This Article is From Apr 24, 2020

মহাকাশে ছুটছে মাস্ক পরা গ্রহাণু! করোনার ভয়ে পৃথিবী ছেড়ে পালাচ্ছে?

আরেসিবো অবজারভেটরি প্রধান Anne Virkki বলেছেন, গ্রহাণুর গায়ে এবড়ো খেবড়ো পাহাড় এবং খাঁজের মতো একাধিক অংশ রয়েছে। যা দেখে মনে হচ্ছে মুখে মাস্ক পরা!

মহাকাশে ছুটছে মাস্ক পরা গ্রহাণু! করোনার ভয়ে পৃথিবী ছেড়ে পালাচ্ছে?

মহাকাশে ছুটছে মাস্ক পরা গ্রহাণু!

চেহারাটা খুব ছোট নয়। চওড়ায় দেড় কিলোমিটার। উচ্চতায় মাউন্ট এভারেস্টের  প্রায় অর্ধেক। দিন কয়েকের মধ্যেই এমন আকার-প্রকারের একটি গ্রহাণু পৃথিবী ছেড়ে উড়ান দিচ্ছে মহাকাশের বুকে। যার ছবি সম্প্রতি দেখা গেছে অনলাইনে। এবং ছবি আসতেই সেটি ব্যাপক ভাইরাল। কারণ, ছবি দেখে মনে হচ্ছে, নতুন জায়গায় গ্রহাণুটি পাড়ি দিচ্ছে ভয়ে ভয়ে। অতিরিক্ত সাবধানতা নিয়ে। কী সেই বাড়তি সাবধানতা? ছবি বলছে, এক নজরে দেখে মনে হবে গ্রহাণুটি করোনা এড়াতে মাস্ক পরে আছে! বিজ্ঞানীরা মজা করে বলছেন, করোনার আগে পৃথিবীতে আছড়ে পড়ার কথা ছিল এই গ্রহাণুর। ওর আগে করোনা চলে আসায় মুখে মাস্ক পরে নিয়েছে!

লকডাউনে বাড়ির উঠোনে মানুষখেকো কুমীর! ভয়ঙ্কর হামলা পরিবারকে

১৯৯৮-এ প্রথম আবিষ্কৃত হয় 52768 নামক গ্রহাণুটি। ২৯ এপ্রিলের মধ্যে সেটি অতিক্রম করবে ৩.৯ মিলিয়ন মাইল পথ। যা পৃথিবী ও চাঁদের মধ্যবর্তী দূরত্বের প্রায় ১৬ গুণ। সম্প্রতি, আরেসিবো অবজারভেটরি গ্রহাণুটির একটি রাডার চিত্র পাঠিয়েছে। করোনা ভাইরাস মহামারী ঠেকাতে সবাই যেমন মাস্ক পরে আছেন তেমনটাই দেখতে একে। যা দেখে বিজ্ঞানী হয়ে সাধারণ মানুষ ভীষণ আনন্দিত। সবাই বিজেদের চেহারার সঙ্গে সাদৃশ্য খুঁজে পেয়েছেন। 

আরেসিবো অবজারভেটরি প্রধান Anne Virkki বলেছেন, গ্রহাণুর গায়ে এবড়ো খেবড়ো পাহাড় এবং খাঁজের মতো একাধিক অংশ রয়েছে। ওপর থেকে ছবি তোলায় যা দেখে মনে হচ্ছে মুখে মাস্ক পরা!

লকডাউন শেষে কারখানা খোলার আনন্দে চুম্বন প্রতিযোগিতা! সোশ্যালে বিক্ষোভ

গ্রহাণুটিকে ১৯৯৮-এ সম্ভাব্য বিপজ্জনক গ্রহাণু হিসাবে দেখা হয়েছিল। যে গতিতে এটি পৃথিবীর দিকে ধেয়ে আসছিস তাতে সময়মতো আছড়ে পড়লে করোনার আগে এটিই ধ্বংস করে দিত পৃথিবীকে। তবে গ্রহাণু গতি এবং পথ বদল করায় নাসার বিজ্ঞানীরা জোর দিয়ে বলছেন, আপাতত পৃথিবীতে আঘাত হানার সম্ভাবনা নেই এটির।

Click for more trending news