বিজেপির বড় সহযোগী হায়দরাবাদ থেকে টাকার ব্যাগ নিয়ে...ওয়াইসিকে ফের আক্রমণ মমতার

হায়দরাবাদ থেকে টাকার থলি নিয়ে এ রাজ্যে এসে মুসলিমদের দরদ দেখানো আসাউদ্দিন ওয়াইসির এআইএমআইএম আসলে বিজেপির সবচেয়ে বড় বন্ধু, বললেন Mamata Banerjee

বিজেপির বড় সহযোগী হায়দরাবাদ থেকে টাকার ব্যাগ নিয়ে...ওয়াইসিকে ফের আক্রমণ মমতার

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং আসাউদ্দিন ওয়াইসি (ফাইলচিত্র)

সাগরদিঘী:

ফের একবার অল ইন্ডিয়া মজলিস-ই-ইত্তেহাদ-উল-মুসলিমীন বা এআইএমআইএমের (AIMIM) বিরুদ্ধে আক্রমণ শানালেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। হায়দরাবাদ থেকে টাকার থলি নিয়ে এ রাজ্যে এসে মুসলিমদের দরদ দেখানো আসাউদ্দিন ওয়াইসির (Asaduddin Owaisi) এআইএমআইএম আসলে বিজেপির (BJP) সবচেয়ে বড় বন্ধু, বললেন তৃণমূল নেত্রী। একমাত্র তৃণমূল কংগ্রেসই মুসলিম সহ রাজ্যের জনগণের স্বার্থরক্ষায় লড়াই করতে পারে, এমনটাই দাবি করে বসলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজ্যের বাইরে থেকে আসা নেতাদের যেন ভরসা না করেন রাজ্যের মুসলিম সম্প্রদায়, এমন ভাবেই সতর্ক করতে দেখা গেল তৃণমূল নেত্রীকে (Mamata Banerjee)। জনসভায় রাখা নিজের বক্তব্যে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, "বাইরে থেকে আসা নেতাদের বিশ্বাস করবেন না এবং ওরা আপনাদের (সংখ্যালঘুদের) প্রতি সহানুভূতি প্রদর্শনের চেষ্টা করবেন"। এটা মনে রাখবেন, কেবলমাত্র বাংলার নেতারাই আপনাদের স্বার্থের জন্য লড়াই করতে পারেন। যে নেতা হায়দরাবাদ থেকে এত টাকার ব্যাগ নিয়ে এসে নিজেকে মুসলমানদের প্রতি সহানুভূতিশীল হিসাবে বর্ণনা করছেন তিনি আসলে বিজেপির সবচেয়ে বড় বন্ধু"।

“সংখ্যালঘু বিচ্ছিন্নতাবাদী” মন্তব্য নিয়ে বাকযুদ্ধ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও আসাউদ্দিন ওয়েসির

এর আগেও গত সোমবার এআইএমআইএম-এর প্রতি তোপ দাগেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, “হিন্দুদের মধ্যে যেমন বিচ্ছিন্নতাবাদ রয়েছে, তেমনই সংখ্যালঘুদের মধ্যেও বিচ্ছিন্নতাবাদ বাড়ছে। একটি রাজনৈতিক দল রয়েছে, এবং তারা বিজেপির থেকে টাকা নিয়েছে, তারা হায়দরাবাদের দল, পশ্চিমবঙ্গের নয়”। বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী জেলা কোচবিহারের একটি সভায় গিয়ে এমন বলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

"মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ভোটব্যাংক হারানোর ভয়েই রেগে যাচ্ছেন": AIMIM Bengal

জবাবে, হায়দরাবাদের সাংসদ তথা এআইএমআইএম নেতা আসাউদ্দিন ওয়াইসি বলেন, “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কথা অনুযায়ী, যদি আমদের কাজ বিচ্ছিন্নতাবাদ হয়, তাহলে আমার কিছু বলার নেই। বিচ্ছিন্নতাবাদ সেটাই যে তিনি পশ্চিমবঙ্গে বিজেপিকে ঢুকতে দিয়েছেন, এদিকে যেহেতু রাজ্যে মুসলিমদের মধ্যে মানবতার সূচক কম, সেই কারণে, তিনি মুসলিমদের নীচু নজরে দেখছেন”।

তিনি ট্যুইটে আরও লেখেন, যে কোনও সংখ্যালঘুদের মধ্যে বাংলার মুসলিম সম্প্রদায় মানবতার সূচকে সবচেয়ে খারাপ অবস্থায়, এটা বলা ধর্মীয় বিচ্ছিন্নতাবাদ সৃষ্টি করা নয়। ওয়াইসি সেখানে পোস্ট করেন, “হায়দরাবাদের দল থেকে দিদি যদি শঙ্কিত থাকেন, তাহলে তার উত্তরে আমাদের বলা উচিত. বাংলার ৪২টি আসনে কীভাবে বিজেপি ১৮টিতে জিতল”।

More News