জাতীয় হোর্ডিং লাগানোর আদেশ সরাসরি মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের কার্যালয় থেকে দেওয়া হয়েছে। ডিসেম্বর মাসে এই হিংসার ঘটনার পরে কড়া হুঁশিয়ারি দেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী। তিনি (Yogi Adityanath) বলেন, "আমরা এই ধরণের ঘটনার কঠোরভাবে মোকাবিলা করব। আমি নিজে এই ঘটনা দেখেছি। সহিংসতায় জড়িতদের সম্পদ বাজেয়াপ্ত করা হবে। ইতিমধ্যেই ভিডিওগ্রাফি এবং সিসিটিভির ফুটেজ দেখে অনেককে চিহ্নিত করা হয়েছে। আমরা তাদের সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করব এবং এই জাতীয় মানুষদের চরম শিক্ষা দেবো"।