৩৭০ ধারা ভারত ও কাশ্মীরের দেওয়াল ছিল ৩৭০ ধারা, এটা ঘুচবে: অমিত শাহ

অমিত শাহ (Amit Shah) বলেন, কাশ্মীরকে রাষ্ট্রসংঘে নিয়ে গিয়েছিলেন নেহেরু, এবং তিনি এটা না করলে পাক অধিকৃত কাশ্মীর থাকত না।

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS

অমিত শাহ (AMIT SHAH) বলেন, “কাশ্মীর নিয়ে আমরা যতটা প্রয়োজন আলোচনা করেছি”


নয়াদিল্লি: 

হাইলাইটস

  1. জম্মু কাশ্মীরকে ভাগ করার বিলটি দ্রুত আইনে পরিণত হবে
  2. কাশ্মীর নিয়ে সিদ্ধান্তের জন্য প্রধানমন্ত্রী স্মরণীয় থাকবেন: অমিত শাহ
  3. তিনি বলেন, “কাশ্মীরের বাসিন্দারা আমাদের, আলিঙ্গন করতে চাই”

৩৭০ নম্বর (Article 370) ধারা ভারত ও কাশ্মীরকে ভাগ করেছিল এবং এটা চিরকালের জন্য চলে যাবে। জম্মু কাশ্মীরে বিশেষ মর্যাদা বা ৩৭০ নম্বর (Article 370) ধারা প্রত্যাহার করা এবং তাকে দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে ভাগ করা নিয়ে লোকসভায় বিতর্কের জবাবে এমনই বলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ (Amit Shah)। সংসদের দুই কক্ষেই পাশ হওয়ার পর, বিলটি খুব দ্রুত আইনে পরিণত হবে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “৩৭০ ধারা থাকায় মানুষের মনে সন্হে তৈরি হয়েছে, যে কাশ্মীর ভারতের অংশ”। কংগ্রেস নেতা মনীশ তিওয়ারিকে দেওয়া জবাবে, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী (Amit Shah) বলেন, “সেই সময় কালো দিন ছিল। এখন নয়। জরুরি অবস্থার সময়, আপনারা গোটা দেশকে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে পরিণত করেছিলেন। সুতরাং আমাদের শেখাতে আসবেন না”।

দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে ভাগ হচ্ছে জম্মু ও কাশ্মীর

৩৭০ ধারা (Article 370) অভ্যন্তরীণ বিষয় ছিল না বলে মন্তব্য করে, এদিন লোকসভায় দলকে অস্বস্তিতে ফেলে দেন কংগ্রেসের লোকসভার নেতা অধীররঞ্জন চৌধুরী। তাঁর মন্তব্যের জবাবে অমিত শাহ (Amit Shah) বলেন, কাশ্মীরকে রাষ্ট্রসংঘে নিয়ে গিয়েছিলেন নেহেরু, এবং তিনি এটা না করলে পাক অধিকৃত কাশ্মীর থাকত না।তিনি বলেন, “কাশ্মীরকে কে রাষ্ট্রসংঘে নিয়ে গিয়েছিলেন, পণ্ডিত জওহরলাল নেহেরু নিয়েছিলেন ? এই সিদ্ধান্ত ভুল না ঠিক, ইতিহাস তার বিচার করবে, কিন্তু যখনই এটা নিয়ে আলোচনা হবে, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে  মনে রাখবেন সাধারণ মানুষ”। সেই সময় লোকসভায় উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রী।

‘‘যেভাবে ৩৭০ ধারা বাতিল হল তা সাংবিধানিক অবৈধতা'': ডেরেক ও'ব্রায়েন

অমিত শাহ (Amit Shah) বলেন, “প্রধানমন্ত্রী বা বিজেপি, কেউই পাক অধিকৃত কাশ্মীর ছাড়তে পারবেন না। পাক অধিকৃত কাশ্মীর নিয়ে আমাদের দাবি আগের মতোই শক্তিশালী থাকবে”। বিচ্ছিন্নতাবাদীরা পাকিস্তানের প্রতি সহানুভুতিশীল বলে মন্তব্য করে তাদের সঙ্গে আলোচনার সম্ভাবনা উড়িয়ে দেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। তিনি বলেন, “আলোচনা চালিয়ে যাওয়ার কী প্রয়োজন? আমরা হুরিয়তের সঙ্গে কথা বলতে চাই না, তবে কাশ্মীরের বাসিন্দাদের সঙ্গে আমরা কথা বলতে রাজি”।

তাঁর বক্তব্যের পরেই লোকসভায় বিলটি পাশ হয়ে যায়। সোমবার, এই বিলটি রাজ্যসভায় পাশ হয়ে যায়। সেখানে সরকার সংখ্যালঘু, তবে অনেক দল ওয়াক আউট করে এবং অনেকে সরকারের পক্ষে যায়। মায়াবতীর বহুজন সমাজ পার্টি, নবীন পট্টনায়েকের বিজু জনতা দল, জগনমোহন রেড্ডির ওয়াইএসআর কংগ্রেস, চন্দ্রবাবু নাইডুর তেলেগু দেশম পার্টি এবং অরবিন্দ কেজরিওয়ালের আম আদমি পার্টি সরকারের পক্ষ নেয়।

উন্নতির লক্ষ্যেই এই সিদ্ধান্ত, ৩৭০ ধারা বাতিলে ভারতকে সমর্থন জানাল সংযুক্ত আরব আমিরশাহি

এআইএমএম নেতা আসাউদ্দিন ওয়েসি মন্তব্য করেন, সরকার একটি বড় ভুল করতে চলেছে। তাঁর জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ (Amit Shah) বলেন, “এটা ঐতিহাসিক ভুল নয়...আমরা একটি ঐতিহাসিক ভুল সংশোধন করছি”।

আশ্বাস দিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ (Amit Shah) বলেন, “উপত্যকার বাসিন্দারা আমাদের। আমরা তাঁদের আলিঙ্গন করতে চাই, কারণ তাঁরা সবচেয়ে বেশী বলিদান দিয়েছেন এবং বেশী কষ্ট পেয়েছেন। শুধুমাত্র ৩৭০ এর কারণে  ১৯৮৯ থেকে ৪১,৫০০ মানুষের মৃত্যু হয়েছে...৩৭০ ধারা থেকে আমরা কী পেয়েছি? এটা আমাদের দিয়েছে বেকারত্ত্ব, এবং শিক্ষা থেকে দূরে সরিয়ে নিয়েছে। এতে শুধুমাত্র পাকিস্তান তাড়িত বিচ্ছিন্নতাবাদকে প্রশয় দিয়েছে”।



পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................