‘বাংলাদেশের অভিনেত্রী’ বিতর্কে বিজেপিকে আন্তর্জাতিক দল বলল তৃণমূল

পদ্ম শিবিরের দাবী অঞ্জু ভারতের নাগরিক (Indian Citizen) । তাঁর কাছে ভারতের পাসপোর্ট আছে। এমনকী লোকসভা নির্বাচনে তিনি ভোটও দিয়েছেন।

‘বাংলাদেশের অভিনেত্রী’ বিতর্কে বিজেপিকে আন্তর্জাতিক দল বলল তৃণমূল

বিজেপিকে বাক্যবাণে বিদ্ধ করেছেন দলের প্রাক্তন সৈনিক দীপ্তাংশু চৌধুরি।

হাইলাইটস

  • অঞ্জু ঘোষের বিজেপিতে যোগদান নিয়ে এবার আক্রমণ শানাল তৃণমূল
  • বিজেপি এখন আন্তর্জাতিক রাজনৈতিক দলে পরিণত হয়েছেঃ তৃণমূল
  • বিজেপির দাবি অঞ্জু ভারতীয় নাগরিক, খোঁজ নিয়েই দলে নেওয়া হয়েছে
কলকাতা:

‘বাংলাদেশের অভিনেত্রী'  অঞ্জু ঘোষের  (Anju Ghosh) বিজেপিতে যোগদান নিয়ে এবার আক্রমণ শানাল  তৃণমূল। দলের তরফে কটাক্ষ করে বলা হল বিজেপি এখন আন্তর্জাতিক রাজনৈতিক দলে (International Political Party) পরিণত হয়েছে। তাই অন্য দেশের নাগরিকরাও বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন। তবে পদ্ম শিবিরের দাবী অঞ্জু ভারতের নাগরিক (Indian Citizen) । তাঁর কাছে ভারতের পাসপোর্ট আছে। এমনকী লোকসভা নির্বাচনে তিনি ভোটও দিয়েছেন। বলা হচ্ছে বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় ছবি বেদের মেয়ে জোছনার ( "Beder Meye Josna",) অভিনেত্রী ২০০২ সালে পাসপোর্ট পেয়েছেন। তাই তাঁর নাগরিকত্ব নিয়ে কোনও প্রশ্ন থাকতেই পারে না। আরও জানা গিয়েছে বিজেপি সভাপতি এবং এখন দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর  মন্ত্রক  থেকে গোটা বিষয়টি খতিয়ে দেখা হয়েছে। অঞ্জু সত্যি ভারতীয় এ বিষয়ে নিশ্চিত হওয়ার পরেই তাঁকে দলে নিয়েছে বিজেপি। 

পরিবেশ দূষণ রোধে ভারত, রাশিয়া এবং চিন নিজেদের ভূমিকা পালন করেনিঃ ট্রাম্প

 কিন্তু সে যাই হোক এ প্রসঙ্গে বিজেপিকে বাক্যবাণে বিদ্ধ করেছেন দলের প্রাক্তন সৈনিক দীপ্তাংশু চৌধুরি। বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দেওয়া এই নেতার দাবি দিলীপ ঘোষের হাত ধরে বিজেপি আন্তর্জাতিক দলে পরিণত হয়েছে। বাংলাদেশের নাগরিকদের নিয়ে ভোট পর্বেও বিতর্ক হয়েছিল। রায়গঞ্জের তৃণমূল প্রার্থী কানহাইয়ালাল আগরওয়ালের জন্য প্রচার করতে এসেছিলেন বাংলাদেশের দুই অভিনেতা। এই ঘটনায় নির্বাচন কমিশন কোনও ব্যবস্থা নিতে পারেনি। তার কারণ নির্বাচন কমিশনের আইনে এ সংক্রান্ত কোনও সুস্পষ্ট নির্দেশ ছিল না। কিন্তু বিজেপি থেকে শুরু করে অন্য রাজনৈতিক দলগুলি এই ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ করে। 

'বেদের মেয়ে...' অঞ্জু ঘোষের নাগরিকত্ব নিয়ে বিতর্কের মাঝে নয়া এই দাবি করল বিজেপি

আসনসোলের  সাংসদ তথা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় দাবি করেন আসলে তৃণমূল সংখ্যালঘুদের তোষণ করার উদ্দেশেই বাংলাদেশের অভিনেতাদের প্রচারে নিয়ে এসেছে। বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ একটি বিতর্ক সভায় অংশ নিয়ে বলেন, ‘আইন ভাঙার নয়া নজির গড়েছে তৃণমূল। এবার তারা এমন ভাবে কাজ করেছে যাতে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার মতো কোনও আইন-ই খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। ' যাদবপুর লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী অনুপম হাজরার প্রচারে মার্কিন নাগরিক দ্য গ্রেট খালির উপস্থিতি নিয়ে রাজনৈতিক বিতর্কের সৃষ্টি হয়। নির্বাচন কমিশনে এ সংক্রান্ত অভিযোগ দায়ের করে তৃণমূল।