রেলের কামরায় স্বচ্ছ ভারতের লোগো, দেশের স্টেশন সাজছে গান্ধীজীর মতাদর্শে

150th Gandhi Jayanti: রেলওয়ে বোর্ড জানিয়েছে যে 15 সেপ্টেম্বর থেকে শুরু করে 2 অক্টোবর অব্দি ‘স্বচ্ছতা পাখওয়ারা’ (Swachchta Pakhwara) প্রকল্পটি গান্ধীজীর জন্ম বার্ষিকীকে স্মরণ করতেই উতসর্গীকৃত।

রেলের কামরায় স্বচ্ছ ভারতের লোগো, দেশের স্টেশন সাজছে গান্ধীজীর মতাদর্শে

গান্ধীজীর সঙ্গে জড়িত 43 টি রেল স্টেশনে তাঁর মতাদর্শ অনুযায়ী ছবি আঁকা হবে (প্রতীকি)

নিউ দিল্লি:

মহাত্মা গান্ধীর 150 তম জন্মবার্ষিকী (150th Gandhi Jayanti) উদযাপন উপলক্ষে জাতীয় পরিবহন প্রকল্পের অংশ হিসেবে সরকারের ‘স্বচ্ছ ভারত’ প্রকল্পের লোগো এবং জাতীয় পতাকা প্রদর্শন করা হবে ভারতীয় রেলের প্রতিটি কোচে।

রেলওয়ে বোর্ড জানিয়েছে যে 15 সেপ্টেম্বর থেকে শুরু করে 2 অক্টোবর অব্দি ‘স্বচ্ছতা পাখওয়ারা’ (Swachchta Pakhwara) প্রকল্পটি গান্ধীজীর জন্ম বার্ষিকীকে স্মরণ করতেই উতসর্গীকৃত। মহাত্মা গান্ধীর সঙ্গে বিশেষ ভাবে সম্পর্কযুক্ত 43 টি স্টেশনকে চিহ্নিত করা হয়েছে। যেগুলিতে নির্দিষ্ট থিম অনুযায়ী পেইন্টিং করা হবে। আবার একইভাবে 28 টি আইকনিক স্থানে ব্যাপকভাবে চলবে পরিচ্ছন্নতা অভিযান।

43 স্টেশনের মধ্যে রয়েছে দিল্লি, লক্ষ্ণৌ, মুম্বাই, সুরাট, দানাপুর, আসানসোল, বেঙ্গালুরু, ভাদোসারা। আইকনিক স্থানগুলোর মধ্যে রয়েছে পুরী, অমৃতসর, হরিদ্বার, কুরুক্ষেত্র।

অক্টোবর 2018 থেকে শুরু করে আগামী ছয় মাসের জন্য নানা বিষয়ের থিম বেছেছে রেলওয়ে বোর্ড। এর মধ্যে আছে স্যানিটেশন, অহিংসা, ভলান্টারি কমিউনিটি সার্ভিস, সাম্প্রদায়িক ঐক্য, অস্পৃশ্যতা দূরীকরণ, নারীর ক্ষমতায়ন। ওই নির্বাচিত স্টেশঙ্গুলিতে এই বিষয় মাথায় রেখেই ছবি আঁকার নির্দেশ দিয়েছে আঞ্চলিক রেলওয়ে।

Newsbeep

রেলপথের ধারে ধারে গাছ লাগানোর পাশাপাশি কর্মরত ও অবসরপ্রাপ্ত রেলওয়ে কর্মী ও যাত্রীদের ‘শ্রম দরি’ প্রকল্পে অংশ নেওয়ার কথাও জানানো হয়েছে।

বোর্ড জানিয়েছে, দিল্লি, আগ্রা ও জয়পুর-এই সোনালী ত্রিভুজ অঞ্চলে পরিচ্ছন্নতার বিষয়ে বিশেষ নজরদারি চালাতে হবে। এও বলা হয়েছে যে প্রশাসনিক অফিসগুলি যেমন আঞ্চলিক ও বিভাগীয় সদর দফতরে গান্ধীজীর বিভিন্ন কোটেশন সহ ম্যুরাল থাকতে হবে। এই বছরের ২ অক্টোবর হচ্ছে পুরো বিষয়টি শেষ করার সময়সীমা।

মহাত্মা গান্ধীর 150 তম জন্মবার্ষিকী উদযাপনের একটি অংশ ছিল রেলের এই ভাবনা। সারা দেশ জুড়েই চলবে নানা অনুষ্ঠান ও কার্যক্রম। শুধু দেশে নয় ভারতীয় মিশন বিদেশেও  জাতির জনকের জন্মদিবস উদযাপনে নানা পরিকল্পনা নিয়েছে। চলতি বছরের অক্টোবর থেকে 2019 সালের মার্চ পর্যন্ত প্রতিটি সরকারি বিভাগকে তার পরিকল্পনা জমা দিতে বলা হয়েছে।