এবার করোনা সংক্রমিত ঐশ্বর্য-আরাধ্যা! রিপোর্ট নেগেটিভ জয়া বচ্চনের

রবিবার সকাল থেকে বচ্চন পরিবারের তিনটি বাংলো জলসা, প্রতীক্ষা ও জনকে চলেছে স্যানিটাইজেশনের কাজ। এখনও পর্যন্ত বাড়িতেই আছেন ঐশ্বর্য-আরাধ্যা

এবার করোনা সংক্রমিত ঐশ্বর্য-আরাধ্যা! রিপোর্ট নেগেটিভ জয়া বচ্চনের
মুম্বই:

এবার করোনা সংক্রমিত ঐশ্বর্য রাই বচ্চন এবং আরাধ্যা বচ্চন (Aishwarya-Aradhya Bacchan)। প্রাথমিক র‍্যাপিড টেস্টে এই দু'জনের রিপোর্ট নেগেটিভ (Corona negative) এসেছিল। কিন্তু রবিবার সকালে জলসায় গিয়ে আরটিপিসির (RTPC Test) মাধ্যমে দ্বিতীয় পরীক্ষা করা হয় ঐশ্বর্য, আরাধ্যা ও জয়া বচ্চনের। এই পরীক্ষায় মা-মেয়ের রিপোর্ট পজিটিভ বলে জানিয়েছে বৃহৎ মুম্বই পুরনিগম (BMC)। এদিকে, এদিন সকালে ফের চিকিৎসাধীন অবস্থায় নমুনা পরীক্ষা করা হয় অমিতাভ বচ্চন ও অভিষেক বচ্চনের। সেই রিপোর্টও পজিটিভ এসেছে। মহারাষ্ট্রের স্বাস্থ্যমন্ত্রী টুইট করেছেন, "শ্রীমতি ঐশ্বর্য রাই বচ্চন এবং আরাধ্যা বচ্চন করোনা সংক্রমিত। শ্রীমতি জয়া বচ্চনজি নেগেটিভ। সংক্রমিতদের দেহে মৃদু উপসর্গ। আমি বচ্চন পরিবারের দ্রুত আরোগ্য কামনা করি।"

এদিকে, রবিবার সকাল থেকে বচ্চন পরিবারের তিনটি বাংলো জলসা, প্রতীক্ষা ও জনকে চলেছে স্যানিটাইজেশনের কাজ। এখনও পর্যন্ত বাড়িতেই আছেন ঐশ্বর্য-আরাধ্যা। তাঁদের চিকিৎসাধীন করা হবে কিনা, পর্যালোচনা করছে বিএমসি। পুরনিগম সূত্রে খবর, ডাবিং স্টুডিও থেকে সংক্রমিত হতে পারে অভিষেক বচ্চন। তাঁদের থেকেই সম্ভবত বাকিরা সংক্রমিত।

শনিবার করোনাভাইরাস পজিটিভ ধরা পড়েছে বলিউডের শাহেনশার দেহেও! অমিতাভ বচ্চন এখন “মৃদু লক্ষণ নিয়ে স্থিতিশীল” অবস্থায় রয়েছেন এবং বর্তমানে মুম্বইয়ের নানাবতী সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের আইসোলেশন ইউনিটে ভর্তি রয়েছেন বলে রবিবার এক বিবৃতিতে জানিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। অমিতাভ বচ্চন (৭৭) এবং তাঁর ছেলে অভিষেক বচ্চন (৪৪) শনিবার সন্ধ্যায় কোভিড-১৯ পজিটিভ হওয়ার পরে হাসপাতালে ভর্তি হন। অমিতাভ ও অভিষেক বচ্চন ছাড়াও জয়া বচ্চন, ঐশ্বর্য রাই সহ বচ্চন পরিবারের সদস্যদেরও কোভিড-১৯ পরীক্ষা করা হয়েছে এবং তাদের ফলাফল আনুষ্ঠানিকভাবে আজই ঘোষণা করা হবে বলে শনিবার মহারাষ্ট্রের স্বাস্থ্যমন্ত্রী রাজেশ টোপ জানিয়েছেন। অমিতাভ বচ্চন টুইটারের মাধ্যমে তাঁর স্বাস্থ্য পরিস্থিতি সম্পর্কে তাঁর অনুরাগীদের আপডেট জানাতে থাকবেন বলে হাসপাতাল সূত্রে খবর।

শনিবার রাতে, অমিতাভ বচ্চন একটি টুইটের মাধ্যমে তাঁর শরীরে করোনাভাইরাস ধরা পড়ার কথা জানান। টুইটে তিনি লেখেন: “আমার দেহে কোভিড-১৯ পজিটিভ ধরা পড়েছে... হাসপাতালে ভর্তি হয়েছি... কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছে হাসপাতালই... পরিবার ও কর্মীদের পরীক্ষা-নিরীক্ষাও হয়েছে, ফলাফলের অপেক্ষায় রয়েছি। গত ১০ দিন যাবত আমার সংস্পর্শে যাঁরা এসেছেন তাঁদেরও পরীক্ষা করানোর জন্য অনুরোধ করছি!”