গডসে সম্পর্কে প্রজ্ঞা ঠাকুরের মন্তব্যের নিন্দা করছে বিজেপি তথা সরকার, বললেন অমিত শাহ

Pragya Singh Thakur: প্রজ্ঞা ঠাকুরকে প্রতিরক্ষা বিষয়ক সংসদীয় পরামর্শদানকারী কমিটি থেকে সরিয়ে দেয় বিজেপি

গডসে সম্পর্কে প্রজ্ঞা ঠাকুরের মন্তব্যের নিন্দা করছে বিজেপি তথা সরকার, বললেন অমিত শাহ

Amit Shah: দেশে ভয়ের পরিবেশ রয়েছে, এই অভিযোগ উড়িয়ে দিল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক

মুম্বই:

শনিবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ বলেছেন, নাথুরাম গডসে সম্পর্কে বিজেপি লোকসভা সদস্য প্রজ্ঞা সিং ঠাকুরের (Pragya Thakur) মন্তব্যের তীব্র নিন্দা জানিয়েছে সরকার এবং ভারতীয় জনতা পার্টি । মুম্বইয়ের ইকোনমিক টাইমসের এক পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রবীণ শিল্পপতি রাহুল বাজাজের মন্তব্যের জবাবে তিনি (Amit Shah) এই কথা বলেন। ইতিমধ্যেই প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং বিজেপি সাংসদ প্রজ্ঞা সিং ঠাকুরের গডসে মন্তব্যের নিন্দা করেছেন এবং জানিয়েছেন যে এই মন্তব্যের জন্যে দল তাঁর (Pragya Singh Thakur) বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছে। প্রজ্ঞার মন্তব্য নিয়ে প্রশ্ন করা হলে অমিত শাহ বলেন, "সরকার বা বিজেপি কেউই এই জাতীয় মন্তব্যের সমর্থন করে না। আমরা এই মন্তব্যের তীব্র নিন্দা করি"। শিল্পপতি বাজাজ বলেন যে এখানে ভয়ের পরিবেশ রয়েছে এবং জনগণ সরকারের সমালোচনা করতে ভয় পায় কেননা সরকার যে কোনও সমালোচনাকেই যে ভালভাবে গ্রহণ করবে সে ব্যাপারে আস্থা নেই দেশের মানুষের।

বুধবার ডিএমকে সাংসদ এ রাজা গডসে কেন মহাত্মা গান্ধিকে হত্যা করেছিলেন সে বিষয়ে আদালতের সামনে এক বিবৃতি দেন, সেইসময়ই সংসদের নিম্ন কক্ষে গডসেকে দেশপ্রেমিক বলে উল্লেখ করে প্রবল বিতর্ক তৈরি করেন প্রজ্ঞা ঠাকুর।

নাথুরাম গডসেকে ‘‘দেশভক্ত'' বলার জের, প্রতিরক্ষা কমিটি থেকে সরলেন প্রজ্ঞা ঠাকুর

বিজেপি চলতি অধিবেশনে প্রজ্ঞা ঠাকুর দলের সংসদীয় বৈঠকে অংশ নিতে পারবেন না, জানায় গেরুয়া দল, পাশাপাশি তাঁকে প্রতিরক্ষা বিষয়ক পরামর্শক কমিটি থেকেও সরিয়ে দেওয়া হয়।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এর আগে বলেছিলেন যে হত্যাকারী নাথুরাম গডসেকে প্রকৃত দেশপ্রেমিক বলে প্রজ্ঞা ঠাকুর যেভাবে মহাত্মা গান্ধিকে অপমান করেছেন তার জন্য তিনি ওই সাংসদকে কখনোই ক্ষমা করবেন না।

এদিকে এই অনুষ্ঠান থেকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক এই অভিযোগও অস্বীকার করেযে দেশে ভয়ের পরিবেশ রয়েছে।

"কোনও ব্যাপারেই ভয় পাওয়ার দরকার নেই। সংবাদ মাধ্যমগুলিতে নরেন্দ্র মোদি সরকারের ধারাবাহিকভাবে সমালোচনা করা হচ্ছে। তবে, তারপরেও যদি আপনি বলেন যে দেশে ভয়ের পরিবেশ রয়েছে, তবে আমাদের তা থেকে দেশকে বের করে আনার জন্য কাজ করা উচিত", বলেন  কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।

শাহ বলেন যে সরকার অত্যন্ত স্বচ্ছভাবেই কাজ করছে এবং যদি কোন সমালোচনা হয় তাহলে সেটিকে বিবেচনা করে সেই দিকে উন্নত করারও চেষ্টা করে সরকার।

প্রজ্ঞা ঠাকুরকে জীবন্ত জ্বালিয়ে দেবো : ভয়ঙ্কর হুমকি কংগ্রেস বিধায়কের

কাশ্মীরের পরিস্থিতি সম্পর্কে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী শিল্প সম্প্রদায়কে বলেন সপরিবারে উপত্যকায় সেখানকার আসল পরিস্থিতি মূল্যায়ন করে আসতে পারেন তাঁরা।

অমিত শাহ আরও বলেন, "দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হিসাবে আমি আপনাদের কাশ্মীর সফরে যাওয়ার জন্যে আহ্বান জানাচ্ছি। আপনারা সেখানে গেলে দেখতে পারবেন যে সেখানকার পরিস্থিতি যথেষ্ট্ স্বাভাবিক রয়েছে"।

ইন্টারনেটে বিধিনিষেধ অপসারণের সময়সীমা নিয়ে প্রশ্ন করা হলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন যে এটি আইন-শৃঙ্খলা সংক্রান্ত বিষয়, তাই স্থানীয় প্রশাসনই এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবে।

অমিত শাহ আরও বলেন, বর্তমানে ৬৩০ জন সেখানে জেলবন্দি আছেন এবং তার মধ্যে ১১২ এরও কম রাজনৈতিক বন্দী রয়েছেন।

দেখুন এই ভিডিও:

More News