This Article is From Jun 21, 2020

দেশে একদিনে ১৫ হাজার সংক্রমিত! করোনা সংক্রমণ ছাড়াল ৪ লক্ষ, মৃত ১৩,২৫৪

গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত ৩০৬ জন। বিশ্বে চতুর্থ সংক্রমিত দেশ হিসেবে গত চার দিনে অত্যাধিক মাত্রায় সংক্রমণের খবর মিলেছে

দেশে একদিনে ১৫ হাজার সংক্রমিত! করোনা সংক্রমণ ছাড়াল ৪ লক্ষ, মৃত ১৩,২৫৪

এখনও পর্যন্ত ১৩ হাজারের বেশি মানুষ এই মারণ ভাইরাসে মৃত।

নয়াদিল্লি:

ভারতে সংক্রমণ ছুঁল ৪ লক্ষ ১০ হাজার ৪৬১ (Covid-19 in India)। রবিবার সকাল পর্যন্ত একদিনে সংক্রমিত ১৫, ৪১৩ জন। দেশের সংক্রমণ ইতিহাসে ২৪ ঘণ্টায় সর্বাধিক সংক্রমিত। এমনটাই জানিয়েছে স্বাস্থ্য মন্ত্রক। এখনও পর্যন্ত ১৩,২৫৪ জন মৃত। গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত ৩০৬ জন। বিশ্বে চতুর্থ সংক্রমিত দেশ হিসেবে গত চার দিনে অত্যাধিক মাত্রায় সংক্রমণের খবর মিলেছে। জানা গিয়েছে, এখনও পর্যন্ত প্রায় ২ লক্ষ ২৭ হাজার মানুষ সুস্থ হয়েছেন। সুস্থতার হার ৫৫.৪৮ শতাংশ (rate of recovery from Covid-19)। এদিকে, রেকর্ড গড়ে একদিনে ১.৯ লক্ষ মানুষের নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। মোট ৬৮ লক্ষ মানুষের নমুনা গত তিন মাসে পরীক্ষা করা হয়েছে। স্বাস্থ্য মন্ত্রক (Ministry of health) সূত্রে রবিবার সকালে এই পরিসংখ্যান দেওয়া হয়েছে। নমুনা পরীক্ষা ও পজিটিভ সংক্রমণের অনুপাত গোটা দেশে এখন ৭.৬৪ শতাংশ।

যতদিন যাচ্ছে ততই যেন বেড়ে যাচ্ছে করোনা ভাইরাসের শক্তি। শনিবারও ২৪ ঘণ্টার নিরিখে আক্রান্ত হয়েছিল ১৪,৫১৬ জন। রবিবার সেই সংখ্যা ছাপিয়ে গেল। শনিবার পর্যন্ত প্রায় চার লক্ষ মানুষ আক্রান্ত হয়েছিল এই মারণ ভাইরাসে। যেভাবে দৈনিক হারে করোনা সংক্রমণের বাড়বাড়ন্ত হচ্ছে তাতে কিন্তু ক্রমশই চিন্তা বাড়ছে দেশের।

এদিকে, দেশে সর্বাধিক করোনা রোগী আছে মহারাষ্ট্র, তামিলনাড়ু, দিল্লি এবং গুজরাট, এই ৪ টি রাজ্যে। সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত মহারাষ্ট্র, সেখানে এখনও পর্যন্ত ১.২৪ লক্ষ মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন করোনায় এবং মারা গেছেন ৫,৮৯৩ জন রোগী।

শুক্রবার দিল্লিতে এই প্রথমবার একদিনের মধ্যে ৩,০০০ মানুষ করোনার কবলে পড়ল। সব মিলিয়ে দেশের রাজধানীতে এই রোগে আক্রান্তের সংখ্যা ৫০,০০০ পেরিয়ে গেছে।  ১ জুনের পর থেকেই যেন হু-হু করে সংক্রমণ বেড়েছে, ওই দিন থেকে আজ পর্যন্ত ৩০,০০০ এরও বেশি মানুষ সেখানে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

এদিকে, সংক্রমিত দিল্লির স্বাস্থ্যমন্ত্রী সত্যেন্দ্র জৈনকে প্লাজমা থেরাপি দেওয়া হয়েছে। তাঁর প্রাথমিক রিপোর্ট নেগেটিভ ছিল। কিন্তু মঙ্গলবার নতুনভাবে নমুনা পরীক্ষার পর বুধবার ফের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। এর পরেই তাঁকে দিল্লির এক বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হচ্ছে। জানা গিয়েছে, বুধবার রাত থেকে প্রচণ্ড জ্বর-সহ শ্বাস-প্রশ্বাসের সমস্যা ছিল স্বাস্থ্যমন্ত্রীর। নিউমোনিয়ার উপসর্গও ধরা পড়েছে। এমনটাই সূত্রের খবর। কেন্দ্রীয় স্তরে এই খবর প্রকাশ্যে আসার পরেই তাঁর আরোগ্য কামনা করে টুইট করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। তিনি লেখেন,"করোনা সংক্রমিত দিল্লির স্বাস্থ্যমন্ত্রীর দ্রুত আরোগ্য কামনা করি