মধ্যপ্রদেশের কংগ্রেস সরকার সংখ্যাগরিষ্ঠতা হারিয়েছে, রাজ্যপালকে চিঠি বিজেপির

Lok sabha Elections 2019: সরকার তৈরি হয়েছে মাত্র মাস পাঁচেক আগে। এরই মধ্যে মধ্যপ্রদেশ সরকার ভেঙে দেওয়ার দাবি করল বিজেপি।

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS

তবে মধ্যপ্রদেশে রাজনৈতিক উত্তেজনার সূচনা গত মাসেই হয়ে গিয়েছে।


নিউ দিল্লি: 

হাইলাইটস

  1. মধ্যপ্রদেশ সরকার ভেঙে দেওয়ার দাবি করল বিজেপি
  2. ২৩০ আসনের বিধানসভায় কংগ্রেস একা ১১৪টি আসন পেয়েছিল
  3. মধ্যপ্রদেশে রাজনৈতিক উত্তেজনার সূচনা গত মাসেই হয়ে গিয়েছে

সরকার তৈরি হয়েছে মাত্র মাস পাঁচেক আগে। এরই মধ্যে মধ্যপ্রদেশ সরকার (Madhya Pradesh Govt) ভেঙে দেওয়ার দাবি করল বিজেপি। রাজ্যের বিরোধী দলের দাবি এখন কমলনাথের (Kamal Nath)  নেতৃত্বাধীন কংগ্রেসের সরকার সংখ্যালঘু হয়ে পড়েছে। তাই রাজ্যপাল আনন্দি বেন প্যাটেলের কাছে গেরুয়া শিবিরের অনুরোধ এখনই বিধানসভার বিশেষ অধিবেশন ডাকা হোক এবং সেখানেই নিজেদের সংখ্যাগরিষ্ঠতা প্রমাণ দিক কমলনাথের সরকার। ২৩০ আসনের বিধানসভায় কংগ্রেস একা ১১৪টি আসন পেয়েছিল। সরকার করতে দরকার ছিল ১১৬টি আসন। এখানেই কংগ্রেসকে সমর্থন করেন অখিলেশ যাদব এবং মায়াবতীর দলের ২ বিধায়ক। এভাবে ১১৬ জন বিধায়কের সমর্থন নিয়ে সরকার চালাচ্ছেন কমলনাথ। কিন্তু বিজেপির দাবি এখন সেই সংখ্যাগরিষ্ঠতা নেই।

Elections 2019: দুই থেকে বেড়ে দু-অঙ্কের আসন পেতে পারে বিজেপি: পোল অফ পোলস

রাজ্যের বিরোধী দলনেতা গোপাল ভারগভ  জানিয়েছেন,  ‘ আমরা রাজ্যপালকে চিঠি লিখে বিধানসভার বিশেষ অধিবেশন ডাকার আহ্বান জানাচ্ছি। আমাদের দল ঘোড়া কেনাবেচা বিশ্বাস করে না। কিন্তু এখন পরিস্থিতি এমন দাঁড়িয়েছে যাতে বিশেষ অধিবেশন ডেকে সরকারকে নিজের সংখ্যাগরিষ্ঠতা প্রমাণ করতেই হবে।' বিজেপি যেদিন এই দাবি পেশ করছে তার একদিন আগে সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনের ভোট(Lok sabha Elections 2019) প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়েছে। সপ্তম দফার ভোট শেষ হওয়ার পর দেশের বিভিন্ন নিউজ চ্যানেল তাদের বুথ ফেরত সমীক্ষা প্রকাশ্যে এনেছে। সেই সমীক্ষার পোল অফ পোলসে দেখা যাচ্ছে আবারও দেশে বিজেপির নেতৃত্বে সরকার তৈরি হতে চলেছে। পাশাপাশি যে মধ্যপ্রদেশ ছত্তিশগড় এবং রাজস্থানে গত ডিসেম্বর মাসে কংগ্রেসের সরকার তৈরি হয়েছিল সেখানেই বিজেপি ভাল ফল করতে চলেছে বলে উঠে এসেছে অধিকাংশ সমীক্ষায়। এই পরিস্থিতিতে রাজ্যপালের উপর চাপ বাড়িয়ে চিঠি লেখার সিদ্ধান্ত নিল বিজেপি।

তবে মধ্যপ্রদেশে রাজনৈতিক উত্তেজনার সূচনা গত মাসেই হয়ে গিয়েছে। মায়াবতীর দলের একমাত্র বিধায়ক লোকেন্দ্র সিং রাজপুত দল ত্যাগ করে কংগ্রেসে যোগদান করেন। এরপরই ক্ষুব্ধ বিএসপি সুপ্রিমো  টুইট করে বলেন কংগ্রেসকে সমর্থনের ব্যাপারটি তাঁকে নতুন করে ভেবে দেখতে হবে। তাছাড়া  লোকসভা নির্বাচনের প্রচারেও টানা  কংগ্রেসকে  নিশানা করে  গিয়েছেন মায়া।            

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................