পাঁচশো পরিবারের তৈরি জ্বালানিতে উড়ল বিমান, দেশে প্রথম

বিমান ভাড়ার একটা বড় অংশ তেল খরচ। চিরাচরিত ভাবে বিমানের জ্বালানি হিসেবে ব্যবহৃত তেলের দাম অনেকটাই বেশি।

72 আসনের এই বিমানের ডান দিকের ইঞ্জিনে জৈবজ্বালানির প্রয়োগ করা হয়েছিল।

হাইলাইটস

  • আংশিক জৈবজ্বালানির সাহায্যে উড়ল বিমান
  • দেরাদুন থেকে উড়ে দিল্লি এল বিমান
  • এ ধরনের জ্বালানির ব্যবহারে বিমান ভাড়ার খরচ কমে
নিউ দিল্লি:

বিমান ভাড়ার একটা বড় অংশ তেল খরচ। চিরাচরিত ভাবে বিমানের জ্বালানি হিসেবে ব্যবহৃত তেলের দাম অনেকটাই বেশি। সেটার সরাসরি প্রভাব পড়ে ভাড়ায়। বাড়তি  ভাড়া যাত্রীদের পাশাপাশি উড়ান সংস্থাকেও  সমস্যায় ফেলে। এর থেকে মুক্তি কোন পথে সম্ভব তা নিয়ে চর্চা চলছে দীর্ঘদিন। হচ্ছে নানা রকমের পরীক্ষাও। তারই অঙ্গ হিসেবে আংশিক জৈবজ্বালানি  এবং সাধারণ জ্বালানির সাহায্যে উড়ল বিমান। দেরাদুনের জলি গ্রান্ট বিমান বন্দর থেকে উড়ে দিল্লি  এসে পৌঁছল বিমান।

6rf55lug আংশিক জৈবজ্বালানির সাহায্যে ওড়া  সেই বিমান।     

স্পাইসজেটের এই বিমান সফল ভাবে অবতরণ করার পর অনেকেই আসা করছেন আগামী দিন জৈবজ্বালানি ব্যবহারের পথ আরও সুগম হবে। 72 আসনের এই বিমানের ডান দিকের ইঞ্জিনে জৈবজ্বালানির প্রয়োগ করা হয়েছিল। কৃষি কাজে ব্যবহার হয় এমন কিছু জিনিসের সঙ্গে আরও কয়েকটি সামগ্রীর সংমিশ্রণে তৈরি হয় এই তেল। এদিনের বিমানের জন্য জৈবজ্বালানি প্রস্তুত করেছিল দেরাদুনের ইন্ডিয়ান ইন্সটিটিউট অফ পেট্রলিয়াম। কয়েকটি রাজ্যের প্রায় পাঁচশো পরিবার বিমান তৈরির এই প্রক্রিয়ার সঙ্গে যুক্ত। এই যাত্রার সঙ্গী হয়েছিল এনডিটিভি।

যাত্রার সূচনা করেন উত্তরাখণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী ত্রিবেন্দ্র সিং রাওয়াত। মিনিট  25 বাদে দিল্লি বিমান বন্দরে অবতরণ করে বিমান। উপস্থিত ছিলেন নীতীন গডকরি, ধর্মেন্দ্র প্রধান, হর্ষ বর্ধন এবং জয়ন্ত সিনহার মতো কেন্দ্রীয় মন্ত্রীরা।