পাঁচতারা হোটেলে নেতার ছেলের বন্দুক নিয়ে হম্বিতম্বি, দেখুন ভিডিও

দশ সেকেন্ডের ক্লিপটি শেষ হওয়ার সময় দেখা যাচ্ছে আশিস পান্ডেকে টেনে বের করে আনছেন নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা রক্ষীরা

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS

আশিস পান্ডেকে গ্রেফতার করার জন্য অনুসন্ধান চালাচ্ছে দিল্লি পুলিশ।


নিউ দিল্লি: 

হাইলাইটস

  1. পাঁচতারা হোটেলে বন্দুক নিয়ে এক ব্যক্তির হম্বিতম্বি এক মহিলার ওপর
  2. জানা গিয়েছে ওই ব্যক্তির নাম আশিস পান্ডে, প্রাক্তন বিএসপি সাংসদের ছেলে
  3. অস্ত্র আইনের অধীনে মামলা হয়েছে তাঁর নামে

প্রাক্তন সাংসদের ছেলে হাতে বন্দুক নিয়ে ভয় দেখালেন এক মহিলাকে। দিল্লির পাঁচতারা হোটেলের এই ঘটনার পর চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে গোটা এলাকা জুড়ে। তথাকথিত ‘ভিআইপি কালচার’ যে কী ভয়াবহ ব্যাপার হতে পারে, ক্ষমতার নগ্ন প্রদর্শনও যে হতে পারে কী প্রবল ভয়াবহ নিদর্শন, তার প্রমাণ এই ঘটনা। উত্তরপ্রদেশের বিএসপি নেতা রাকেশ পান্ডের ছেলে আশিস পান্ডে ঘটিয়েছেন এই কাণ্ডটি। মোবাইল ফোনে তোলা দশ সেকেন্ডের ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে ঠিক কীভাবে নিজের হাতে বন্দুক নিয়ে পাঁচতারা হোটেলে দাঁড়িয়ে সংশ্লিষ্ট মহিলাকে ভয় দেখাচ্ছেন আশিস। অভিযোগ, আশিস মহিলাদের বাথরুমে ঢুকতে চাইলে ওই মহিলা বাধা দেন।

ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে, আশিস পান্ডের বান্ধবী এবং নিরাপত্তারক্ষীরা তাঁকে শান্ত করার চেষ্টা করছেন।

ওই দশ সেকেন্ডের ক্লিপটি শেষ হওয়ার সময় দেখা যাচ্ছে আশিস পান্ডেকে টেনে বের করে আনছেন নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা রক্ষীরা। আর, তিনি ক্রমাগত অশ্রাব্য গালিগালাজ করে চলেছেন হাতে বন্দুক নিয়ে। তাঁর সঙ্গে থাকা মহিলারাও ওই মহিলার ওপর চিৎকার চেঁচামেচি করছিলেন। এমনটাই দেখা যাচ্ছে ওই ভিডিওটিতে।

দিল্লি পুলিশ ইতিমধ্যেই অস্ত্র আইনে একটি মামলা দায়ের করেছে আশিস পান্ডের বিরুদ্ধে। এবং, জানিয়েছে, খুব তাড়াতাড়িই গ্রেফতার করা হবে তাঁকে।

লখনউয়ের বাসিন্দা আশিস পান্ডে মাঝেমাঝেই বন্ধুদের নিয়ে দিল্লির পাঁচতারা হোটেলে মজলিশ বসান।

এই ঘটনার ভিডিও প্রকাশ্যে আসার পর সোশ্যাল মিডিয়াতে ছিছিক্কার পড়ে গিয়েছে।

 
 

 



পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................