Ayodhya Case: "অযৌক্তিক" ভাবে মামলা থেকে "সরিয়ে দেওয়া হয়", অভিযোগ মুসলিম পক্ষের আইনজীবীর

"অযৌক্তিক ভাবে" জামিয়াৎ-উলেমা-ই-হিন্দ নামে মুসলিম সংগঠনটি তাঁকে "বরখাস্ত" করেছে, বলেন অযোধ্যা মামলায় মুসলিম আবেদনকারীদের আইনজীবী Rajeev Dhavan

Ayodhya Case:

Ayodhya Case: এই মামলায় মুসলিম আবেদনকারীদের পক্ষে সওয়াল করেন রাজীব ধাওয়ান

নয়া দিল্লি:

বিস্ফোরক অভিযোগ করলেন অযোধ্যা মামলায় মুসলিম আবেদনকারীদের পক্ষে আদালতে সওয়াল করা আইনজীবী রাজীব ধাওয়ান। তিনি (Rajeev Dhavan) আজ (মঙ্গলবার) ফেসবুক পোস্টে অভিযোগ করেন যে "অযৌক্তিক ভাবে" জামিয়াৎ-উলেমা-ই-হিন্দ (Jamiat Ulema-e-Hind) নামে মুসলিম সংগঠনটি তাঁকে মামলা (Ayodhya Case) থেকে "সরিয়ে দিয়েছে"। সোমবারই কয়েক দশক পুরনো রাম জন্মভূমি-বাবরি মসজিদ বিরোধের সমাধানে গত মাসে দেওয়া সুপ্রিম কোর্টের রায় পর্যালোচনা করার জন্য আবেদন জানায় ওই মুসলিম সংগঠনটি। "জামিয়াতের প্রতিনিধিত্বকারী অ্যাডভোকেট অন-রেকর্ড ইজাজ মকবুল আমায় জানান যে বাবরি মামলা থেকে আমায় বরখাস্ত করা হয়েছে। কোনও আগাম ঘোষণা ছাড়াই আমাকে 'বরখাস্ত' করার বিষয়ে আনুষ্ঠানিক চিঠি পাঠান তিনি। ওই চিঠিতে জানানো হয় যে আমি আর রায় পর্যালোচনা সংক্রান্ত মামলায় জড়িত থাকবো না", মঙ্গলবার সকালে নিজের ফেসবুক পেজে পোস্ট করেন রাজীব ধাওয়ান।

তিনি বলেন, "আমাকে জানানো হয়েছে যে জামিয়াতের প্রধান মওলানা আরশাদ মাদানি ইঙ্গিত দেন যে আমার শরীর ভালো নেই, তাই আমাকে এই মামলা থেকে সরিয়ে দেওয়া হল। এটা একদম বাজে কথা। তার আইনজীবী এজাজ মকবুলকে আমাকে বরখাস্ত করার নির্দেশ দেওয়া হয়, তাই তিনি ওই চিঠি আমায় পাঠান, কিন্তু মামলা থেকে আমায় সরানোর কারণটি সন্দেহজনক এবং মিথ্যা"।

অযোধ্যা রায় পর্যালোচনার প্রথম আবেদন জমা পড়ল সুপ্রিম কোর্টে

রাজীব ধাওয়ান সংবাদ সংস্থা এএনআইকে পরে বলেন, "আমি জানি না ঠিক কী কারণে ওঁরা আমায় মামলা থেকে সরিয়ে দিলেন। এখন তাঁরা বলছেন যে আমি নাকি অসুস্থ এবং ধরাছোঁয়ার বাইরে ছিলাম, এটা সম্পূর্ণ মিথ্যা" ।

তবে এই সংবাদটি প্রকাশ্যে আসার সঙ্গে সঙ্গেই অন্যান্য মুসলিম আবেদনকারীরা ওই আইনজীবীকে স্পষ্ট জানান যে রাজীব ধাওয়ান তাঁদের আইনজীবী হিসাবে বহাল রয়েছেন এবং ওই অপসারণের সিদ্ধান্ত শুধুমাত্র কেবল জামিয়াৎ-উলেমা-ই-হিন্দের।

রাম মন্দির দেশে শান্তি আনবে, হিন্দু-মুসলিমে ভ্রাতৃত্ববোধ জাগাবে: শ্রী শ্রী রবি শঙ্কর

"আবেদনকারীদের মধ্যে আরও পাঁচটি দল রয়েছে যারা রাজীব ধাওয়ানকে মামলায় প্রধান আইনজীবী হিসাবেই রাখতে চান। অল ইন্ডিয়া মুসলিম পার্সোনাল ল বোর্ড (এআইএমপিএলবি) তাঁকে অন্যান্য মুসলিম দলের পক্ষে সওয়াল-জবাব করার জন্য রাজি করানোর বিষয়ে চেষ্টা করছে", বলেন মুসলিম পার্সোনাল ল বোর্ডের আইনজীবী এম আর শামসাদ।

অযোধ্যা নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে রিভিউ পিটিশন বা রায় পর্যালোচনার আবেদন জমা করে জামিয়াৎ-উলেমা-ই-হিন্দ।  যেহেতু শীর্ষ আদালত রায় দিয়েছে যে এই বিতর্কিত জমি পুরোটাই ভগবান রাম লাল্লার (শিশু ভগবান রাম), এরই বিরুদ্ধে বিশিষ্ট মুসলিম সংস্থার প্রধান মওলানা আরশাদ মাদানি দাবি করেন যে এই রায় (Ayodhya Verdict) দেশের বেশিরভাগ মুসলিম জনসংখ্যার বিরুদ্ধে গেছে।

জেনে নিন কী বলছেন মহুয়া মৈত্র, দেখুন ভিডিও:

More News