বাংলার চিকিৎসকদের আন্দোলনকে মানবিক দিক থেকে বিবেচনা করেছে রাজ্য সরকার: মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

অন্যান্য রাজ্যগুলির মতো এসমা জারি করে কড়া পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি, বললেন মুখ্যমন্ত্রী

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS
বাংলার চিকিৎসকদের আন্দোলনকে মানবিক দিক থেকে বিবেচনা করেছে রাজ্য সরকার: মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়
কলকাতা: 

দেশের অন্য রাজ্যগুলিতে যেখানে চিকিৎসকরা কাজ বন্ধ করে ধর্মঘটে বসলে কড়া পদক্ষেপ নেওয়া হয়,এসমা জারি করে তাঁদের কাজ করতে বাধ্য করানো হয়, সেখানে এ রাজ্যে জুনিয়র ডাক্তারদের স্ট্রাইককে( junior doctors'' strike) মানবিক দিক থেকে বিবেচনা করেছে রাজ্য সরকার (West  Bengal govt), শুক্রবার এমনটাই বললেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (CM Mamata Banerjee)।রাজ্য বিধানসভায় দাঁড়িয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন তিনি ভালবাসার মাধ্যমে সমস্যা সমাধান করতেই পছন্দ করেন।এমনকি তিনি এও উল্লেখ করেন যে গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী থাকাকালীন নরেন্দ্র মোদিও এসমা জারি করে চিকিৎসকদের কাজ করতে বাধ্য করিয়েছিলেন। “আমাদের সরকার ডাক্তারদের স্ট্রাইককে মানবিক ভাবে বিবেচনা করেছে।এই একই সমস্যা যখন অন্য রাজ্যে হয় তখন সে রাজ্যে কড়া পদক্ষেপ নেয় সরকার”,বলেন মুখ্যমন্ত্রী।

“কাট মানি” নিয়ে ফের তৃণমূল নেতাদের সতর্ক করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

২০০৮-এ বিজেডি সরকারও তাঁদের শাসিত রাজ্যে এসমা (ESMA) জারি করে বলেও উদাহরণ দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (CM Mamata Banerjee)।“যখন আমরা ভালবেসে বুঝিয়ে কোনো সমস্যার সমাধান করতে পারি তখন তার থেকে ভাল আর কিছু হতে পারে না।আমরা যেকোনো সময় কড়া পদক্ষেপ নিতে পারতাম, কিন্তু আমি মনে করি ভালবেসে যা হয় শাস্তি দিয়ে তা হয় না। আর ঠিক এই কারণেই আমরা মানুষকে ভালবেসে কাছে টেনে নেওয়ার চেষ্টা করি”, বিধানসভা ভবনে(West Bengal Assembly)  বলেন মুখ্যমন্ত্রী।“গুজরাটে শুধু যে এসমা জারি করা হয়েছিল তা নয়, প্রায় ১৫০ জন চিকিৎসককেও গ্রেফতার করেছিল সে রাজ্যে”,২০০৯ সালের জুলাইয়ে ঘটা একটি ঘটনার উদাহরণ টেনে বলেন তিনি।

এ রাজ্যে চলতি মাসের ১০ তারিখ থেকে টানা ৭ দিন প্রতিবাদ আন্দোলনে বসেন রাজ্যের জুনিয়র ডাক্তাররা।ফলে রাজ্যের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা প্রায় পঙ্গু হয়ে পড়ার জোগাড় হয়।পশ্চিমবঙ্গের চিকিৎসকদের এই আন্দোলনকে সমর্থন জানিয়ে দেশের প্রায় সবকটি রাজ্যেই আন্দোলনে সামিল হন চিকিৎসকরা। ঘটনার সূত্রপাত হয় কলকাতার নীলরতন সরকার মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে।সেখানে এক রোগীর মৃত্যু হলে ওই রোগীর পরিবার চিকিৎসকদের উপর চড়াও হয়ে মারধর করে বলে অভিযোগ ওঠে।আর এরপরেই চিকিৎসকদের নিরাপত্তার দাবিতে আন্দোলনে বসেন রাজ্যের চিকিৎসকেরা।পরবর্তীতে মুখ্যমন্ত্রী (CM Mamata Banerjee) সঙ্গে সাক্ষাতের পর রাজ্য সরকার তাঁদের নিরাপত্তা দেবে এই আশ্বাস পেয়ে আন্দোলন প্রত্যাহার করে তাঁরা।রাজ্যের স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য জানিয়েছেন, রাজ্য সরকারের তরফে চিকিৎসকদের হেনস্থা রুখতে সবরকম নিরাপত্তা দানের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

 প্রশান্ত কিশোরের সঙ্গে ফের রুদ্ধদ্বার বৈঠক মমতার, এবারে আলোচনায় সঙ্গী অভিষেকও!

বিধানসভায় (West Bengal Assembly) বিরোধী দলনেতা আবদুল মান্নানের এক প্রশ্নের উত্তরে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও (CM Mamata Banerjee) জানান যে, চিকিৎসকদের নিরাপত্তা দানে ব্যাপারে সবরকম ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে রাজ্যের তরফে। “প্রাইভেট হাসপাতালগুলির নিজস্ব নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকে। তবে তাঁদের সহযোগিতা করা রাজ্য সরকারের কর্তব্য যেটা আমরা বর্তমানে করছি এবং ভবিষ্যতে সাহায্যের প্রয়োজন হলে তা করতেও প্রস্তুত রাজ্য সরকার।কেননা আইন-শৃঙ্খলা রক্ষার বিষয়টি রাজ্যের এক্তিয়ারভুক্ত। আমরা চাই প্রাইভেট ও সরকারি হাসপাতাল মিলে রাজ্যের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা সুন্দর হোক”, বলেন মমতা।পাশাপাশি কোনো রোগীর মৃত্যু হলে তাঁর পরিবারকে সেই দুঃসংবাদ দেওয়ার জন্যে জনসংযোগ আধিকারিক রাখারও ভাবনা ভাবা হচ্ছে বলে জানান মুখ্যমন্ত্রী।



পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................