পশ্চিমবঙ্গ সরকারের 'স্বৈরতন্ত্রে'র বিরুদ্ধে সরব হচ্ছেন রাজ্যের বিজেপি সাংসদরা

চলতি সপ্তাহেই নয়া দিল্লিতে এ রাজ্যের  "বিদ্যমান অগণতান্ত্রিক পরিবেশ" নিয়ে আলোচনা হতে চলেছে বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের মধ্যেও

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS
পশ্চিমবঙ্গ সরকারের 'স্বৈরতন্ত্রে'র বিরুদ্ধে সরব হচ্ছেন রাজ্যের বিজেপি সাংসদরা

পশ্চিমবঙ্গ সরকারের “স্বৈরতন্ত্র”-এর বিরুদ্ধে সরব হবেন বিজেপি সাংসদরা, জানালেন দিলীপ ঘোষ


কলকাতা: 

পশ্চিমবঙ্গ সরকার কিভাবে এ রাজ্যে (West Bengal) “স্বৈরতন্ত্র” (atrocities) কায়েম করেছে সে বিষয়ে গোটা দেশে নিজেদের দলীয় সদস্যদের জানাতে চলেছে এ রাজ্যের বিজেপি সাংসদরা (BJP Bengal MP)। জানা গেছে, চলতি সপ্তাহেই নয়া দিল্লিতে এ রাজ্যের  "বিদ্যমান অগণতান্ত্রিক পরিবেশ" নিয়ে আলোচনা হতে চলেছে বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের মধ্যেও, এমনটাই জানিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গে গেরুয়া দলের শীর্ষ নেতা। "আমাদের অনেক দলীয় কর্মী তৃণমূল কংগ্রেসের গুণ্ডাদের হাতে নিহত হয়েছেন। জিহাদিদের জন্য বেঙ্গল ক্রমশই একটি নিরাপদ আশ্রয়স্থল হয়ে উঠছে। যেখানে আপনি “জয় শ্রী রাম” বললে আপনাকে জেলে পাঠানো হবে। গোটা দেশে আমাদের দলের সাংসদদের আমরা এই বিষয়টি সম্পর্কে জানাবো ", সংবাদসংস্থা পিটিআইকে বলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ (BJP state president Dilip Ghosh)। নয়া দিল্লিতে আগামী ২৪ ও ২৫ জুলাই এ বিষয়ে আলোচনা হবে বলে জানান তিনি। বিজেপির রাজ্য সভাপতি আরও বলেন, “বাংলায় কিভাবে অগণতান্ত্রিক উপায়ে শাসন কায়েম করা হয়েছে সে কথাও বিস্তারিত ভাবে তুলে ধরা হবে। এ বিষয়ে আমরা একটি পুস্তিকাও ছাপিয়েছে যা আমরা তাঁদের হাতে তুলে দেব”।

মানসিক ভারসাম্য হারিয়েছেন মমতা, মন্তব্য মুকুলের, জবাব তৃণমূলের

বিজেপির (BJP) ১৮ জন সাংসদের মধ্যে মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় ও দেবশ্রী চৌধুরীকে নিয়ে ৮ জন ৪টি দলে ভাগ হয়ে লোকসভা ও রাজ্যসভা মিলিয়ে মোট ৪০০ জন গেরুয়া দলের সাংসদদের কাছে এ রাজ্যের পরিস্থিতির সামগ্রিক ব্যাখ্যা করবেন বলে জানিয়েছেন দিলীপ ঘোষ। গোটা দেশের বিজেপি সাংসদদের ৫০ জন করে ৮টি দলে ভাগ করে দেওয়া হবে বলেও জানান তিনি।

এর প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে বলতে গিয়ে  নারী ও শিশুকল্যাণ উন্নয়ন মন্ত্রকের কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরী বলেন,  দেশের বেশিরভাগ সাংসদ বাংলার পরিস্থিতি সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে জানতে আগ্রহী।

“সংসদের চলতি অধিবেশনে বেশ কয়েকবার পশ্চিমবঙ্গের সাম্প্রতিক অগণতান্ত্রিক পরিবেশ ও কাট মানি ইস্যু বিষয়টি আলোচনায় উঠে এসেছে। সুতরাং বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব সিদ্ধান্ত নিয়েছে যে এই বিষয়গুলি নিয়ে বিস্তারিত জানানো প্রয়োজন। যে সাংসদরা এই বিষয়গুলির বর্ণনা করবেন তাঁরা তাঁদের নিজ নিজ সংসদীয় এলাকার পরিস্থিতি তুলে ধরবেন” বলেন তিনি।

বেহালায় তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষ, আহত ৫

২০১৪-র লোকসভা নির্বাচনে পশ্চিমবঙ্গ থেকে ২টি লোকসভা আসনে জয় পায় বিজেপি। সেখান থেকে এবারের লোকসভা নির্বাচনে এ রাজ্যের ৪২ টি আসনের মধ্যে ১৮ টি আসন নিজেদের ঝুলিতে পোরে তাঁরা। আর এভাবেই ক্রমশ পশ্চিমবঙ্গে নিজেদের গেরুয়া জমি শক্ত করছে বিজেপি। তবে লোকসভা নির্বাচনের ফল বেরোনোর পর থেকেই দেখা গেছে রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় রাজনৈতিক হিংসায় জড়িয়ে গেছে শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস ও বিজেপি, তাই মনে করা হচ্ছে আসন্ন ২০১২১-এর বিধানসভা নির্বাচনে দুই দলই তুলমূল্য লড়াইয়ের পথে হাঁটবে।



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)


পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................