বিজেপির মানুষকে বোঝানোর ক্ষমতা আছে, সিএএ প্রসঙ্গে দাবি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন বা সিএএ মানুষকে নাগরিকত্ব দেবে, ছিনিয়ে নেবে না। শনিবার এমন দাবি করলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।

বিজেপির মানুষকে বোঝানোর ক্ষমতা আছে, সিএএ প্রসঙ্গে দাবি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর

সিএএ বিতাড়িত সংখ্যালঘুদের নাগরিকত্ব দেবে। (ফাইল)

হাইলাইটস

  • গান্ধিনগরে গুজরাত পুলিশের এক অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
  • দেশব্যাপী নৈরাজ্যের জন্য বিরোধীদের দুষেছেন তিনি
  • সিএএ বোঝাতে বিজেপি সমর্থকদের মানুষের কাছে যেতে বলেছেন তিনি
গান্ধিনগর:

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন বা সিএএ (CAA) মানুষকে নাগরিকত্ব দেবে, ছিনিয়ে নেবে না। শনিবার এমন দাবি করলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী (Home Minister) অমিত শাহ। এদিন তিনি গান্ধীনগরে গুজরাত পুলিশের এক অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।  সিএএ'র বিরোধিতা করে দেশব্যাপী যে হিংসা ছড়িয়েছিল, সেই ঘটনার দায় বিরোধীদের ঘাড়ে চাপিয়েছেন তিনি। এদিনের অনুষ্ঠানে তিনি বলেছেন, সিএএ নিয়ে বিরোধীদের মিথ্যাচারের জেরেই গোটা দেশে নৈরাজ্য (Anarchy) ছড়িয়েছিল। তিনি বলেন, 'বিরোধীদের (opposition) কাছে কোনও ইস্যু নেই। তাই সিএএ নিয়ে মিথ্যাচার ও বিভ্রান্তি ছড়িয়েছে। যার ফলে গোটা দেশে নৈরাজ্য ছড়িয়ে পড়েছিল। তবে বিজেপির ক্ষমতা আছে মানুষকে কাছে টানার। আমার দলের সব কর্মীদের বলব যত বেশি সম্ভব মানুষের কাছে যান, ওদের বোঝান সিএএ কী? এভাবে প্রচার করলেই মানুষ এই আইনের তাৎপর্য বুঝতে পারবে।'

গৌরী লঙ্কেশ খুনে জড়িত সন্দেহে ঝাড়খণ্ড থেকে গ্রেফতার এক ব্যক্তি

তিনি যোগ করেছেন, তিন পড়শি রাষ্ট্রের সংখ্যালঘু, যারা অসহিষ্ণুতার জেরে ভারতে এসেছেন তার নাগরিকত্ব (Citizenship) পাবে। কারও নাগরিকত্বের মর্যাদা কেড়ে নেওয়া হবে না। এদিনের অনুষ্ঠান প্রসঙ্গে তিনি বলেন প্রযুক্তির ব্যবহার কমাতে পারবে অপরাধ।

হোয়াটসঅ্যাপের সূত্র ধরে জেএনইউ হামলার পিছনে থাকা ৩৭ জনকে চিহ্নিত করা হল

গত মাসের ১১ তারিখ আইনে পরিণত হয় সিএ বিল। তারপর থেকেই দেশব্যাপী প্রতিবাদে মুখ পুড়েছিল কেন্দ্রের। আন্তর্জাতিক গোষ্ঠী-সহ ইউএস এবং ইইউ নরেন্দ্র মোদী সরকারের এই পদক্ষেপের সমালোচনা করেছিল।  দেশের প্রায় সবক'টি মেট্রো শহরে এই  আন্দোলনের অংশ হতে পথে নেমেছিল নাগরিকেরা। পুলিশ-জনতা খণ্ডযুদ্ধে ঝরেছিল রক্ত। এই আন্দোলনের জেরে প্রাণহানির খবর মিলেছে। গোটা দেশ থেকে প্রায় ২৫ জনের মৃত্যুর কবর পাওয়া গিয়েছে। উত্তর প্রদেশে সেই সংখ্যাটা সর্বাধিক। একাধিক অবিজেপি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ঘোষণা করেছেন, তাঁদের রাজ্যে এনআরসি লাগু হবে না। করতে দেওয়া হবে না সিএএ। কিন্তু ইতিমধ্যে গেজেট নোটিফিকেশন জারি করে, ১০ জানুয়ারি থেকে সিএএ লাগু গোটা দেশে জানিয়ে দিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। তারপরে এদিন অমিত শাহের এই ঘোষণা।

More News