রাজনীতি অনেকটা ক্রিকেট খেলার মতো, যখন তখন যা কিছু হতে পারে: নীতিন গডকড়ি

Maharashtra: ক্ষমতায় যারাই আসুক না কেন, মহারাষ্ট্রের চলতি উন্নয়নমূলক প্রকল্পগুলি প্রভাবিত হবে না বলেই আশা প্রকাশ করেন ওই কেন্দ্রীয় মন্ত্রী

রাজনীতি অনেকটা ক্রিকেট খেলার মতো, যখন তখন যা কিছু হতে পারে: নীতিন গডকড়ি

তিনি মহারাষ্ট্রের চেয়ে দিল্লির রাজনীতির সঙ্গে অনেক বেশি করে জড়িত, বলেন Nitin Gadkari

হাইলাইটস

  • ক্রিকেটের মতোই রাজনীতিতেও কোনও ভবিষ্যৎবাণী করা যায় না
  • সরকার বদলালে মহারাষ্ট্রের প্রকল্পগুলির উন্নয়ন থেমে যাবে এমন নয়, বলেন তিনি
  • সে রাজ্যে এনসিপি ও কংগ্রেসের সঙ্গে জোট বেঁধে সরকার গড়তে চাইছে শিবসেনা
নয়া দিল্লি:

মহারাষ্ট্রের রাজনৈতিক ভবিষ্যৎ নিয়ে আগ বাড়িয়ে কোনও মন্তব্য করতে নারাজ কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তথা বিজেপির অভিজ্ঞ নেতা নীতিন গডকড়ি। তিনি বলেন রাজনীতি অনেকটাই ক্রিকেটের মতো অপ্রত্যাশিত বিষয়, তাই এমন ধরণের কোনও বিষয় নিয়ে অনুমান করার ঝুঁকি নেবেন না তিনি। "ক্রিকেট (Cricket) ও রাজনীতিতে (Politics) যে কোনও কিছু ঘটতে পারে, যখন হয়তো আপনি মনে করছেন আপনি ম্যাচটি হেরে যাচ্ছেন, তখনই হয়তো ম্যাচের ফলাফল একেবারে ঘুরে গিয়ে তার বিপরীত হল", বলেন তিনি। পাশাপাশি ওই কেন্দ্রীয় মন্ত্রী (Nitin Gadkari) বলেন, তিনি মহারাষ্ট্রের চেয়ে দিল্লির রাজনীতির সঙ্গে অনেক বেশি করে জড়িত, তাই সেখানকার (Maharashtra) রাজনীতি নিয়ে আগাম কিছুই বলবেন না তিনি।

সম্প্রতি বিজেপি নেতা নীতিন গডকড়ি মহারাষ্ট্রে আসলে এক সাংবাদিক সম্মেলনে তাঁকে মহারাষ্ট্র নিয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি ওই মন্তব্য করেন। মুখ্যমন্ত্রী পদে বিজেপি ও শিবসেনার মধ্যে বিরোধের পর থেকেই সে রাজ্যের রাজনৈতিক কাঠামোতে এক নতুন সংকট তৈরি হয়েছে। এখনও  পর্যন্ত সেখানে সরকার গড়তে পারেনি কোনও দলই। তাই সেখানে জারি করা হয়েছে রাষ্ট্রপতি শাসন। তবে শিবসেনা এখনও কংগ্রেস ও শরদ পাওয়ারের এনসিপির সঙ্গে জোট বেঁধে সরকার গঠনের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

তবে, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী এই উদ্বেগ উড়িয়ে দিয়েছেন যে মহারাষ্ট্রে সরকার বদলালে এর আগে দেবেন্দ্র ফড়নবিশ প্রশাসনের শুরু করা প্রকল্পগুলি প্রভাবিত হবে। "আমি অনুভব করি যে কোনও পার্থক্য হবে না। আমাদের গণতন্ত্রে সরকার পরিবর্তন হলেও সরকারি প্রকল্পগুলি কোনও সমস্যা ছাড়াই এগিয়ে যেতে থাকে। এখানে বর্তমানে যেই-ই সরকারে আসুক না কেন, আশা রাখি চলতি ইতিবাচক উন্নয়নমূলক প্রকল্পগুলিকে তাঁরা এগিয়ে নিয়ে যাবেন", বলেন তিনি।

“একসঙ্গে কাজ করার পথ বের করা হবে”, কংগ্রেস এনসিপি নিয়ে বললেন উদ্ধব ঠাকরে

রাজনীতি ও ক্রিকেটের মধ্যে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর তুলনা সত্যি হয়েছে মহারাষ্ট্রের ক্ষেত্রে। যেখানে বিজেপি ও শিবসেনা জোটবদ্ধ হয়ে নির্বাচনে লড়াই করার পরেও পারস্পরিক দ্বন্দ্বে সরকার গঠন করতে পারেনি। অন্যদিকে কংগ্রেস-এনসিপি জোট মোট ৯৮ টি আসন জিতলেও শিবসেনার সঙ্গে সরকার গড়ার ব্যাপারে এখনও এগোতে পারেনি। 

শিবসেনাকে সমর্থন দিলে মুখ্যমন্ত্রী পদেরও দাবি জানাবে এনসিপি: সূত্র

যদিও মহারাষ্ট্রে সরকার গড়ার ব্যাপারে লাগাতার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে শিবসেনা। এরই মধ্যে ফের একবার কংগ্রেস, এনসিপি এবং শিবসেনার নেতারা মুম্বইয়ে একটি বৈঠক করেছেন। একটি "সাধারণ ন্যূনতম কর্মসূচি" গঠনের জন্যেই ওই বৈঠক করেন তাঁরা। কংগ্রেসের একজন প্রবীণ নেতা সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে জানিয়েছেন, একসঙ্গে আদর্শগত মতভেদ দূর করে কাজ করার মানসিকতা তৈরি হলে তিন দল মিলে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হতে হবে।

সূত্র মতে, আপাতত একটি যৌথ সরকার গঠনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে শিবসেনা এবং কংগ্রেস-এনসিপি জোট। জানা যাচ্ছে, মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী পদেও ঘুরিয়ে ফিরিয়ে দুই দলের প্রতিনিধিরাই বসবেন। ওদিকে কংগ্রেস সেখানে পাঁচ বছরের জন্যে উপ-মুখ্যমন্ত্রীর পদ দাবি করেছে বলে জানা গেছে।

More News