আমেদাবাদে কোভিড হাসপাতালে আগুনে পুড়ে মৃত্যু ৮ করোনা রোগীর, প্রধানমন্ত্রীর শোকপ্রকাশ

Ahmedabad Hospital Fire: অগ্নিকাণ্ডের সময় ৫০ শয্যাবিশিষ্ট ওই হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন ৪৫ জন রোগী; তাঁদের উদ্ধার করে অন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে

Ahmedabad Hospital Fire: বৃহস্পতিবার সকালে শ্রেই হাসপাতালে আগুন লাগে

হাইলাইটস

  • গুজরাটের আমেদাবাদে কোভিড হাসপাতালে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড
  • পুড়ে মৃত্যু হল ৮ জন করোনা রোগীর
  • টুইট করে শোকপ্রকাশ করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি
আমেদাবাদ:

গুজরাটের আমেদাবাদের কোভিড হাসপাতালে বৃহস্পতিবার ভোররাতে ভয়াবহ আগুন (Fire at Covid hospital in Ahmedabad) লাগার ঘটনায় আতঙ্ক ছড়ালো। ঘটনায় এখনও পর্যন্ত ৮ জন করোনা রোগীর মৃত্যুর খবর মিলেছে। জানা গেছে, ভোর ৩টে নাগাদ  গুজরাটের নবরঙপুর এলাকার ওই বেসরকারি হাসপাতালের আইসিইউতে বিধ্বংসী আগুন (Ahmedabad Hospital Fire) লাগে। ঘটনা জানাজানি হওয়ার পর যুদ্ধকালীন তৎপরতায় শ্রেই হাসপাতাল (Gujrat Hospital Fire) থেকে বাকি সব করোনা রোগীকে ১০টি অ্যাম্বুল্যান্সে করে নিকটবর্তী সিভিক হাসপাতালে পাঠিয়ে দেওয়া হয়। তবে যাঁদের মৃত্যু হয়েছে, তাঁরা প্রত্যেকেই আইসিইউতে ভর্তি ছিলেন। মৃতদের মধ্যে ৫ জন পুরুষ ও ৩ জন মহিলা রোগী ছিলেন। অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যায় দমকলের ৮ টি ইঞ্জিন। 

শ্রেই হাসপাতালের তথ্য বলছে, অগ্নিকাণ্ডের সময় ৫০ শয্যাবিশিষ্ট ওই হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন মোট ৪৫ জন করোনা রোগী; তাঁদের উদ্ধার করে সর্দার বল্লভভাই প্যাটেল ইনস্টিটিউট অফ মেডিকেল সায়েন্সেস অ্যান্ড রিসার্চ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনার কথা জানতে পেরে শোকপ্রকাশ করে টুইট করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তিনি লেখেন, "আমেদাবাদের হাসপাতালে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনাটি জানতে পেরে আমি অত্যন্ত দুঃখিত। মৃতদের  পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানাই। আহতরা দ্রুত সেরে উঠুন। পরিস্থিতি নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রূপানি ও মেয়রের সঙ্গে কথা বলেছি। প্রশাসন ক্ষতিগ্রস্তদের সবরকম সাহায্যের ব্যবস্থা করছে।"

এদিকে প্রধানমন্ত্রী কার্যালয় থেকেও এই অগ্নিকাণ্ডের পর একটি টুইট করে ক্ষতিপূরণের ঘোষণা করা হয়। ওই টুইটে বলা হয়েছে, "আমেদাবাদের হাসপাতালে অগ্নিকাণ্ডের কারণে যাঁরা প্রাণ হারিয়েছেন তাঁদের পরিবার পরিজনকে পিএমএনআরএফ-এর তহবিল থেকে ২ লক্ষ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে। হাসপাতালের ওই অগ্নিকাণ্ডে যাঁরা আহত হয়েছেন তাঁদের প্রত্যেককে ৫০,০০০ টাকা করে সাহায্য করা হবে।"

একটি সূত্র জানিয়েছে, প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে যে, শর্ট সার্কিটের কারণে ওই আগুন লেগেছে। ৮ জন রোগীর দেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে।