"বিস্তারবাদীরা শান্তি বিঘ্নিত করে", লাদাখে নাম না করে চিনকে বার্তা নরেন্দ্র মোদির

লাদাখ সফরে গিয়ে ভারতীয় সেনার পাশে থাকার বার্তা দিলেন প্রধানমন্ত্রী

লাদাখ সফরে প্রধানমন্ত্রী।

লেহ:

ঝটিকা লাদাখ সফরে গিয়ে ভারতীয় সেনার পাশে থাকার বার্তা দিলেন প্রধানমন্ত্রী (PM Modi at Leh-Ladakh)। শুক্রবার তিনি বলেন, "মাতৃভূমি রক্ষায় আপনাদের সাহস অসমান্তরাল। আপনাদের দৃঢ়তা উঁঁচ্চ, যত উঁচুতে আপনারা অবস্থিত ঠিক ততটাই। আপনাদের বাহু ততটাই শক্ত, যতটা শক্ত পর্বত আপনাদের ঘিরে রেখেছ। আপনাদের আত্মবিশ্বাস, বিশ্বাস ততটাই অটল যতটা একটা পর্বতের চূড়ায় থাকে।" তিনি (PM Army) আরও বলেছেন, "ভারত মায়ের শত্রুরা আপনাদের প্রত্যাঘাত দেখেছ। এই পরিস্থিতিতে আপনারা নিজেদের সেরাটা দিয়েছেন। দুর্বলতা শান্তি আনতে পারে না। সাহসীরা পারে। আপনারা সেটাই করে দেখাচ্ছেন। বিশ্বের অন্য সব দেশের বাহিনীর চেয়ে ভারতীয় সেনারা শক্তিশালী সেটা প্রমাণ হয়েছে। আমি আপনাদের, প্রণাম করতে চাই। যাঁরা দেশের জন্য প্রাণ দিয়েছে তাঁদের নমস্কার করতে চাই। লাদাখের সব নদী, সব স্রোত, সব নুড়ি জানে এটা ভারতের অবিচ্ছেদ্য অংশ।" চিনের নাম না করে তিনি বলেন, "বিস্তারবাদের যুগ শেষ। এখন বিকাশবাদের যুগ। বিস্তারবাদীরা শান্তি নষ্ট করে। জল, স্থল, অন্তরীক্ষে শক্তি বাড়িয়েছে ভারত। লাদাখ চক্রান্ত ব্যর্থ করেছে ভারতীয় সেনা।" তাঁর দাবি, "লাদাখ দেশের মাথা, সম্মানের প্রতীক।"

১৫ জুন ভারত ও চিনের সেনাদের মধ্যে সংঘর্ষের পর গোটা পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে লে-তে গেলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। প্রধানমন্ত্রীর দফতরের তরফ থেকে এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে যে বর্তমানে "নিমু" এলাকায় রয়েছেন তিনি। ওই সরকারি বিবৃতিতে বলা হয়, "উনি খুব ভোরেই ওই এলাকায় পৌঁছে যান। সেখানে তিনি পদাতিক সেনা, বায়ুসেনা এবং আইটিবিপি (ইন্দো-টিবেটিয়ান বর্ডার পুলিশ) -এর কর্মীদের সঙ্গে নানা বিষয়ে কথাবার্তা বলছেন। যে এলাকায় তিনি এখন আছেন সেটি সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ১১,০০০ ফুট ওপরে, জ্যানস্কর রেঞ্জের ওই এলাকা খুবই দুর্গম"। লাদাখের এই সফরে প্রধানমন্ত্রীর মোদির সঙ্গে রয়েছেন চিফ অব ডিফেন্স স্টাফ জেনারেল বিপিন রাওয়াত এবং সেনাপ্রধান এমএম নারভানে। শুক্রবার সন্ধে নাগাদ ফিরে আসবেন প্রধানমন্ত্রী মোদি।

গত ১৫ জুন রাতে লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় ভারত ও চিনা সেনার মুখোমুখি সংঘর্ষে এক কর্নেল-সহ শহিদ হন ২০ জন ভারতীয় সেনা জওয়ান। ফলে দেশ জুড়ে তীব্র চিনবিরোধী মনোভাব তৈরি হয়েছে। লাদাখে দুই দেশের মধ্যে তৈরি হওয়া উত্তেজনার বিষয়ে গত সপ্তাহেই 'মন কি বাত' অনুষ্ঠানে মুখ খোলেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন ভারত চিনকে উপযুক্ত জবাব দিয়েছে।