মিলখার জায়গায় ফারহানের ছবি, 'ওটা তো সরকারের বই নয়', বললেন পার্থ

পার্থ চট্টোপাধ্যায় সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে বলেন, “কেউ যদি আনুষ্ঠানিকভাবে সংশ্লিষ্ট ঘটনাটি নিয়ে সরকারের দারস্থ হন, তবে সরকার অবশ্যই এই ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে”।

মিলখার জায়গায় ফারহানের ছবি, 'ওটা তো সরকারের বই নয়', বললেন পার্থ
কলকাতা:

বাংলাভাষার স্কুলপাঠ্য বইতে মিলখা সিং-এর ছবির জায়গায় বলিউড তারকা ও পরিচালক ফারহান আখতারের ছবি দিয়ে দেওয়া নিয়ে গত কয়েকদিন ধরেই জলঘোলা হয়েছে বিস্তর। গতকাল রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় ঘটনাটি নিয়ে মুখ খোলেন। তিনি বলেন, যে বইতে মিলখা সিং-এর বদলে ফারহান আখতারের ছবি ছাপা নিয়ে এত বিতর্ক হচ্ছে, সেই বইটি রাজ্য সরকার প্রকাশ করেনি এবং সেটি টেক্সট বইও নয়। যদিও, গতকাল বিভাগীয় কর্মকর্তা ও প্রকাশকদের সঙ্গে বৈঠকের পর পার্থ চট্টোপাধ্যায় সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে বলেন, “কেউ যদি আনুষ্ঠানিকভাবে সংশ্লিষ্ট ঘটনাটি নিয়ে সরকারের দারস্থ হন, তবে সরকার অবশ্যই এই ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে”।

তিনি আরও বলেন, “এই বইটি সরকার দ্বারা প্রকাশিত হয়নি। তাছাড়া, এই বইটি টেক্সট বইও নয়। দুর্ভাগ্যজনক হলেও সত্য যে, এই ধরনের বইতে এমন কিছু ভুল থেকেই যেতে পারে। সরকার এই ব্যাপারে নিজে থেকে আগ বাড়িয়ে কোনও পদক্ষেপ নেবে না। তবে, কেউ যদি সরকারিভাবে অভিযোগ জানান, তবে নিশ্চয়ই এই ব্যাপারটি খতিয়ে দেখা হবে”।

শিক্ষা দফতরের এক কর্মকর্তা বলেন, পার্থ চট্টোপাধ্যায় সহ শিক্ষা দফতরের অন্যান্য পদস্থ কর্মকর্তাদের নিয়ে হওয়া গতকালের ওই বৈঠকে সংশ্লিষ্ট বইটি যে প্রকাশকের, তাদের সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে। যদিও, প্রকাশক অনুপ দাস ব্যাপারটিকে ‘গুরুতর’ বলে স্বীকার করে নিয়ে ত্রুটি সংশোধনের প্রতিশ্রুতি দেন বলেও জানা গিয়েছে।

মিলখা সিং-এর বদলে ফারহান আখতারের ছবি দেওয়া বইটির ওই পাতাটি সোশ্যাল মিডিয়াতে আসার সঙ্গে সঙ্গেই ভাইরাল হয়ে যায়। তার রেশ রাজ্য থেকে পৌঁছে যায় বলিউড তারকার কাছেও। তিনি ওই ভুলটি সংশোধন করার অনুরোধ নিয়ে রাজ্য সরকারের উদ্দেশে একটি টুইটও করেন। প্রসঙ্গত, মিলখা সিং-এর বায়োপিক ‘ভাগ মিলখা ভাগ’-এ অভিনয় করেছিলেন চুয়াল্লিশ বছরের এই তারকা। টুইটারের মাধ্যমে ওই বইটির নির্দিষ্ট পাতাটির ছবি দিয়ে তিনি জানিয়ে দেন আসল ক্রীড়াবিদের বদলে বইটিতে কীভাবে তাঁর ছবি ছাপা হয়ে গিয়েছে। টুইটারের ওই পোস্টে তিনি রাজ্যসভার তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়ানকেও ট্যাগ করে দিয়েছিলেন।  

More News