“গান্ধি পরিবারের ভাবনা থেকে এসপিজি আইন সংশোধন করা হয়নি”, বললেন অমিত শাহ

অমিত শাহ বলেন, একটি পরিবারকে টার্গেট করতে এসপিজি আইন পরিবর্তন করা হয়নি

কংগ্রেস ওয়াকআউট করার পর বিলটি রাজ্যসভায় পাশ হয়

প্রিয়াঙ্কা গান্ধির (Priyanka Gandhi Vadra) বাড়িতে গত সপ্তাহে নিরাপত্তার যে গলদ হয়েছিল তা নিতান্তই ঘটনাচক্র, যে গাড়িতে কংগ্রেস কর্মীরা এসেছিলেন, সেই সময়েই আসার কথা ছিল রাহুল গান্ধির, মঙ্গলবার সংসদে এমনটাই জানালেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ (Amit Shah) । তবুওও একটি উচ্চ পর্যায়ের তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, এবং ঘটনার পরে তিনজনকে সাসপেন্ড করা হয়েছে বলে রাজ্যসভায় জানান তিনি। এদিন এসপিজি (SPG) আইন সংশোধন এবং গান্ধি পরিবারের নিরাপত্তা কমিয়ে দেওয়া বিতর্কের জবাব দেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। অমিত শাহ জানান, ২৫ নভেম্বর প্রিয়াঙ্কা গান্ধির বাড়িতে যাওয়ার কথা ছিল রাহুল গান্ধির, সেই সময়ে,  একটি কালো টাটা সাফারিতে কংগ্রেস কর্মী শারদা ত্যাগী এবং অন্য তিনজন আসেন, রাহুল গান্ধির পরিবর্তে।

এদিন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “সেই কারণেই কোনও পরীক্ষা ছাড়াই গাড়িটি ভিতরে ঢুকে পড়ে। এটি ঘটনাক্রম হওয়া সত্ত্বেও আমরা তদন্তের নির্দেশ দিয়েছি এবং তিনজনকে সাসপেন্ড করা হয়েছে। আমরা .০০১ শতাংশও চাই না”।

সংশোধনের পর, এবার শুধুমাত্র প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবনেই থাকবে এসপিজি

অমিত শাহ বলেন, একটি পরিবারকে টার্গেট করে এসপিজি আইন বদল হয়নি। তাঁর কথায়, “আমরা পরিবারের বিরুদ্ধে নয়, তবে পরিবারবাদের বিরুদ্ধে। ভারতের গণতন্ত্র এভাবে চলতে পারে না। কেন শুধুমাত্র গান্ধি পরিবারের নিরাপত্তার কথা বলা হচ্ছে? গান্ধি পরিবার সহ ১৩০ কোটি ভারতবাসীর নিরাপত্তার দায়িত্ব”।

 সংসদের কংগ্রেস ওয়াকআউট করলে বিলটি পাশ হয় রাজ্যসভায়।

এসপিজি সংশোধনীতে উল্লেখ করা হয়েছে যে, প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ও তাঁর সঙ্গে থাকা পরিবারের সদস্যদের নিরাপত্তা দেওয়া হবে পাঁচ বছর, আগে পর্যালোচনার ওপর ভিত্তি করে এই ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হত। এসপিজি আইনের সংশোধনী পেশ করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, তার একদিন আগে, গান্ধি পরিবারের সদস্যদের এসপিজি নিরাপত্তা প্রত্যাহার করে কেন্দ্র।

আর এসপিজি সুরক্ষা নয়, এখন থেকে জেড প্লাস নিরাপত্তা পাবে গান্ধি পরিবার

সংশোধনীতে বলা হয়েছে, “প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ও তাঁর সঙ্গে থাকা পরিবারের সদস্যদের সুরক্ষা  দেওয়া হবে, তাঁর জন্য বরাদ্দ বাসভবনে, তিনি প্রধানমন্ত্রীর দফতর ছাড়ার দিন থেকে পাঁচ বছর পর্যন্ত”।

সেখানে আরও উল্লেখ করা হয়েছে, যখন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তা প্রত্যাহার করা হবে, সেই সময়েই তাঁর সঙ্গে থাকা পরিবারের সদস্যদের নিরাপত্তাও প্রত্যাহার করা হবে।

কার্যক্ষেত্রে, এর অর্থ, সমস্ত রাজনৈতিক নেতানেত্রী ছাড়া, শুধুমাত্র প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকেই সুরক্ষা দেবেন ৩,৫০০ এসপিজি আধিকারিক।  

More News