বিমানে সংরক্ষিত আসন না পেয়ে গোঁসা প্রজ্ঞা ঠাকুরের! কারণ দর্শিয়ে অভিযোগ খণ্ডন স্পাইসজেটের

স্পাইসজেট আরও বলেছে, "প্রজ্ঞা ঠাকুর আমাদের হুইলচেয়ার সংরক্ষিত করেননি। যেহেতু নিজস্ব হুইলচেয়ারে এসেছিলেন তাই আমাদের কর্মীরা এবিষয়ে অন্ধকারে ছিলেন যে তিনি আসলে হুইলচেয়ার যাত্রী।"

বিমানে সংরক্ষিত আসন না পেয়ে গোঁসা প্রজ্ঞা ঠাকুরের! কারণ দর্শিয়ে অভিযোগ খণ্ডন স্পাইসজেটের

প্রজ্ঞা ঠাকুর SG 2498 দিল্লি-ভোপালগামী বিমানে গত ২১ ডিসেম্বর চড়েছিলেন

নয়াদিল্লি:

দিল্লি থেকে ভোপালগামী বিমানে তাঁর জন্য সংরক্ষিত আসনে তাঁকে বসতে দেয়নি SpiceJet। বেসরকারি ওই বিমান সংস্থার বিরুদ্ধে এমনই অভিযোগ করেছিলেন বিজেপি সাংসদ প্রজ্ঞা ঠাকুর (BJP MP Pragya Thakur)। সেই অভিযোগের জবাব রবিবার দিল স্পাইসজেট। এক বিবৃতি জারি করে বেসরকারি ওই বিমান সংস্থা বলেছে: "হুইলচেয়ারে আমাদের বিমানে যাঁরা ভ্রমণ করেন, তাঁদেরকে নিরাপত্তাজনিত কারণে এমার্জেন্সি রো' (আপৎকালীন সারি)-তে বসতে দেওয়া হয় না।" বিবৃতিতে আরও যোগ করা হয়েছে, “স্পাইসজেট সম্মানিত। প্রজ্ঞা ঠাকুর আমাদের SG 2498 দিল্লি-ভোপালগামী বিমানে গত ২১ ডিসেম্বর  চড়েছিলেন। তাঁর আগে থেকেই ১-এ (1A) আসন সংরক্ষিত করা ছিল। কিন্তু তিনি নিজে হুইলচেয়ারে চেপে এসেছিলেন। আমাদের দিল্লি-ভোপালগামী বিমান Bombardier Q400 এয়ারক্রাফ্ট অপারেট করে। যাতে ৭৮টি আসন। সেই এয়ারক্রাফ্টের প্রথম সারি (Row) এমার্জেন্সি বা আপৎকালীন আসন। যেটা হুইলচেয়ারে আসা কোনও যাত্রীকে দেওয়া হয় না।"

স্পাইসজেট আরও বলেছে, "প্রজ্ঞা ঠাকুর আমাদের হুইলচেয়ার সংরক্ষিত করেননি। যেহেতু নিজস্ব হুইলচেয়ারে এসেছিলেন তাই আমাদের কর্মীরা এবিষয়ে অন্ধকারে ছিলেন যে তিনি আসলে হুইলচেয়ার যাত্রী। ফলে অন বোর্ড ও গ্রাউন্ড কর্মীরা ওঁকে সংরক্ষিত আসন বদল করে নন-এমার্জেন্সি ২ এ/বি (2A/B) আসনে নিরাপত্তাজনিত কারণে সরতে অনুরোধ করেন। তিনি আমাদের থেকে নিরাপত্তাবিধি-সংক্রান্ত বুকলেট চান; যেখানে প্রস্থান দরজা (exit door) পলিসি'র কথা উল্লেখ আছে। যেটি বিভ্রান্তি দূর করতে আমরা প্রজ্ঞাজিকে দেখিয়েছি। এরপর তিনি ১-এ (1A) থেকে ২-বি (2B)-তে আসন বদল করতে রাজি হন। যাত্রী নিরাপত্তা স্পাইসজেটের প্রধান প্রাধান্য।" প্রজ্ঞা সিংয়ের কাছে অসুবিধার জন্য ক্ষমাও চেয়ে নিয়েছে ওই বিমান সংস্থা।

Newsbeep

এ বিষয়ে সংবাদসংস্থা ANI-কে ওই বিজেপি সাংসদ জানিয়েছেন, ২১ তারিখ ভোপাল বিমানবন্দরের অধিকর্তার কাছে তিনি অভিযোগ দায়ের করেছিলেন। এমনকি, লিখিত সেই অভিযোগে তিনি স্পাইস জেটের কর্মীদের বিরুদ্ধে খারাপ ব্যবহারের অভিযোগ তুলেছিলেন। একই বিষয় আগেও একবার হয়েছিল এবং এবার তাঁকে সংরক্ষিত আসন দেওয়া হয়নি, বলে অভিযোগে উল্লেখ করেছিলেন তিনি। "ট্রেন-বিমান গণপরিবহন। তাই জনপ্রতিনিধি হিসেবে আমার কর্তব্য পরিষেবা সম্বন্ধে মানুষকে অবগত করা। সেই কর্তব্য থেকেই আমি অভিযোগ করেছিলাম," এএনআই-কে বলেন ওই বিজেপি সাংসদ।